শুক্রবার ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নরসিংদীতে পানের বরজে বিভিন্ন রোগের আক্রমণ

নরসিংদীতে পানের বরজে বিভিন্ন রোগের আক্রমণ

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী ॥ তীব্র শীত ঘন কুয়াশার কারনে জেলার মনোহরদী উপজেলায় বিভিন্ন পান বরজে নানা রোগ দেখা দিয়েছে। বরজগুলোতে পান গাছের পাতা হলুদ হয়ে ঝড়ে পড়া ও পাতা পঁচা রোগসহ ছত্রাকের আক্রমণে পান চাষীরা বিপাকে পড়েছেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর থেকে কৃষকদের পরামর্শ দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন ছত্রাকনাশক ওষুধ প্রয়োগের কথা বলা হচ্ছে। তবে কৃষকরা বলছে ঘন কুয়াশার কারণে বরজে ওষুধ ছিটিয়েও কোন সুফল পাচ্ছেন না।

নরসিংদী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, এবছর নরসিংদী জেলার শিবপুর, মনোহরদী ও পলাশ উপজেলায় ২৪৫ দশমিক ৫ হেক্টর জমিতে পান চাষ করা হয়েছে।

মনোহরদী উপজেলার পান চাষী সানাউল্লাহ জানান, গ্রাম্য সমিতি থেকে টাকা উত্তোলন করে ২৫ শতাংশ জমিতে পানের বরজ করেছি। কয়েক মাস আগে হঠাৎ বৃষ্টি হওয়ায় আমার পানের বরজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সে সমস্যা যেতে না যেতেই এখন প্রচুর পরিমাণে কুয়াশায় পানের পাতা সব হলুদ হয়ে ঝড়ে পড়তেছে। এতো কুয়াশার কারনে পানগাছের পাতায় কালো কালো দাগ পড়তেছে এবং হলুদ হয়ে যাচ্ছে। আমি এখন কি করবো, সমিতির কিস্তির টাকাই বা কোথায় থেকে দিবো, ভেবে পাচ্ছি না।

একই গ্রামের মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, শীত মৌসুমে পান হলুদ হয়ে যায়, পানপাতা ঝড়ে পড়ে। এছাড়া তাজুল ইসলাম সরকার নামে অপর এক কৃষক জানান, শীত মৌসুমে পানপাতা ঝড়ে মাটিতে পড়ে যায়। এটা প্রতি বছরই হয়ে থাকে। এবছরও অনুরূপ পানের পাতা হলুদ হয়ে ঝড়ে যাচ্ছে।

নরসিংদী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ শোভন কুমার ধর বলেন, জেলার শিবপুর, মনোহরদী ও পলাশ উপজেলায় এবছর ২৪৫ দশমিক ৫ হেক্টর জমিতে পান চাষ করা হয়েছে। এতে ৫ শ’ মেট্টিক টন পান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। উৎপাদিত পান জেলার চাহিদা মিটিয়ে পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোতে সরবরাহ করা হয়ে থাকে। খোলা জায়গায় পানের বরজ হওয়ায় ঘন কুয়াশায় পানপাতা হলুদ হয়ে পড়ে। এসময় পানপাতায় ছত্রাকজনিত কালো দাগ ও দেখা দেয়। তবে এ সমস্যা সমাধানে আমরা কৃষকদের বরজের ভিতরে কুয়াশা যেন না ঢুকতে পারে সেজন্য পলিথিন ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছি। এছাড়া বরজের ছত্রাকের আক্রমণ রুখতে কৃষকদের নিয়মিত ছত্রাকনাশক স্প্রে করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

শীর্ষ সংবাদ:
অনেক উন্নত দেশের আগে টিকার ব্যবস্থা করতে পেরেছি ॥ প্রধানমন্ত্রী         পিলখানায় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন         গভীর হবে সম্পর্ক ॥ স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে আসছেন মোদি         আপীল বিভাগে চূড়ান্ত বিচারের অপেক্ষা         হঠাৎ ছাত্র আন্দোলনের পেছনে বিশেষ মহলের ইন্ধন!         বিএনপির সাত মার্চ পালনের উদ্যোগ ইতিবাচক ॥ কাদের         পিএসসির আদলে কমিশন গঠনের উদ্যোগ         একযুগ পেরিয়ে গেলেও বিস্ফোরক মামলার নিষ্পত্তি হয়নি         করোনায় আক্রান্ত ও শনাক্ত কমেছে         পঞ্চম ধাপের পৌর নির্বাচন নিয়েও শঙ্কা         আগে টাকা দিন, পরে আলোচনা- না দিলে জেলে যেতে হবে         মেরিন ফিশিং সেক্টরে নৈরাজ্য ও স্বেচ্ছাচারিতা         খাদ্য নিরাপত্তায় উন্নত জাতের ধান আবাদ করছেন জুমিয়ারা         বিদেশফেরতদের তথ্য সংগ্রহে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম         একটি চিহ্নিত মহল ছাত্রসমাজকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে : শিক্ষামন্ত্রী         স্কুল-কলেজ খুলতে পর্যালোচনা সভা ডেকেছে সরকার         মেঘালয় সীমান্তে আরও একটি সীমান্ত হাট         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় ৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৪১০         রেলে বড় নিয়োগ আসছে ॥ মন্ত্রী         “ক্যাডেটদের বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার সুযোগ সৃষ্টি করে দিচ্ছি”