ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ঘর সাজাতে প্লাস্টিকের ফুল

প্রকাশিত: ০৬:১৮, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

ঘর সাজাতে প্লাস্টিকের ফুল

ঘর সাজাতে প্লাস্টিক ফুলের বিকল্প নেই। তাজা ফুল অত্যন্ত সুন্দর, কিন্তু সৌন্দর্য বেশিদিন ধরে রাখতে পারবেন না। খুব দ্রুত শুকিয়ে যাবে। আর প্লাস্টিকের ফুলের সৌন্দর্য কাঁচা ফুলের চেয়েই বা কম কিসে? ড্রয়িং রুম বাড়ির ড্রয়িং রুমকে বলা হয় ফরমাল রুম। আর বাড়ির ড্রয়িং রুমের সাজসজ্জার মধ্য দিয়েই ফুটে ওঠে বাড়ির মালিকের ব্যক্তিত্ব ও রুচিবোধ। তাই রুমটি সাজাতে হবে মনের মাধুরী মিশিয়ে। ছোট ছোট টবে রঙিন ফুল দিয়ে দেয়াল সাজাতে পারেন। এছাড়া ফুলদানিতে করে ঘরের পজিশন মতো স্থানে সাজিয়ে রাখতে পারেন প্লাস্টিকের ফুল। সেন্টার টেবিলের মাঝে কিংবা সাইড টেবিলের ওপরও রাখতে পারেন বাহারি ডিজাইনের ফুলদানিতে প্লাস্টিকের ফুল। দেখবেন আপনার ঘরে একটা আভিজাত্যের ছোঁয়া চলে আসবে। ডাইনিং রুম খাবার ঘরে খাওয়ার পরিবেশ বজায় রাখাটাই ভালো। এই ঘরের দেয়ালে খাবারের ছবির পাশাপাশি ঝুলন্ত টবে দিতে পারেন কিছু ফুল। এছাড়া এই ঘরে যদি এ্যাকুয়ারিয়াম কিংবা শোকেস থাকে তাহলে তার ওপর বাহারি ডিজাইনের ক্রিস্টাল, কাঠ, মাটি কিংবা বাঁশের ফুলদানিতে রাখতে পারেন ফুল। ঘরে চলে আসবে মনোরম পরিবেশ। বেডরুম আপনার বেডরুমটা যেন ঘুমবান্ধব হয়। কারণ সারাদিনের কর্মব্যস্ততা শেষে এই রুমেই মানুষ বিশ্রাম নিতে চায়। বেডরুমের ক্ষেত্রে আপনি কয়েকভাবে প্লাস্টিকের ফুল দিয়ে সাজাতে পারেন। এ ক্ষেত্রে ঘরের দেয়াল রঙিন হলে রঙের সঙ্গে মিলিয়ে দেয়ালে লাগানো প্লাস্টিকের ফুল কিনতে পারেন। এছাড়া খাটের সাইড টেবিলে কিংবা খাটের সঙ্গেও ব্যবহার করতে পারেন মানানসই প্লাস্টিকের ফুল। রিডিং রুম পড়ার ঘর বইপুস্তকেই সাজানো থাকে। এর পরও এই ঘরে ফুলের ব্যবহারে কোন মানা নেই। পড়ার টেবিলের ওপর কিংবা বুকসেলফের ওপর ফুলদানিতে সাজিয়ে রাখতে পারেন প্লাস্টিকের ফুল। তাহলে পড়ার ঘরে একঘেয়েমি ভাব দূর হয়ে বৈচিত্র্য আসবে। শুধু ঘর সাজাতেই নয়, প্লাস্টিকের ফুল আপনি অফিস রুম সাজাতেও ব্যবহার করতে পারেন। আপনার রুমটা যদি সাজানো-গোছানো হয় তাহলে কাজেও দেখবেন স্বাচ্ছন্দ্য আসবে। কোথায় পাবেন আপনার মনের মতো প্লাস্টিকের ফুল কিনতে চলে আসতে পারেন নিউমার্কেট, চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট, বসুন্ধরা সিটি এবং ফ্যাশন হাউস আড়ংসহ রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেটে। কেমন ফুলের কেমন দাম বাজারে কৃত্রিম স্টিক ফুলের মধ্যে রয়েছে- জারবেরা, রজনীগন্ধা, ডালিয়া, পোলাপ, টিউলিপসহ নানারকম দেশী-বিদেশী ফুল। এসব ফুল পাওয়া যাবে হালকা এবং গাঢ় রঙে। এখন শুধু কাপড়ে নয়, এসব ফুল তৈরি হয় প্লাস্টিক, আর ফোম দিয়েও। এসব ফুলে ব্যবহার করা হচ্ছে নানা রকম মেটাল, প্লাস্টিকের ফুল, পুতি। যা দেখতে দৃষ্টিনন্দন এবং চাকচিক্যময়। স্টিক ফুলগুলো পাবেন প্রতি পিস ২০ থেকে ২০০ টাকার মধ্যে। স্টিকের দাম নির্ভর করে কোন ম্যাটেরিয়ালের তৈরি ফুল। এসব স্টিক ফুল বেশিরভাগ চায়নার তৈরি। বাজারে যেসব ড্রাই ফ্লাওয়ার পাওয়া যায় তার বেশিরভাগই চায়না থেকে আমদানি করা। কিছু পাওয়া যাবে দেশীয় তৈরি ও বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা। ঝোলানো ফুল পাওয়া টবসহ পাওয়া যাবে ১২০ থেকে ৬০০ টাকার মধ্যে। টবসহ ফুলের ঝাড় পাওয়া যাবে ১৫০ থেকে ৮০০ টাকার মধ্যে। হংকংয়ের বাহারি অর্কিড ফুলের ঝাড় মিলবে ২৫০ থেকে ১ হাজার টাকার মধ্যে। হ্যাঙ্গিং ফুল পাওয়া যাবে ১০০ থেকে ৫০০ টাকায়। এক স্টিকে ছোট ছোট ফুলের ঝাড় মিলবে ৮০ থেকে ৩৫০ টাকায়। অটবির বিভিন্ন রকম ফুল পাবেন ৪০ থেকে ৮০ টাকা প্রতি স্টিক। ফুলের সঙ্গে সাজাতে বিভিন্ন পাতা, পাটকাঠি পাবেন ২০ থেকে ১০০ টাকায়। ফুলদানি হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন বাসায় ফেলেরাখা প্লাট্টিকের বোতলকে। কিভাবে ব্যবহার করবেন * বোতলটি কেটে নিন মাঝ বরাবর। এক্ষেত্রে কাঁচি বেশ ভালো কাজে আসবে। সমান করে কাটুন। দু’পাশে রসি ঝোলানোর জন্য দুটি ফুটো করতে পারেন। * এরপর একটি ব্রাশ দিয়ে বোতলের গায়ে ভালো করে আঠা মাখান। * এবার কাগজ বা কাপড়টি সাইজ মতো কেটে খুব সাবধানে বোতলের গায়ে জড়িয়ে নিন। নিচের অংশগুলো ভালমতো মুড়ে দিন। * ওপরের দিয়ে সুন্দর দেখাতে কোণাটা ভিন্ন রঙের কাগজ বা ফিতা দিয়ে মুড়ে দিন। পুঁতি, পাথর, রঙিন কাগজ দিয়ে নানান রকম নকশাও করে দিতে পারেন। * ব্যাস, তৈরি আপনার ফ্লাওয়ার পট। এতে আবার সাজাতে পারেন প্লাস্টিক ফুল, মাটি ভরে ভেতরে লাগাতে পারেন ছোট্ট গাছ। * আর যদি পটটি ঝুলিয়ে দিতে চান, তাহলে দু’পাশে ফুটো করে রশি বা ফিতা লাগিয়ে নিন। এরপর সুন্দর করে ঝিলিয়ে রাখুন ব্যালকনিতে।
monarchmart
monarchmart