ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০

চ্যালেঞ্জের মুখে বেসরকারী বিমান খাত

প্রকাশিত: ০৩:৫৪, ২৮ নভেম্বর ২০১৭

চ্যালেঞ্জের মুখে বেসরকারী বিমান খাত

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দফায় দফায় জেট ফুয়েলের দাম বৃদ্ধিতে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে দেশের বেসরকারী বিমান খাত। এর সঙ্গে যোগ হওয়া ভ্যাটের বোঝা, অসামাঞ্জস্য চার্জ ও বিমানবন্দর থেকে অন্যান্য সুবিধা না পাওয়ায় শংকিত উদ্যোক্তারা। তারা বলছেন, পরিস্থিতি সামাল দেয়া না গেলে হুমকিতে পড়বে গুরুত্বপূর্ণ এই খাত। আকাশপথে যাত্রীদের চাহিদা মেটাতে সরকারী বিমান সংস্থার পাশাপাশি ৯০-এর দশকে শুরু হয় বেসরকারী বিমানের যাত্রা। প্রায় দুই যুগের কাছাকাছি সময়ে বাংলাদেশে ১১টি বেসরকারী বিমান পরিচালন সংস্থা এসেছে। সময় গড়িয়েছে। পরিবর্তন হয়েছে নামের। তবে স্বপ্ন আর বাস্তবতার মেলবন্ধন ঘটাতে না পেরে টিকে আছে মাত্র তিনটি বেসরকারী বিমান পরিচালন সংস্থা। টিকে থাকার লড়াইয়ে জেট ফুয়েলের দামই ভোগাচ্ছে উদ্যোক্তাদের। এর মধ্যে কয়েক দফা বাড়ানো হয়েছে এর দাম। প্রতিটি বেসরকারী বিমান সংস্থা বিনিয়োগ করেছে গড়ে প্রায় ৬০০ থেকে ৮০০ কোটি টাকা। অথচ বছরান্তে জ্বালানির দাম বৃদ্ধি, ভ্যাট-ট্যাক্স, সার্ভিস চার্জ, হ্যাংগারের সুবিধা না থাকার পাশাপাশি গ্রাউন্ড হ্যান্ডেলিং অসুবিধায় কোণঠাসা হয়ে পড়েছে বেসরকারী বিমান সংস্থাগুলো।
×