ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

প্রাপ্ত ফলে এক নজরে কয়েক জেলার চেয়ারম্যান

প্রকাশিত: ০১:০৪, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৬

প্রাপ্ত ফলে এক নজরে কয়েক জেলার চেয়ারম্যান

জনকণ্ঠ রিপোর্ট ॥ দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হওয়া জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। বিকেলের দিকেই অনেক জেলায় বেসরকারীভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ৬১টি জেলায় এক যোগে এই নির্বাচন আয়োজন করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বুধবার সকাল ৯টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত চলে ভোট উৎসব। শান্তিপূর্ণভাবে অধিকার প্রয়োগ করেন স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা। ইতোমধ্যে বিনা-প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ২২ জন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচত হয়েছেন। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাওয়ার নিন্মে কিছু জেলার ফলাফল জনকণ্ঠের পাঠকদের জন্য দেওয়া হলো পাবনা আওয়ামীলৗগ প্রার্থী জয়ী নিজস্ব সংবাদদাতা, পাবনা ॥ জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত চেয়ারম্যানপ্রার্থী রেজাউল রহিম লাল ৬৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ কামিল হোসেন পেয়েছেন ৩০৮ ভোট। অপর প্রার্থী ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর কন্যা মেহেজাবীন শিরিন পিয়া পেয়েছেন ১২৭ ভোট। রংপুরে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জয়ী নিজস্ব সংবাদদাতা,রংপুর ॥ জেলা পরিষদ নির্বাচনে রংপুরে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী অ্যাড. সাফিয়া খানম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। বুধবার সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোটগ্রহন শেষে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ১৫টি ভোট কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এতে আনারস প্রতীক নিয়ে জেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী সাফিয়া খানম পেয়েছেন ৭৫২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির (আম্বিয়া-বাদল) সদস্য আব্দুস সাত্তার (চশমা) পেয়েছেন ৩১৯ ভোট। এবারে রংপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ সাধারণ সদস্য ৩৫ জন ও সংরক্ষিত আসনে ৯ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। বরিশালে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থির বিজয় স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ জেলা পরিষদ নির্বাচনে বরিশালে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মইদুল ইসলাম বিজয়ী হয়েছেন। তিনি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী খান আলতাফ হোসেন ভুলুর চেয়ে ৭১৩ ভোট বেশী পেয়েছেন। জেলা রির্টানিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক গাজী মোঃ সাইফুজ্জামান বুধবার দুপুর সাড়ে তিনটায় ফলাফল ঘোষণা করেন। জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫টি কেন্দ্রে ১ হাজার ২৪১ জন ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ২২৩ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। প্রদত্ত ভোটের মধ্যে আনারস প্রতীক পেয়ে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মইদুল ইসলাম পেয়েছেন ৯৬৮ ভোট। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্ধী আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী খান আলতাফ হোসেন ভুলু ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ২৫৫ ভোট। সব কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা এবং নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিত জোরদার থাকায় কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠু ভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন রির্টানিং অফিসার। চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে ওচমান গনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত নিজস্ব সংবাদদাতা,কচুয়া,চাঁদপুর ॥ চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে চাঁদপুর জেলার ১৫টি ওয়ার্ডের সদস্যদের প্রত্যক্ষ ভোটে চাঁদপুর জেলা আওয়মী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী মোবাইল প্রতীক নিয়ে ৭শত ৬৭ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুল আমিন রুহুল ৪১৪ ভোট পায়। ১৪নং ওয়ার্ডে জোবায়ের হোসেন ৫৮ ভোট ও ১৫নং ওয়ার্ডে সালাউদ্দিন ভূঁইয়া ৫২ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হন। সংরক্ষিত ৫নং ওয়ার্ডে রওনক আরা রতœা বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। মাগুরায় চেয়ারম্যান পংকজ কুমার কুন্ডু নির্বাচিত নিজস্ব সংবাদদাতা, মাগুরা ॥ আজ বুধবার ২৮ ডিসেম্বর মাগুরা জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহন শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ও জেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক পংকজ কুমার কুন্ডু বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ২৭০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিদ্রোহী প্রার্থী ও জেলা আওয়ামীলীগের ত্রান ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক রানা আমীর ওসমান রানা পেয়েছেন ১৭৯ ভোট পেয়েছেন। অপর প্রার্থী শ্রীকোল ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান কুতুব উল্লাহ মিয়া কুটি পেয়েছেন ৫ ভোট। গোপালগঞ্জে জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি চেয়ারম্যান নির্বাচিত নিজস্ব সংবাদদাতা, গোপালগঞ্জ॥ গোপালগঞ্জে জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক। তিনি আনারস মার্কা নিয়ে পেয়েছেন ৯’শ ২৩ ভোট। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডাঃ মোল্লা ওবায়েদুল্লাহ বাকী কাপ-পিরিচ মার্কা নিয়ে পেয়েছেন মাত্র ১৫ ভোট। সাধারণ সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে সালাহউদ্দিন মিয়া, ২নং ওয়ার্ডে অশোক কুমার বিশ্বাস, ৩নং ওয়ার্ডে মহিউদ্দিন আহম্মেদ মিঠু শরীফ, ৪নং শাহ্্রিয়ার বিপ্লব এবং ১৩নং মাজহারুল ইসলাম পান্না বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ৫নং ওয়ার্ডে লুৎফর রহমান লুথু, ৬নং ওয়ার্ডে শরীফ সোহরাফ হোসেন, ৭নং ওয়ার্ডে শেখ আবিদ আলী, ৮নং ওয়ার্ডে শেখ আল-হেলাল, ৯নং ওয়ার্ডে রিয়াজ রহমান, ১০নং ওয়ার্ডে শেখ সাহাবুদ্দিন হিটু, ১১নং ওয়ার্ডে সন্তোষ বিশ্বাস, ১২নং ওয়ার্ডে বি.এম. এমদাদুল হক, ১৪নং ওয়ার্ডে নজরুল ইসলাম হাজরা (মুন্নু) ও ১৫নং ওয়ার্ডে দেব দুলাল বসু পল্টু সাধারণ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে তানিয়া হক, ২নং ওয়ার্ডে বিউটি বেগম, ৩নং ওয়ার্ডে শাহনাজ নাজনীন বাবলী, ৪নং ওয়ার্ডে রীনা বাড়ৈ ও ৫নং ওয়ার্ডে হাসিয়ারা বেগম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। জেলার ৫টি উপজেলার ১৫টি ভোটকেন্দ্রে সকাল ৯টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচণে মোট ভোটার ছিলেন ৯৫০ জন। নির্বাচণ চলাকালে পুলিশ, র্যা ব, বিজিপি, স্টাইকিং ফোর্স ও মোবাইল-কোর্টসহ ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ছিল। কক্সবাজারে মোস্তাক আহমদ চৌধুরী নির্বাচিত স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫টি ভোট কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন মাহমুদকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মোস্তাক আহামদ চৌধুরী। তিনি ৭৬৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী সালাহ উদ্দিন মাহমুদ পেয়েছেন ২১৯ ভোট। গাইবান্ধায় চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধা জেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আতাউর রহমান ১৮ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সংগঠনের জেলা সভাপতি এবং জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক অ্যাডভোকেট সৈয়দ-শামস-উল আলম হিরুকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। আতাউর রহমান (ঘোড়া) ভোট পেয়েছেন ৩৮৮। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি অ্যাডভোকেট সৈয়দ-শামস-উল আলম হিরু (তালগাছ) ভোট পেয়েছেন ৩৭০। এ নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ১ হাজার ১শ’ ১৭। তারমধ্যে ভোট কাস্ট হয়েছে ১ হাজার ৩০। শেরপুরে বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ী নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর ॥ শেরপুরে জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী, দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক মেয়র হুমায়ুন কবীর রুমান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। বুধবার বিকেলে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক ডাঃ এ এম পারভেজ রহিম বেসরকারীভাবে ওই ফলাফল ঘোষণা করেন। ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, জেলায় ৭৪২ ভোটের মধ্যে বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবীর রুমান পেয়েছেন ৫৬৩ ভোট এবং আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট চন্দন কুমার পাল পেয়েছেন ১৭৬ ভোট। জামালপুরে বিদ্রোহ প্রার্থি নির্বাচিত নিজস্ব সংবাদদাতা জামালপুর ॥ জামালপুর জেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বুধবার সম্পন্ন হয়েছে। এতে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ফারুখ আহম্মেদ চৌধুরী (আনারস প্রতীক) বেসরকারীভাবে জয় লাভ করেছেন। তিনি মোট ৯৮৫টি ভোটের মধ্যে ৬’শ ২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আওয়ামী লীগ সমর্থিত অ্যাডভোকেট এইচ আর জাহিদ আনোয়ার (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ৩’শ ৭৬ ভোট। সকাল ৯টা হতে দুপুর ২টা পর্যন্ত অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ১৫টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন সম্পন্ন হয়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর অবস্থান থাকায় জেলার কোথাও কোন বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া যায়নি।
monarchmart
monarchmart