ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২০ আগস্ট ২০২২, ৫ ভাদ্র ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

হ্যান্ডসেটে নতুন প্রযুক্তি

প্রকাশিত: ০৬:২০, ২২ জুলাই ২০১৭

হ্যান্ডসেটে নতুন প্রযুক্তি

পকেটে মোবাইল রাখার দিনও বুঝি শেষ হয়ে এলো। স্মার্টফোন নির্মাতা চীনা প্রতিষ্ঠান লেনোভো বাজারে নিয়ে এসেছে নতুন এক স্মার্টফোন, যেটি নিজের ইচ্ছামতো মুড়িয়ে হাতে ঘড়ির মতো পরে থাকা যাবে। বিশ্বাস হচ্ছে না? কিন্তু এমনটাই ঘটেছে লেনোভোর টেক ওয়ার্ল্ড সম্মেলনে। বিখ্যাত ইউটিউবার মেগান ম্যাকার্থি কনফারেন্স চলাকালে এই জাদুকরি হ্যান্ডসেট নিয়ে হাজির হন। দারুণ স্টাইলিশ লুকের হ্যান্ডসেটটি সবার সামনে তিনি বাঁকা করে নিজের কব্জিতে ঘড়ির মতো করে বেঁধে ফেলেন। স্মার্টফোন হাতে কব্জিতে বেঁধেই তিনি অপর হাতে নেন একটি ট্যাবলেট, যেটি দেখতে আর দশটি ট্যাবের মতোই। কিন্তু হঠাৎ দেখা যায়, সেই ট্যাবলেটটিকে মাঝবরাবর বাঁকিয়ে তিনি একটি ফোনের আকারে নিয়ে আসেন এবং কানে ধরে একটি ফোনকলও রিসিভ করেন। প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবলের এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, লেনোভোর এই ব্যতিক্রমধর্মী বেন্ড টেকনোলজির বিষয়ে। লেনোভোর এসভিপি এবং সিটিও পিটার হর্টেন্সিয়াস দর্শকের উদ্দেশে বলেন, ‘অন্যান্য বাঁকানো স্ক্রিনের ডিভাইসের সঙ্গে লেনোভোর এই ডিভাইসগুলোর রয়েছে এক বিস্তর পার্থক্য। কারণ, লেনোভোর বেন্ড টেকনোলজিতে শুধু স্ক্রিন নয়, বাঁকানো হয় মাদারবোর্ড ও ব্যাটারিকেও।’ তবে নতুন ফ্লেক্সিবল ডিভাইসগুলো বাজারে কবে আসছে, এ বিষয়ে কিছু জানায়নি লেনোভো। তবে এর দাম যে আকাশচুম্বী হবে, এ বিষয়ে ধারণা পাওয়া গেছে সম্মেলন থেকেই। হর্টেন্সিয়াস ঠাট্টা করে ম্যাকার্থিকে বলেন, একটু সাবধানে মোবাইল আর ট্যাবগুলো ধরে রাখার জন্য, কারণ এই ডিভাইসগুলোর দাম বর্তমান বাজারের অন্যান্য স্মার্টফোন কিংবা ট্যাবের থেকে ‘খানিক’ বেশি। বেন্ড টেকনোলজির ব্যবহার আসলে কতটা প্রসার লাভ করবে, সে বিষয়ে এখনও কিছু বলা যাচ্ছে না। কারণ, দাম যদি অনেক বেশি হয়, তাহলে হয়ত শুধু বেন্ড টেকনোলজির কারণে সর্বসাধারণের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাওয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে ট্যাবলেটটি সে ক্ষেত্রে কিছুটা এগিয়ে থাকতে পারে। কারণ, ট্যাব দিয়ে কথা না বলতে পারার বিড়ম্বনাটা সবাই ভোগ করে থাকে। যদি সেটি ভাঁজ করে মোবাইল ফোনের আকারে নিয়ে আসা যায়, তাহলে এই ডিভাইসটির মাধ্যমে একই সঙ্গে ফোন ও ট্যাবের সুবিধা পাওয়া যাবে। সূত্র ॥ ম্যাশেবল