ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

প্রধানমন্ত্রী পদে মোদিকেই প্রথম পছন্দ ভারতীয়দের

প্রকাশিত: ১৯:৩৩, ৩০ নভেম্বর ২০১৮

প্রধানমন্ত্রী পদে মোদিকেই প্রথম পছন্দ ভারতীয়দের

অনলাইন ডেস্ক ॥ ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনেও ভারতের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ভোটারদের প্রথম পছন্দ নরেন্দ্র মোদি। শতকরা ৪২ ভাগ ভোটারই মোদিকে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চায়। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রী পদে দেখতে চায় ২০ শতাংশ ভোটার। তালিকায় যৌথভাবে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন বহুজন সমাজপার্টি (বিএসপি) নেত্রী মায়াবতী ও পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। উভয়কেই পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী পদে পছন্দ শতকরা ১১ ভাগ ভোটারের। টাইমস নাও এবং সিএনএক্স যৌথ জরিপেই উঠে এসেছে এই তথ্য। সেখানে দেখা গেছে ১৬ শতাংশ ভোটারই আগামী লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী পদে নতুন কাউকে দেখতে চায়। ৫২ শতাংশ ভোটারই মনে করেন মোদির শাসনকালে প্রকৃতপক্ষেই দেশে ‘আচ্ছে দিন’ (ভালো সময়) এর সুফল বইছে। যদিও ৩০ শতাংশ ভোটার তেমনটা মনে করেন না। ১৭ শতাংশ ভোটার এই প্রশ্নের কোন অভিমত জানাননি। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বারেবারে অভিযোগ করা হচ্ছে, মোদি জমানায় সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি রাফায়েল যুদ্ধ বিমান চুক্তি-যেটা রাজীব গান্ধীর আমলে বোফর্সকেও পিছনে ফেলেছে। সাম্প্রতিক কালে ভারতের একাধিক রাজ্যে বিধানসভার নির্বাচনেও একে ইস্যু করে নির্বাচনী প্রচারণায় ঝড় তুলেছেন রাহুল গান্ধীও। যদিও ভোটারদের অভিমত ‘রাফায়েল’ ইস্যু লোকসভা নির্বাচনে তেমন কোন প্রভাব ফেলবে না। ৭৪ ভাগ ভোটার জানান, অর্থনৈতিক বিষয়টিই আগামী নির্বাচেন সবচেয়ে বড় ইস্যু হয়ে দাঁড়াবে। ১১ শতাংশ ভোটার মনে করেন রাম মন্দির নির্বাচনে ইস্যু হতে পারে। মাত্র ১০ শতাংশ ভোটার মনে করেন পরবর্তী নির্বাচনে রাফায়েল ও দুর্নীতির বিষয়টি বিজেপির কাছে উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণে মোদি সরকারের অর্ডিন্যান্স আনা উচিত কি না সে প্রশ্নের উত্তরে ৪৬ শতাংশ ভোটারের অভিমত একমাত্র অর্ডিন্যান্স আনলেই মন্দির নির্মাণের পথ প্রশস্ত হবে। যদিও ২৭ শতাংশ ভোটার সেই মতের সঙ্গে সহমত পোষণ করেননি। আর অন্য ২৭ শতাংশ এই ইস্যুতে তাদের কোন অভিমত জানাননি।