৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

রংপুরে বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরালে অর্পণ করা পুস্পমাল্য তছনছ ও পদদলন, আটক ১

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:৩৮ পি. এম.
রংপুরে বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরালে অর্পণ করা পুস্পমাল্য তছনছ ও পদদলন, আটক ১

নিজস্ব সংবাদদাতা, রংপুর ॥ রংপুর মহানগরীর বঙ্গবন্ধু চত্বরে (ডিসির মোড়ে) অবস্থিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে অর্পণ করা পুস্পমাল্য কে বা কারা সোমবার রাতের যে কোন সময় তছনছ ও পদদলন করেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকাল থেকে সড়ক অবরোধ করে জড়িতদের বিএনপি জামায়াত দায়ী করে তাদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ। এদিকে পুষ্পমাল্যে ব্যবহৃত একাধিক বাঁশের ফালসহ ছকিনা নামের এক বৃদ্ধাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মেট্রো পুলিশ। একটি ফুলের দোকান থেকে কয়েকটি ককশিটও উদ্ধার করেছে পুলিশ। এদিকে দায়ীদের গ্রেফতারের দাবিতে বেলা সাড়ে ১২ টা নগরীর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে আওয়ামীলীগের কর্মীরা। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর শ্বশুর বাড়ী এলাকা রংপুরের পীরগঞ্জে ও জেলার আট উপজেলাসহ বিভিন্ন স্থানে দোষীদের গ্রেফতারের দাবীতে সড়ক অবরোধ করেছে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা।

পুলিশ ও আওয়ামীলীগের দলীয় সূত্র জানায়, রংপুর মহানগরীর বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে বিজয় দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও পেশাজীবী সংগঠনসহ সাধারণ মানুষ পুষ্পমাল্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। বিজয় দিবসের শ্রদ্ধার ফুলে ভরে যায় পুরো ম্যুরাল। সোমবার গভীর রাতে কে বা কারা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে অর্পণ করা এসব পুষ্পমাল্যসহ ফুল ছিঁড়ে নীচে ফেলে দিয়ে তছনছ করে। ককসিট, বাঁশের ফালটি ফেলে দিয়ে পদদলিত করে। মঙ্গলবার সকালে ঘটনা জানাজানি হলে ম্যুরাল এলাকা পরিদর্শন করেন সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুল আলীম মাহমুদ, ডিসি আসিব আহসান, আরপিএমপির উপ পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহীদুল্লাহ কায়সার, কোতয়ালী থানার ওসি আব্দুর রশিদসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তারা। এর আগে সেখানে অবস্থান নেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা।

তারা ম্যুরালের সামনের সড়কে অবস্থান নিয়ে অবরোধ গড়ে তোলে। সেখানে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, মহানগর সভাপতি সাফিউর রহমান সাফি, জেলা সেক্রেটারি এ্যডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, মহানগর সেক্রেটারি তুষার কান্তি মন্ডল প্রমুখ। এসময় তারা এ ঘটনার সাথে বিএনপি জামায়াতের লোকজন জড়িত দাবি করে তাদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতারের দাবি জানান।

পরে ঘটনাস্থল কর্ডন করে রাখে পিবিআই ও সিআইডি। এ বিষয়ে অভিযান চালিয়ে মুন্সিপাড়া থেকে ছকিনা নামের এক বৃদ্ধাকে ১২/১২টি পুষ্পমাল্যে ব্যবহৃত বাঁশের ফালটিসহ আটক করে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

সূত্র জানায়, পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে ওই বৃদ্ধা ছকিনা জানিয়েছে, ভোরে ডিসির মোড়ে ঝাড়– দিতে গিয়ে ম্যুরোলে এলোমেলো অবস্থায় ফুলমালাগুলোতে ওই বাঁশের ফালটিগুলো দেখতে পায়। সেখান থেকে রান্নার জ্বালানীর জন্য কয়েকটি ফালটি তিনি নিয়ে যান। অন্যদিকে ইঞ্জিনিয়ার পাড়ার বাদশা ফুল বিতান থেকে দুপুরে পুস্পমাল্যে ব্যবহৃত ৮ টি ককশিট উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থলের দুই পাশে দুটি সিসি ক্যামেরা আছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে দুর্বৃত্তদের সনাক্তে জোড়তাল প্রচেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাঃ আব্দুল আলীম মাহমুদ বিপিএম জানান, এ ঘটনায় দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি পুরো ঘটনাটি নিবিড়ভাবে তদন্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক না কেন তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

এদিকে সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেছেন, ঘটনায় নিন্দা জানানোর ভাষা নেই। জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে তাদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দিতে হবে।

জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাজু জানান. জড়িতদের গ্রেফতার না করা পর্যন্ত রংপুর জেলার প্রতিটি উপজেলায় বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ চলবে। আমরা দ্রুত দায়ীদের গ্রেফতার চাই।

এ ঘটনার প্রতিবাদে পাগলাপীরে জেলা যুবলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববির নেতৃত্বে মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ এবং পীরগঞ্জে সড়ক অবরোধ করে দোষীদের গ্রেফতারের দাবি জানায় আওয়ামীলীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:৩৮ পি. এম.

১৭/১২/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: