বৃহস্পতিবার ৭ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

রাখাইন ছেড়ে পালাচ্ছে রোহিঙ্গারা, সুমাত্রায় উদ্ধার ২৯৭

  • এরা আশ্রয় পাচ্ছে মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায়

মোয়াজ্জেমুল হক/এইচএম এরশাদ ॥ মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য ছেড়ে রোহিঙ্গাদের পলায়ন তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসার পর এখন আর সে সুযোগ পাচ্ছে না। ফলে এরা মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ বিভিন্ন দেশমুখী হয়েছে। এই প্রক্রিয়ায় দীর্ঘদিন সাগরে ভাসমান থাকার পর সোমবার সকালে ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপে আচে উপকূল থেকে ২৯৭ রোহিঙ্গা উদ্ধার হয়েছে। এদের মধ্যে পুরুষ ১০২, নারী ১৮১ ও ১৪ শিশু রয়েছে। ২০১৫ সালের পর এটাই সে দেশে উদ্ধারে সবচেয়ে বড় ঘটনা বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে। এসব রোহিঙ্গার দল কোথা থেকে সেখানে পৌঁছল তাৎক্ষণিকভাবে জানা না গেলেও এটা নিশ্চিত যে রাখাইন রাজ্যে অব্যাহত নির্যাতনের মুখে এরা পালিয়েছে। এর আগেও দলে দলে রোহিঙ্গারা রাখাইন থেকে মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশে পালিয়ে গেছে।

উল্লেখ করা যেতে পারে, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও পুরনো রোহিঙ্গা নেতাদের নানামুখী নেতিবাচক প্রবণতার কারণে রাখাইন রাজ্যে ভবিষ্যতে হয় তো একটি রোহিঙ্গা পরিবারও থাকা সম্ভাবনা নেই। এরা দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ মুখী হয়ে আছে। কিন্তু বর্তমানে ১২ লক্ষাধিক আশ্রিত হওয়ার পর বাংলাদেশ এখন আর রোহিঙ্গাদের গ্রহণ করছে না। তবে ইতোমধ্যে আন্দামান সাগরে ভাসমান থাকার পর আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা কৌশলে সমুদ্রপথে তাদের বাংলাদেশের সীমানায় নিয়ে আসে। এ ধরনের একটি দলকে ভাসান চরে আশ্রয় দেয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৬ আগস্টের রাতের পরবর্তী ৫ মাস যেভাবে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ঢল নামে তা অতীতের সব রেকর্ড ভঙ্গ হয়। এখনও ফাঁক ফোঁকরে রোহিঙ্গা আগমনের প্রচেষ্টার কমতি নেই। তবে বর্তমানে রাখাইন থেকে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গারা মালয়েশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়ায় আশ্রয় পাচ্ছে।

সোমবার যে ২৯৭ রোহিঙ্গার দলকে ইন্দোনেশিয়ায় উদ্ধার করা হয়েছে। সেটি আচে উপকূলের লোকসিউমাউত এলাকায়। একটি ইঞ্জিন চালিত নৌকা বোঝাই হয়ে এরা উপকূলে পৌঁছে। এর ২ মাস পূর্বে একই দ্বীপে আরও ১০০ রোহিঙ্গাকে একটি নৌকা থেকে উদ্ধার করে ইন্দোনেশিয়া সরকার। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, উজং বালাংগ গ্রামের প্রধান মুনির আলী জানিয়েছেন, সকালে তারা দেখতে পান একটি নৌকা কিছু লোককে নিয়ে উজং বালাংগ এর উপকূলের দিকে আসছে। তখন তারা নিরাপদে তীরে পৌঁছতে সাহায্য করে। তবে তারা কতদিন সাগরে ভাসমান অবস্থায় ছিল এবং কোন ধরনের নৌকায় ভেসে দ্বীপের উপকূলের পৌঁছলেন সেটি এখনও স্পষ্ট হয়নি। ওই এলাকার সেনাপ্রধান রনি মাহেন্দ্র জানিয়েছেন, দলটির কয়েকজন সদস্য অসুস্থ থাকায় তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। লোকসিউমাউতে রেড ক্রসের প্রধান জুনাইদি ইয়াহা জানিয়েছেন, তাদের আপাতত সেখানে রাখা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, পরে তাদের নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাওয়া হবে। তিনি বলেন, করোনা মহামারীতে এসব রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি প্রধান চিন্তার বিষয়। এর আগে প্রায় ৪ মাস সাগরে ভেসে থাকার পর গত জুন মাসে ১০০ রোহিঙ্গাকে নিয়ে ওই দ্বীপে একটি নৌকা পৌঁছায়।

শীর্ষ সংবাদ:
সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত প্রধান বিচারপতি, হাসপাতালে ভর্তি         ২০২৪ সালেও নির্বাচনী জুটি হবেন কমলা-বাইডেন         ৩৩ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাল জার্মানি         ‘সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের একসঙ্গে কাজ করার বিকল্প নেই’         এক সপ্তাহে করোনা রোগী বেড়েছে ২২৮ শতাংশ         ‘স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাসে শহীদ আসাদ একটি অমর নাম’         ‘শহীদ আসাদের আত্মত্যাগ সবসময় প্রেরণা জোগাবে’         বিধিনিষেধে তোয়াক্কা নেই ॥ করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে         অগ্রযাত্রা কেউ থামিয়ে দিতে পারবে না         চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা         ঢাকা, রাঙ্গামাটির পর ঝুঁকিপূর্ণ আরও ১০ জেলা         বিএনপি-জামায়াতের লবিস্ট নিয়োগ তদন্তে গোয়েন্দারা         লাভজনক থেকে রুগ্ন ॥ গাজী ওয়্যারসের আধুনিকায়ন প্রকল্পে ২০ কোটি টাকা লোপাট         বিএনপি জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে ॥ কাদের         ওমক্রিন প্রতেিরাধে ডসিদিরে র্সবােচ্চ সর্তক থাকার নর্দিশে         শিমুকে সরিয়ে দেয়ার সুযোগ খুঁজতে থাকে ঘাতক স্বামী         দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনশন চলবে         কেটে গেছে শৈত্যপ্রবাহ তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টি হতে পারে         অস্ট্রেলিয়ায় চাকরির নামে বিপুল অর্থ আত্মসাত