শুক্রবার ১৫ মাঘ ১৪২৮, ২৮ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

পাখি রক্ষার শপথ নিয়ে ‘সেতুবন্ধন’

  • সারতাজ আলীম

৩২০ জন তরুণ। লক্ষ্য আর স্লোগান একটাই। ‘পাখি বাঁচাও, প্রকৃতি বাঁচাও।’ শুরুটা হয়েছিল এক তরুণের পাখির প্রতি ভাললাগা, ভালবাসা এবং কিছু করার চেষ্টা থেকে। দিন দিন বনভূমি আর গাছপালা উজাড় হওয়া এবং পাখি নিধন তীব্রভাবে নাড়া দিচ্ছিল তাকে। ভাবছিলেন, তবে কি পাখির কলকাকলিতে মুখরিত বাংলা একসময় পাখি শূন্য হয়ে যাবে, বনের বদলে পাখির স্থান হবে জাদুঘরে মমি করা অবস্থায়।

নীলফামারীর সৈয়দপুরের আলমগীর সিদ্ধান্ত নিলেন এভাবে চলতে দেয়া যায় না, কাউকে তো সামনে এসে দাঁড়াতেই হবে। সেই সিদ্ধান্তের ফলÑ ২০১৩ সালে যাত্রা শুরু সেতুবন্ধনের। কয়েক বন্ধুকে নিয়ে প্রথমে তিনি পাখির আবাসস্থল নিশ্চিত করার উদ্যোগ নেন। বিশেষভাবে বানানো কলস গাছে স্থাপন করা শুরু করে স্বেচ্ছাসেবী এই সংগঠনটি। ঝড়-বৃষ্টিতে যেন কলসিতে পানি না জমে সে জন্য ছোট ছোট ছিদ্রও করে দেয়া হতো। খরচ বহন করতেন আলমগীর নিজেই। ছোটবেলা থেকেই পাখিপ্রেমী এই তরুণ নিজের উপার্জিত টাকার একটা অংশ রেখে দিতেন পাখির জন্য। কিছুদিন ঘুরতেই দেখা মেলে সফলতার। পাখিরা নির্ভয়ে বাসা বেঁধেছে সেই কলসে। বংশবিস্তার করছে। যাত্রা শুরু এভাবেই। আলমগীর হয়ে ওঠেন পাখিদের বন্ধু। আলমগীর উপলব্ধি করলেন পাখিদের সবচেয়ে বড় শত্রু কিছু মানুষ। এদের একটা বড় অংশই আবার পাখি শিকারকে কোন অপরাধই মনে করে না। শীত আসলেই গুলতি-বাঁটুল দিয়ে পাখি মারার উৎসব লেগে যেত শিশু-কিশোরদের মধ্যে। সেই শিশু-কিশোররাই গুলতি ফেলে এখন দায়িত্ব নিয়েছে পাখি রক্ষার। দৃশ্যপট বদলে গিয়েছে। বন্দুক তো দূরে থাক গুলতি দিয়েও পাখি শিকার করার কথা এখন কেউ ভাবে না। স্কুল-কলেজে, বাড়িতে বাড়িতে এবং এলাকাভিত্তিক চলছে সেতু-বন্ধনের ক্যাম্পেন। সভা-সমাবেশ, লিফলেটও বিতরণ করা হচ্ছে। প্রাণী সংরক্ষণ আইন নিয়েও জানানো হচ্ছে মানুষকে।

পাখি সংরক্ষণে শপথ নেয়া স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সেতুবন্ধনের প্রতিষ্ঠাতা আলমগীর হোসেন জানান এখন পর্যন্ত ৭০০০ কলসি তারা গাছে লাগিয়েছেন। এখন পর্যন্ত পাখির অভয়ারণ্য তৈরি করেছেন ৪টি। যে কোন পাখিকেই সমান গুরুত্ব দেন তারা। এলাকাবাসীর মধ্যে এখন এতই সচেতনতা তৈরি হয়েছে যে কিছুদিন আগেও অবজ্ঞা করা কাকের দিকেও এখন আর কেউ ঢিল ছুড়ে মারে না। বিগত কয়েক দশক করে আশঙ্কাজনকভাবে কমে আসা শামুকখোল পাখিরও দেখা মিলছে অভয়ারণ্যে। প্রজনন, ঝড়-বৃষ্টির দিনে এই ৪টি অভয়ারণ্য এখন পাখিদের আশ্রয়স্থল। সাইন বোর্ড ঝুলিয়ে সতর্ক করা হচ্ছে অভয়ারণ্য নিয়ে।

অর্থ নিয়ে প্রথমে আশঙ্কা দানা বাঁধলেও পাখির প্রতি ভালবাসাই সেটার সমাধান করে দিয়েছে। সদস্যরা মাসিক ২০ টাকা চাঁদা দিয়ে সচল রেখেছে তাদের প্রাণের সংগঠনকে। যে কোন ধরনের পৃষ্ঠপোষকতা পেলে যে এই উদ্যোগ পুরো উত্তরবঙ্গে ছড়িয়ে যাবে তাতে কোন সন্দেহ নেই। এ ছাড়াও অন্য স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোর সঙ্গে সমন্বিতভাবে কাজ করে সেতুবন্ধন।

জীববৈচিত্র্য রক্ষার এই উদ্যোগে সেতুবন্ধনকে সহায়তা করছে উপজেলা প্রশাসন। নিয়মিত তাদের কাছ থেকে পরামর্শ পাচ্ছে এই সংঘটি। অদূর ভবিষ্যতে একটি পরিচর্যা কেন্দ্র নির্মাণ করা হবে বলে জানান আলমগীর।

খোলা আকাশে নির্ভয়ে পাখির ডানা মেলে উড়ে যাওয়া- আলমগীরের স্বপ্ন এটাই। স্বপ্ন পূরণ হোক আলমগীরের। পাখিরা পাক নিরাপদ আশ্রয়।

শীর্ষ সংবাদ:
মমেক হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৯         বিএফডিসিতে শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন শুরু হয়েছে         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৯ হাজার ৯২৭ জন         লবিস্ট নিয়োগের এত টাকা কোথা থেকে এলো         মেট্রোরেলের পুরো কাঠামো দৃশ্যমান         ইসি গঠন আইন পাস ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছর পর         দেশী উদ্যোক্তাদের বিদেশে বিনিয়োগের পথ উন্মুক্ত         এ মাসে নির্মল বাতাস মেলেনি রাজধানীতে         কঠিন হলেও দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনই সমাধান         শাবিতে অহিংস আন্দোলন চলবে ॥ ভিসি সরিয়ে নেয়ার গুঞ্জন         দেশে করোনায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু         জাতির পিতা হত্যার পর কবি, আবৃত্তিকাররাই প্রতিবাদ করেছেন         দেশে করোনার চেয়ে অসংক্রামক রোগে মৃত্যু বেশি         নায়ক না ভিলেন-শিল্পীরা কাকে বেছে নেবেন?         রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের নেপথ্যে কে- বের হয়ে আসছে         পরপর দু’বছর দেশসেরা, সিএমপির গতি আরও বাড়বে         দেশের সর্বনাশ করতেই বিএনপির লবিষ্ট নিয়োগ : সংসদে প্রধানমন্ত্রী         ৪৪তম বিসিএসের আবেদন ২ মার্চ পর্যন্ত         জমি অধিগ্রহণে আমার লাভবান হওয়ার খবর উদ্দেশ্যপ্রণোদিত : শিক্ষামন্ত্রী         জানুয়ারিতে ‘অস্বাস্থ্যকর বায়ু’ ছিল ঢাকায়