ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

মেঘনায় গোসল করতে নেমে অটোরিকশা চালক নিখোঁজ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চাঁদপুর

প্রকাশিত: ১২:৫২, ২০ জুন ২০২৪; আপডেট: ১৩:৪১, ২০ জুন ২০২৪

মেঘনায় গোসল করতে নেমে অটোরিকশা চালক নিখোঁজ

ঘটনাস্থলে নারী পুরুষ শিশুদের ভিড়। ছবি: জনকণ্ঠ

চাঁদপুরে মেঘনা নদীতে স্বামী-স্ত্রী এক সঙ্গে গোসলে নেমে চোখের সামনে তীব্র স্রোতের মধ্যে পানিতে ডুবে গেলেন স্বামী অটোরিকশা চালক জহিরুল ইসলাম (৩৫)। বর্তমানে তিনি নিখোঁজ রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল আনুমানিক ৭টার দিকে চাঁদপুর শহরের মাদ্রাসা রোড লঞ্চঘাট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনার কিছুক্ষণ পরই বিআইডাব্লিউটিএর লোকজন ও নৌ ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ডুবুরি দল নিখোঁজ জহিরুলের সন্ধানে অভিযান শুরু করে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, নিখোঁজ জহিরের বাড়ি বরিশাল জেলায়। তার পিতার নাম মৃত মনসুর বেপারী। তিনি স্ত্রী ও দু সন্তান নিয়ে লঞ্চঘাটের পাশে টিলাবাড়ী মেঘনাপাড়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন। তিনি কখনো ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালাতেন আবার কখনো লঞ্চঘাটে হকারি করতেন।

নিখোঁজ জহিরের ভাই নজরুল ইসলাম জানান, আমার ভাই সাঁতার জানতেন। এজন্য প্রতিদিন এখানেই গোসল করেন। আজ তার স্ত্রী মনিরা বেগমসহ গোসল করতে নেমে আর উঠেনি। আমরা ধারণা করছি, নদীর তীব্র স্রোতে সে ডুবে গেছে।

চাঁদপুর নৌ ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের ইনচার্জ মোসলেম মিয়জী বলেন, আমরা সকাল সাড়ে ৭টায় খবর পেয়ে ডুবুরি দল নিয়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। কিন্তু নদীর তীব্র স্রোতে তার সন্ধান করা কষ্ট হচ্ছে। দুপুর ১২টা পর্যন্ত জহিরের সন্ধান করেও পাওয়া যায়নি।

চাঁদপুর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনা জানতে পেরে নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধানে নৌ পুলিশও কাজ করছে। নিখোঁজ জহির লঞ্চঘাটের পশ্চিম পাশেই টিলাবাড়ী এলাকায় বসবাস করতেন।

এ ঘটনার পর সেখানে বসবাসরত শতশত নারী পুরুষ শিশু ভিড় করে। নদী পাড়ে মা ভাই স্ত্রী সন্তানরা জহিরকে হারিয়ে আহাজারি শুরু করে। 

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, মেঘনার এই তীব্র স্রোতের মধ্যে গোসলে নামাই ঠিক হয়নি।

 এসআর

×