রবিবার ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ০৫ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কক্সবাজারে মৌমাছির চাক নিয়ে প্রতারণা

এইচএম এরশাদ, কক্সবাজার ॥ ‘মধুর হাজারো গুণ’ এই প্রকৃতি থেকে পাওয়া মধু আজ প্রায় বিলীনের পথে। এক সময় কক্সবাজার জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের মেঠো পথের আশপাশে ঝোপ-বাগান ও বাড়ির আঙ্গিনার গাছের ডালে ডালে এক সময় দেখা যেত মৌমাছির চাক। বিভিন্ন কলাকৌশলের মাধ্যমে মৌমাছির চাক থেকে মধু সংগ্রহ করে মধু ব্যবসায়ীরা তাদের সংসার চালাতেন। বর্তমানে সেই মৌচাক আর দেখা যায় না। আধুনিক পদ্ধতির মাধ্যমে মৌমাছির চাষ করে মধু সংগ্রহ করা হচ্ছে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন স্থানে। গ্রামগঞ্জ থেকে দিন দিন মৌচাক বিলীন হয়ে যাচ্ছে। মৌমাছির চাক পড়তে এখন আর দেখা যায় না সেখানে। এ ভাবে জেলার সব জায়গায় আগের মতো আর মৌমাছি আসছে না গাছে গাছে চাক পড়ার জন্য।

কিন্ত সাম্প্রতিক সময় কিছু প্রতারক চক্র মৌমাছির চাক সংগ্রহ করে অভিনব কায়দায় পাতিল ভরে নকল মধু দেদারছে বিক্রি করে সরল মানুষের সঙ্গে চরমভাবে প্রতারণা করে আসছে। এদৃশ্য জেলার গ্রামাঞ্চলের চেয়ে কক্সবাজার শহরেই বেশি চোখে পড়ছে।

প্রতারক চক্র একটি বা দুটি মৌমাছির চাক সংগ্রহ করে লোভনীয় কায়দার সারাবছরই খাঁটি মধুর তকমা লাগিয়ে নকল মধু বিক্রি করছে। কক্সবাজার শহরের আদালতপাড়ায় মৌচাকসহ মধু বিক্রি করার সময় বিক্রেতা জয়নাল জানান, তিনিসহ আরও ৪ জন কক্সবাজারের পার্শ্ববর্তী নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার পাহাড়ী এলাকা থেকে মৌচাক সংগ্রহ করে তারা ওসব মধু বিক্রি করে চলছেন। তিনি দাবি করেন, মৌমাছির চাক সংগ্রহ করা তাদের কাজ। মধু বিক্রি করেই সংসার চালান। এক প্রশ্নে জবাবে তিনি দাবি করেন, সংগৃহিত মৌমাছির চাকেও বংশবিস্তার করে। এভাবে মধুর পরিমাণও বাড়তে থাকে।

রামু ঈদগড় পাহাড়ী এলাকার ৯৩ বছরের বৃদ্ধ ফসি আলম জানান, আমরা যখন ছোট ছিলাম, তখন বাঁশ-বাগানে, আমগাছে, গাবগাছে, তেঁতুলগাছে ও পিচফল গাছ থেকে মৌমাছির চাক কেটে, মধু এনে বাড়ির সবাই মিলে দৈনিক সকালে রুটি দিয়ে খেতাম। মধু খাওয়ার জন্য সহজে আমাদের কোন রোগ ব্যাধি হতো না। যদি কেউ মৌচাক কাটতে বাধা দিত তাতেও আমরা থামতাম না। তিনি বলেন, এক সময় চুরি করে মৌচাকের ভেতরে পাটকাঠির একটি মাথা দিয়ে অন্য পাশে মুখ নিয়ে মধু খেতাম। এখন মধু পাই না, তাই খাওয়া হয়ে উঠে না আগের মতো। এখন এসব কথা অতীত।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
১১৩৯৫৪৩১
আক্রান্ত
১৬২৪১৭
সুস্থ
৬৪৪৯৯৪৩
সুস্থ
৭২৬২৫
শীর্ষ সংবাদ:
অসম-মেঘালয়ে ভারি বৃষ্টি ও ঢলের তীব্রতা বৃদ্ধি, বন্যার অবনতি হতে পারে         লকডাউনে সাড়া নেই ওয়ারীবাসীর         চ্যালেঞ্জে কর্মসংস্থান ॥ করোনায় ব্যবসা বাণিজ্য স্থবির         খাদ্যের মাধ্যমে করোনা ছড়ায় না         মিটার না দেখে আর বিল করবে না বিদ্যুত বিতরণ কোম্পানি         বিশ্বে পর পর দু’দিন দুই লাখ করে করোনা রোগী শনাক্ত         বিদেশী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম করের আওতায় আনা হবে         জঙ্গী নির্মূলে বিশ্বে রোল মডেল বাংলাদেশ         ফের আলোচনায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট         বেনাপোল-পেট্রাপোল সচল ॥ অবশেষে ভারতে পণ্য রফতানি শুরু         কম শিল্পী, স্পর্শহীন অভিনয়- তবুও চ্যালেঞ্জ গ্রহণ         ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনায় প্রশিক্ষণ দেয়া হবে ॥ আইনমন্ত্রী         করোনা আতঙ্কে রামেক হাসপাতালে দুই লাশ ফেলে লাপাত্তা স্বজনেরা         এন্ড্র্রু কিশোর ফের গুরুতর অসুস্থ         করোনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালকের মৃত্যু         পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধে ৫৮ কোটি টাকা বরাদ্দ         বয়স্ক, শিশু এবং অসুস্থ মানুষদের পশুর হাটে না যাওয়ার আহ্বান ডিএনসিসি মেয়রের         দুদকের মামলায় আত্মসমর্পণের সুযোগ তৈরি হয়নি : প্রধান বিচারপতি         করোনায় অবরুদ্ধ হলো ওয়ারীর 'রেড জোন'         শুধু বিশেষ পরিস্থিতিতে ভার্চুয়াল আদালত প্রথা অবলম্বন করা হবে : আইনমন্ত্রী        
//--BID Records