ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

জনসংখ্যা ও জনশক্তি;###;মোহাম্মদ অংকন

সমাজ ভাবনা ॥ বিষয় ॥ জনসংখ্যা সমস্যা

প্রকাশিত: ০৬:৩৫, ১৫ জুন ২০১৭

সমাজ ভাবনা ॥ বিষয় ॥ জনসংখ্যা সমস্যা

একটি ক্ষুদ্র দেশ হিসেবে বাংলাদেশে বর্ধিত জনসংখ্যা যেন বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে- এমনটা ভাবনা যুক্তিহীনের পর্যায়ে পড়ে। জেনে রাখা দরকার, একটি দেশের জনসংখ্যা কখনোই বোঝা হতে পারে না, বরং তা নিশ্চিত জনশক্তি, জনসম্পদ। দেশে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের জন্য বহুল জনসংখ্যাই একমাত্র প্রধান ও প্রথম উপাদান। ইতোমধ্যে বিশ্বের অনেক দেশ এ বিষয়টি উপলব্ধি করতে সক্ষম হয়েছে বলে তারা বর্ধিত জনসংখ্যা নিয়ে মোটেও চিন্তিত নয়। বরং তারা এখন জনসংখ্যা বৃদ্ধির উপর ব্যাপক জোর দিচ্ছে। জনগণকে উৎসাহ দিচ্ছে যাতে জনসংখ্যা নিম্নমুখী হয়ে না যায়। আসুন আমরা বৃহত্তর দেশ চীনের জনসংখ্যার কথা একটু ভাবি। নিঃসন্দেহে এটি বিশ্বের অন্যতম জনবহুল দেশ। চীনের এখন নিজস্ব পারমাণবিক বোমা আছে। তারা বর্ধিত জনসংখ্যাকে কাজে লাগিয়ে বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, শিল্প, শিক্ষাসহ সার্বিক খাতে উন্নয়ন ঘটিয়ে ক্রমেই বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে এগিয়ে যাচ্ছে। চীনের এই সার্বিক অগ্রগতি আমাদের এটা বুঝিয়ে দেয়- জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে তথা জনসম্পদে পরিণত করতে পারলেই উন্নতি। আমরা যদি বাংলাদেশের এই বিপুল জনসংখ্যাকে জনশক্তিকে রূপান্তর করতে পারি, তাহলে চীনের সঙ্গে আমাদের সাদৃশ্য গড়ে তোলা সম্ভব হবে। তবে তা করতে না পারলে ফলাফল উল্টো হবে তথা দেশে দরিদ্রতা লেগেই থাকবে, অনুন্নয়নের ছাপ কোন দিন মুছবে না, এটাই স্বাভাবিক ব্যাপার। বাংলাদেশের এই বৃহৎ জনগোষ্ঠীর জন্য শতভাগ সুশিক্ষা এবং সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা এখন অতি জরুরী বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। দেখুন, বর্তমান বিশ্বে সকল দেশই খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের জন্য ব্যাপকভাবে চেষ্টা-সাধনা করে যাচ্ছে। অথচ আমরা সে তুলনায় ঢের পিছিয়ে রয়েছি। আমাদের এভাবে পিছিয়ে থাকাটা মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়। আমাদের ব্যবহৃত কৃষিজ জমিগুলোর উর্বরতা ফিরিয়ে আনতে কার্যকরী ভূমিকা গ্রহণ করতে হবে। অকৃষিজ ও পতিত জমিগুলোকে কৃষির আওতায় আনতে হবে। কৃষিখাতে ভর্তুকি বাড়াতে হবে, যাতে কৃষকরা দৃর্যোগে বা কোন কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে কৃষিবিমুখ না হয়। মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের প্রশিক্ষণ দিতে হবে, যাতে তারা একই জমিতে কয়েকটি ফসল উৎপাদন করতে পারে। প্রয়োজনে কৃষকদের উৎসাহ ভাতা দিতে হবে। কৃষি প্রধান দেশে কৃষকের উন্নয়ন মানেই দেশের উন্নয়ন, এটা মাথায় রাখলে বর্ধিত জনসংখ্যা কোন ব্যাপারই নয়। সকলের মুখে অন্ন তুলে দিতে পারা মানেই জনসংখ্যা নিয়ে নিশ্চিত থাকা। এছাড়া শিক্ষিত জনগোষ্ঠীকে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বাড়াতে হবে। আমাদের দেশের জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে রূপান্তর করতে পারলে আর পিছিয়ে থাকতে হবে না, কারও করুণার পাত্র হতে হবে না। মেধাকে কাজে লাগাতে পারলেই জনসংখ্যা আর বোঝা হয়ে দাঁড়াবে না। সিংড়া, নাটোর থেকে
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২