ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৯ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

চোর চক্রের দুই নারী গ্রেপ্তার, কঙ্কাল উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার, পঞ্চগড়

প্রকাশিত: ০০:৫৩, ২১ অক্টোবর ২০২২

চোর চক্রের দুই নারী গ্রেপ্তার, কঙ্কাল উদ্ধার

দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের লক্ষ্মীরহাট এলাকায় কঙ্কালসহ আটক দুই

বোদা ও আটোয়ারী উপজেলায় গত চার মাসের ব্যবধানে কবরস্থান থেকে ২২টি কঙ্কাল চুরির ঘটনা ঘটে। এর পরই পুলিশ তৎপর হয় এই চক্রটিকে ধরতে। বুধবার রাতে গোপন সংবাদে দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের লক্ষ্মীরহাট এলাকায় কমলা বানু ও নাসিমা বানুর বাড়ি থেকে কঙ্কালসহ আটক করেন ডিবি পুলিশ।

এ সময় কঙ্কাল চুরির ঘটনার হোতা দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের লক্ষ্মীরহাট ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত আকিজ উদ্দিনের ছেলে রিয়াজুল ইসলাম (৫০) ও একই এলাকার নবাব আলীর ছেলে রাজু ওরফে মেজাক (৪০) পালিয়ে যায়। তবে রিয়াজুল ইসলামের স্ত্রী কমলা বানু পুতুলকে (৩৮) ও রাজুর স্ত্রী নাসিমাকে (২৫) গ্রেফতার করে ডিবি।
অভিযানে ১টি ব্যাগের ভেতরে পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় ৪টি মাথার খুলি, ৪টি দাঁতের পাটি, ১৪টি শরীরের অংশের হাড়, ৪২টি হাত ও পায়ের হাড়, ৭৯টি বুক ও পাঁজরের হাড়, ৯০টি মেরুদ-ের ভাঙ্গা হাড়, ৬০টি আঙ্গুলসহ দেহের বিভিন্ন অংশের হাড়সহ মোট ২৯৩টি হাড় উদ্ধার করা হয়।

এই কঙ্কাল চুরির ঘটনা এবং উদ্ধার নিয়ে পুলিশ সুপার এসএম সিরাজুল হুদা তার কার্যালয়ের সামনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম শফিকুল ইসলাম, ডিবি পুলিশের ওসি মোজাফফর হোসেনসহ ডিবি পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিল। বৃহস্পতিবার দুপুরে আসামিদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

দেবীগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জামাল হোসেন বলেন, কঙ্কাল উদ্ধারসহ দুই নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ডিবি পুলিশ মামলা দায়ের করেছে। অন্য আসামিদেরও গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।
পুলিশ সুপার জানান, মানবদেহের চারটি মাথার খুলিসহ কঙ্কালের বিভিন্ন অংশের হাড়গোড় উদ্ধার করা হয়েছে। ডিবি পুলিশ দেবীগঞ্জ উপজেলার পামুলী ইউনিয়নের লক্ষ্মীরহাট ভূল্লিপাড়া এলাকা থেকে এসব উদ্ধার করে। এই কঙ্কালগুলো বিভিন্ন মেডিক্যালে  গবেষণার কাজে ব্যবহৃত হয়। বিভিন্ন সময়ে চক্রটি কালোবাজারে এই কঙ্কালগুলো বিক্রি করে থাকেন। আকারভেদের মূল্য প্রায় ১৬ থেকে বিশ হাজার ডলার।

×