২৭ জানুয়ারী ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 

ক্রীড়াঙ্গনে অস্থিরতা দুঃশাসনের ফল : ফখরুল

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:৪৩ পি. এম.
ক্রীড়াঙ্গনে অস্থিরতা দুঃশাসনের ফল : ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের ক্রীড়াঙ্গনে অস্থিরতা দুঃশাসনের ফল বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি আরও বলেন, সুশাসনের অভাবে এমন অস্থিরতা চলছে। আর সাকিব আল হাসান দেশের একজন প্রতিভাবান ক্রিকেট খেলোয়ার। তাঁকে যে শাস্তি দেয়া হয়েছে তা খুবই দুঃখজনক। বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের যৌথসভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ফখরুল বলেন, ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যের যে ভারসাম্য সেটা রক্ষা করা হচ্ছে না। এক কথায় আমরা পুরোপুরিভাবে নতজানু হয়ে গেছি এবং পরনির্ভরশীল হয়ে গেছি। মিয়ানমার থেকে ১০ লাখ রোহিঙ্গা এসেছে, তাদের ফেরত পাঠানোর জন্য কিছুই করা হচ্ছে না। বিশেষ করে ভারতে আমাদের দেশের যেসব মানুষ বসবাস করছেন তাদেরকে বিভিন্ন ধরণের হুমকি দেয়া হচ্ছে। বর্তমান সরকার এসব সমস্যা সমাধান করার জন্য যেসব কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করা দরকার সেটা করছে না।

ফখরুল বলেন, আমরা নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা পাচ্ছি না। বর্তমান সরকার ক্রীড়নকে পরিণত হয়েছে। অর্থনীতি ধ্বংস করে দিচ্ছে। কৃষক ধানের দামসহ উৎপাদিত পণ্যের মূল্য পাচ্ছে না। দেশে গণতন্ত্র না থাকায় এসব হচ্ছে।

ফখরুল বলেন, যিনি দেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই-সংগ্রাম করেছেন, সেই ‘গণতন্ত্রের মা’ খালেদা জিয়াকে ২০ মাস ধরে কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে। তাঁকে জামিনও দেয়া হচ্ছে না। আমরা ৭ নভেম্বর সামনে রেখে মাসব্যাপী কর্মসূচির মাধ্যমে জনগণের কাছে যেতে চাই। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও মানুষের বাকস্বাধীনতা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে চাই। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা গুরুতর অসুস্থ জানিয়ে তার জন্য সবার কাছে দোয়া চান মির্জা ফখরুল ।

৭ নবেম্বর ‘বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উপলক্ষে বিএনপি মাসব্যাপী কর্মসূচি পালন করবে জানিয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ৭ নভেম্বর জাতীয় জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা। সে সময় দেশকে একদলীয় শাসনের হাত থেকে রক্ষা করতে সিপাহি-জনতার সমন্বয়ে বিপ্লব সংঘটিত হয়েছিল। আজো দেশে সে রকম পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

সংবাদ সম্মেলনে ৭ নবেম্বর ‘বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উপলক্ষে বিএনপির কর্মসূচি ঘোষণা করেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে - ৭ নভেম্বর সকাল ৬টায় ঢাকাসহ সারা দেশে দলীয় কার্যালয়ে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন। সকাল ১০টায় শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত: রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন। কেন্দ্রীয়ভাবে একটি আলোচনা সভা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এটি আগামি ৬ অথবা ৮ নভেম্বর করা হবে। এ ছাড়া বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনগুলো মাসব্যাপী পৃথক কর্মসূচি পালন করবে। পাশাপাশি জনসভা করার প্রস্তাবও যৌথসভায় এসেছে। সবার সঙ্গে আলোচনা করে এ ব্যাপারে পরে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

ফখরুল বলেন, সাকিবের ঘটনাটি আসলেই কষ্টদায়ক। আশা করি, এমন ঘটনা দেশের ক্রিকেটে আর ঘটবে না। তবে দেশের সামগ্রিক ক্রীড়াঙ্গনে যে অস্থিরতা চলছে সেটা দেশের সামগ্রিক অবস্থার প্রতিফলন। সরকার যেভাবে দেশ চালাচ্ছে এতে করে কাউকে তো কোন জবাবদিহিতা করতে হচ্ছে না। আজ দেশের প্রত্যেকটা ফেডারেশনই মানি আর্নিংয়ের প্রতিষ্ঠানে রুপ নিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, দলের নেতা মীর সরাফত আলী সপু, এ বি এম মোশারফ হোসেন, আব্দুস সালাম আজাদ, আ ক ম মোজাম্মেল হক, কাজী আবুল বাশার, হাসান জাফির তুহিন, সাদেক আহমদ খান, সুলতানা আহমেদ প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:৪৩ পি. এম.

৩০/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: