বুধবার ৮ বৈশাখ ১৪২৮, ২১ এপ্রিল ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কলাপাড়ায় কৃষকের বোরোর বাম্পার ফলন ঘরে তোলা হচ্ছে না

কলাপাড়ায় কৃষকের বোরোর বাম্পার ফলন ঘরে তোলা হচ্ছে না

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, পটুয়াখালী ॥ কলাপাড়ায় কৃষকের বোরোর বাম্পার ফলন ঘরে তোলার রঙ্গিন স্বপ্ন বিবর্ণ হয়ে গেছে। অর্ধেক ধান চিটা হয়ে গেছে। ৪ এপ্রিল দিবাগত রাতের কালবৈশাখীর ঝড়োবাতাসে এমন সর্বনাশ হয়ে গেছে বলে কৃষকের দাবি। তবে যাদের আগাম আবাদ করা ছিল ওইসব ক্ষেতের ফলন কম ক্ষতি হয়েছে। যেসব ধান কেবল বের হয়েছে ওইসব ক্ষেতের ধান প্রবল বাতাসে চিটা হয়ে গেছে। এখন লালচে-খয়রি রঙ ধারন করছে। প্রত্যেকটি ছড়ার অর্ধেক ধান চিটা হয়ে গেছে। কৃষকরা একারণে দিশাহারা হয়ে পড়েছেন। আমনের ভাল ফলন এবার পায়নি এখানকার কৃষক। ধানের ভাল দাম থাকায় বোরোর ব্যাপক আবাদ করেছিলেন। ফলনও হয়েছিল বাম্পার। কিন্তু প্রকৃতি সব যেন শেষ করে দিল। দুর থেকে দেখা যায় ক্ষেতে ধানে সয়লাব, কিন্তু ক্ষেতের ছড়া হাতে ধরে দেখলেই সর্বনাশের চিহ্ন চোখে দেখা যায়। কুমিরমারা, মজিদপুর, পূর্বসোনাতলা, এলেমপুর, মোস্তফাপুর, খলিলপুর, পাখিমারার আংশিক ঘুরে দেখা গেল কৃষকের সর্বনাশা দৃশ্য। কুমিরমারা গ্রামের চাষী গাজী সাইফুল্লাহ জানালেন প্রায় ৭০ হাজার টাকা খরচ করে ১০বিঘা জমিতে বোরোর আবাদ করেছিলেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে কথা হয় এ চাষীর সঙ্গে। বললেন, ‘ ধানের ছড়ার গোড়া এখন শুকাইয়া চিটা হইয়া যাচ্ছে। অর্ধেক অলরেডি চিটা হয়ে গ্যাছে।’ ওই ধান ক্ষেতে ছত্রাক নাশক ওষুধ ছিটাচ্ছিলেন সাইফুল্লাহ। জাকির গাজী জানালেন, তিন একর বোরোর দুই একর নষ্ট হয়ে গেছে। একই বক্তব্য সুলতান গাজীর, আবুল কালামসহ সকলের। এখন আবার সেচের সঙ্কট চলছে। এসব চাষীর সেচ সঙ্কটের কারণ পাখিমারার খালের যুগীর খালের সংযোগ স্থলে শুকিয়ে প্রায় আধাকিলোমিটার খাল খেলার মাঠ হয়ে গেছে। পাখিমারার ১০-১২ কিলোমিটার দীর্ঘ খালটির দুই পাড়ের মানুষ এবছর ব্যাপকভাবে বোরোর আবাদ করেছেন। শুধু নীলগঞ্জ ইউনিয়ন নয়। কমবেশি বাকি ১১ ইউনিয়নের চাষীদের এখন একই হাল। কৃষকরা দিশাহারা হয়ে পড়েছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান জানান, দীর্ঘ অনাবৃষ্টিতে তাপদাহের কারণে ঠিকমতো পরাগায়ন হয়নি। ফুল শুকিয়ে যাচ্ছে তাপদাহে। তবে কৃষককে ক্ষেতে পানি ছিটানোর পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এছাড়া প্রয়োজনীয় ওষুধ ছিটানোর জন্য বলা হয়েছে। উল্লেখ্য এবছর গেল বছরের চেয়ে কলাপাড়ায় অন্তত ছয় গুন বেশি জমিতে বোরোর আবাদ হয়েছে। গেল বছর বোরোর আবাদ হয়েছিল দুই হাজার চার শ’ একর জমিতে। সেখানে এবছর আবাদ হয়েছে ১২ হাজার ৩৫০ একর জমিতে।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৯৫, নতুন শনাক্ত ৪২৮০         ঢাকায় পৌঁছেছে মেট্রোরেলের প্রথম কোচ         ভারতে অক্সিজেন ট্যাঙ্ক লিক হয়ে ২২ কোভিড রোগীর মর্মান্তিক মৃত্যু         এবার জনপ্রতি ফিতরা ৭০ টাকা         লিপ সার্ভিস না দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ান ॥ বিএনপিকে কাদের         ‘সীমিত পরিসরে’ চালু হল অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট         হাইকোর্টের আরও ২টি বেঞ্চ বাড়ালেন প্রধান বিচারপতি         ফিলিপিন্সে বঙ্গবন্ধু-রিজাল যৌথ শিল্পকর্ম উন্মোচন         ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালে তিনদিনে ১৩ জনের মৃত্যু         ভাসানচর ইস্যুর সমাধান হয়ে গেছে : শাহরিয়ার আলম         চলমান লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় প্রধানমন্ত্রীর সাড়ে ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ         করোনা ভাইরাস কেড়ে নিল কবি শঙ্খ ঘোষকে         জাতিসংঘের মাদকদ্রব্য বিষয়ক কমিশনের সদস্য হলো বাংলাদেশ         টিসিবি’র পণ্য বিক্রিতে প্যাকেজ বিড়ম্বনা         ৯০ টাকার স্যালাইন ১২০ টাকা         বরিশালের করোনা রোগীরা পাচ্ছেন বিনামূল্যে অক্সিজেন         করোনায় তরুণদের সংক্রমণ ও মৃত্যু উদ্বেগজনক         লকডাউন ॥ এখনও শুরুই হয়নি সরকারী ত্রাণ বিতরণ         ফোন পেলেই জরুরি স্বাস্থ্য সেবা টিম যাচ্ছে বাসায়         খালেদা জিয়ার সঙ্গে বাবুনগরীর কোনোদিন দেখা হয়নি ॥ প্রতিবাদলিপিতে হেফাজত