মঙ্গলবার ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

পায়রা বন্দরে এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণ সম্ভব হচ্ছে না

  • সমীক্ষা শেষে জানিয়ে দিল জাপানী পরামর্শক প্রতিষ্ঠান

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পদ্মার ওপারে খুলনা ও বরিশাল অঞ্চল মিলিয়ে ২১টি জেলার জ্বালানি সঙ্কট মোকাবেলায় ২০১৬ সালে গ্যাস সরবরাহের উদ্যোগ নেয় সরকার। এরই অংশ হিসেবে দীর্ঘমেয়াদী জ্বালানি সরবরাহ পরিকল্পনায় পায়রায় একটি স্থায়ী লিকুইফাইড ন্যাচারাল গ্যাস (এলএনজি) টার্মিনাল তৈরির উদ্যোগ ছিল সরকারের।

কিন্তু পায়রাবন্দরে পানির গভীরতা কম থাকায় আপাতত সেখানে টার্মিনাল তৈরি সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছে জাপানী পরামর্শক প্রতিষ্ঠান টোকিও গ্যাস ইঞ্জিনিয়ারিং সলুশনস করপোরেশন (টিজিইএস) ও নিপ্পন কোই কোম্পানি (এনকে)। গত সপ্তাহে মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এলএনজি টার্মিনাল স্থাপন সংক্রান্ত এক পর্যালোচনা সভায় জানিয়ে দেয়া হয়েছে, আপাতত পায়রায় এলএনজি টার্মিনাল তৈরি সম্ভব নয়।

পরামর্শক প্রতিষ্ঠান দুইটি বলছে, পটুয়াখালীর পায়রাবন্দর এলাকায় ল্যান্ড বেজড এলএনজি টার্মিনাল তৈরির জন্য চ্যানেলের ন্যূনতম গভীরতা ১২ মিটার না থাকায় বর্তমানে সেখানে টার্মিনাল তৈরি সম্ভব হবে না। তবে, পায়রাবন্দর এলাকার রাবনাবাদ চ্যানেল কস্ট শেয়ারিংয়ের ভিত্তিতে ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে টার্মিনাল তৈরি করা যেতে পারে।

পায়রাবন্দর কর্তৃপক্ষ গত বছর বেলজিয়ামের একটি কোম্পানির সঙ্গে বন্দরের রামনাবাদ চ্যানেলের খনন কাজের চুক্তি করে। ওই চুক্তিতে বন্দরে ১২ মিটার গভীরতা সৃষ্টির কথা বলা হয়েছে। এখন বন্দর চ্যানেলে সাড়ে চার মিটার থেকে আট মিটার গভীরতা রয়েছে। ফলে বন্দরে সাড়ে চার মিটার গভীরতায় বড় জাহাজ আসতে পারে না। এলএনজি টার্মিনালের জন্য ১২ থেকে ১৬ মিটার গভীরতার প্রয়োজন, যা পায়রাবন্দরে নেই।

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে দুটি বন্দর রয়েছে। পায়রা ছাড়া অন্য বন্দরটি হচ্ছে মংলা। মংলায়ও গভীরতা সঙ্কট রয়েছে। মংলায় সর্বোচ্চ ৭ থেকে আট মিটার গভীরতায় জাহাজ আসতে পারে। ফলে এখানেও এলএনজি টার্মিনাল তৈরি সম্ভব নয়। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মধ্যে কেবল ভোলায় গ্যাস রয়েছে। তবে ভোলার গ্যাস দিয়ে দুটি বিদ্যুতকেন্দ্র চালানো হচ্ছে। এর বাইরে ভোলা থেকে ব্যাপকভাবে গ্যাস তুললেও তা আনা সম্ভব হচ্ছে না। কারণ ভোলার গ্যাস আনতে হলে পানির মধ্য দিয়ে পাইপলাইন করতে হবে। যা নির্মাণ করাকে কঠিন বলে মনে করছে পেট্রোবাংলা। এছাড়া, ভোলার গ্যাসের জন্য পাইপলাইন তৈরি হলে তা কতটা অর্থনৈতিকভাবে উপযোগী হবে, সেই প্রশ্নও রয়ে গেছে। এ বিষয়ে বিদ্যুত জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘ল্যান্ড বেজ এলএনজি টার্মিনাল তৈরি আন্তর্জাতিক টেন্ডার আহ্বানের মাধ্যমে শেষ করার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছিলেন। নির্দেশনা অনুযায়ী কক্সবাজারের কুতুবদিয়া ও পটুয়াখালীর পায়রাবন্দর এলাকায় এক্সপ্রেশন অব ইন্টারেস্ট বা আগ্রহপত্র আহ্বান করা হয়। দশটি প্রতিষ্ঠান দরপ্রস্তাব জমা দেয়। দরপ্রস্তাব মূল্যায়ন করে ৫টি প্রতিষ্ঠানকে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত করা হয়। এরপর তাদের রিকোয়েস্ট ফর প্রপোজাল বা অনুরোধপত্র তৈরি করতে বলা হয়। অন্যদিকে, পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে জাপানের কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করা হয়। কোম্পানির প্রতিবেদনে এ বিষয়টি উঠে এসেছে। এখন উচ্চপর্যায় সিদ্ধান্ত নেবে, তারা কী করবে।

প্রসঙ্গত, সরকারী প্রতিষ্ঠান হাইড্রোকার্বন ইউনিটের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০৪১ সালে আমাদের গ্যাসের যে মজুত আছে তা ফুরিয়ে যাবে। এরপর থেকে আমদানি করা জ্বালানি দিয়েই চলতে হবে। গ্যাসের এই আসন্ন সঙ্কটের কথা বিবেচনা করেই সরকারের পক্ষ থেকে এলএনজি ও কয়লা আমদানির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এদিকে, এখনই দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে গ্যাস নেই। সেখানে গ্যাসের বিকল্প জ্বালানি না সরবরাহ করা হলে সেখানকার অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। আর সেখানে গ্যাস সরবরাহ করতে হলে পায়রায় একটি ল্যান্ডবেজড এলএনজি টার্মিনাল করা খুবই প্রয়োজন বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

শীর্ষ সংবাদ:
প্রত্যাবাসন নিয়ে রোহিঙ্গারা দীর্ঘ অনিশ্চয়তার কারণে হতাশ হয়ে পড়ছে : প্রধানমন্ত্রী         হাতিরঝিলে স্থাপনা উচ্ছেদসহ ওয়াটার ট্যাক্সি নিষিদ্ধে রায় প্রকাশ         মাদকাসক্ত সন্তানকে গ্রেফতারে বাবা-মা আসেন ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         নিয়মানুযায়ী দিনের ভোট দিনেই হবে ॥ সিইসি         ২৫ জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন         করোনা : ২৪ ঘন্টায় আরও ৩৪ জন শনাক্ত         ফুল, ফল, আসবাবসহ ১৩৫টি পণ্য আমদানিতে খরচ বাড়ল         মোংলায় পৌঁছল ভারতের দুই যুদ্ধ জাহাজ         চাকরির প্রলোভনে নারীকে সৌদিতে পাচারের পর বিক্রির অভিযোগ         এবার চিনির রপ্তানি সীমিত করছে ভারত         নাইজেরিয়ায় জঙ্গী হামলায় ৫০ জন নিহত         দ্বিতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কা পিছিয়ে ২২২ রানে         কুমিল্লার নাশকতার মামলায় স্থায়ী জামিন খালেদার         সিঙ্গাপুর গেলেন জিএম কাদের         আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলেন সম্রাট         হাইকোর্টের সাজার বিরুদ্ধে হাজী সেলিমের আপিল         কুড়িগ্রামে মাদক কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ         বাংলাদেশে কোনো মাঙ্কিপক্স রোগী শনাক্ত হয়নি ॥ উপাচার্য