বুধবার ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

জুলাই মাসে করোনায় আক্রান্ত ৯৮ শতাংশের শরীরে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

জুলাই মাসে করোনায় আক্রান্ত ৯৮ শতাংশের শরীরে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

অনলাইন ডেস্ক ॥ দেশে করোনায় আক্রন্তদের শরীরে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক উপস্থিতি পাওয়া গেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন জুলাই মাসে করোনায় আক্রান্ত ৯৮ শতাংশের শরীরে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিল্টন হলে করোনা ভাইরাসের জিনোম সিকোয়েন্সিং গবেষণার ফল প্রকাশের সময় তিনি এ তথ্য জানান। জিনোম সিকোয়েন্সিং রিসার্চ প্রজেক্টের প্রধান পৃষ্ঠপোষক (সুপারভাইজার) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন উপাচার্য নিজেই।

বিএসএমএমইউ উপাচার্য বলেন, গবেষণায় দেশের সব বিভাগের রিপ্রেজেন্টেটিভ স্যাম্পলিং করা হয়। গবেষণায় মোট ৩০০ করোনা আক্রান্ত রোগীর ন্যাযোফ্যারিনজিয়াল সোয়াব স্যাম্পল থেকে নেক্সট জেনারেশন সিকোয়েন্সিংয়ের মাধ্যমে করোনা ভাইরাসের জেনোম সিকোয়েন্সিং করা হয়।

ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, করোনা জীবন-যাপনের পথে বাধা তৈরি করলেও জীবন থেমে নেই। অন্যান্য জেনেটিক্স রোগগুলোর ওপর গবেষণা কার্যক্রম অবিলম্বে শুরু করা হবে। এ বিষয়ে বাংলাদেশের নিজস্ব ডাটা তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হবে। করোনার জেনোম সিকোয়েন্সিং গবেষণার উদ্দেশ্য ভাইরাসটির জিনোমের চরিত্র উন্মোচন, মিউটেশনের ধরণ এবং বৈশ্বিক ভাইরাসের জিনোমের সঙ্গে এর সম্পর্ক বের করা এবং বাংলাদেশি কোভিড-১৯ জেনোম ডাটাবেস তৈরি করা।

এ বছরের ২৯ জুন থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত দেশব্যাপী রোগীদের ওপর এ গবেষণা পরিচালিত হয়।

বিএসএমএমইউয়ের গবেষণায় ৯ মাস থেকে শুরু করে ৯০ বছরের বয়স পর্যন্ত রোগী অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। এরমধ্যে ৩০ থেকে ৩৯ বছর বয়সের রোগীদের সংখ্যা বেশি।

গবেষণায় দেখা যায়, করোনায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে যাদের কো-মরবিডিটি রয়েছে যেমন- ক্যান্সার, শ্বাসতন্ত্রের রোগ, ডায়াবেটিস তাদের মৃত্যুর সংখ্যা বেশি। পাশাপাশি ষাটোর্ধ্বরা দ্বিতীয়বার আক্রান্ত হলে সেক্ষেত্রে মৃত্যু ঝুঁকি বেশি পরিলক্ষিত হয়েছে।

গত এক মাসের ৩০০ স্যাম্পলের জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ে দেখা যায়, মোট সংক্রমণের প্রায় ৯৮ শতাংশ হচ্ছে ইন্ডিয়ান বা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। ১ শতাংশ হচ্ছে সাউথ আফ্রিকান বা বেটা ভ্যারিয়েন্ট দ্বারা সংক্রমণ। যদিও গবেষণার প্রথম ১৫ দিনে এ সংখ্যা ছিল ৩ শতাংশ। একজন রোগীর ক্ষেত্রে আমরা পেয়েছি মরিসাস ভ্যারিয়েন্ট অথবা নাইজেরিয়ান ভ্যারিয়েন্ট (তদন্তাধীন ভ্যারিয়েন্ট)।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
২৩২৩৫৭৯২৮
আক্রান্ত
১৫৫১৩৫১
সুস্থ
২০৮৯৭০৪৫৬
সুস্থ
১৫১১৪৭৯
শীর্ষ সংবাদ:
ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচে জন্মদিনের আনন্দ উচ্ছ¡াস         দেশকে স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছাতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই ॥ তথ্যমন্ত্রী         আন্তর্জাতিকভাবে দ্রুত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         ‘অপকর্মে জড়িতরা আওয়ামী লীগের টিকিট পাবেন না’         এ বছরও হচ্ছে না জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩১         ‘লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হলে কালও চলবে বিশেষ টিকা কর্মসূচি’         ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের নির্বাচন স্থগিত করল হাইকোর্ট         ‘পুলিশি হয়রানি’ বন্ধসহ ৬ দফা দাবি বাইকারদের         ডিএমপির ৫ এডিসির বদলি         হার্ট অ্যাটাকের পর হাসপাতালে স্থিতিশীল অবস্থায় ইনজামাম         সাগরে ফের লঘুচাপ, ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা         গিনেস বুকে নাম লিখিয়েছে সাভারের ছোট গরু রানী         শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ৪ নির্দেশনা         পাঁচ মামলায় খালেদার জামিনের মেয়াদ বাড়ল         ডিবির হাতে আটক আলোচিত মুফতি ইব্রাহীম         ফৌজদারহাটে পণ্যবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত ॥ ট্রেনের একটি লাইন বন্ধ         প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে নীলফামারীতে করোনার গণটিকায় ব্যাপক সাড়া