১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

শীর্ষ প্রবৃদ্ধি অর্জনে দেশের তালিকায় সামনের কাতারে বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৯

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ২০১৯ ও ২০ সালে বিশ্বের শীর্ষ প্রবৃদ্ধি অর্জনের দেশের তালিকায় সামনের কাতারে থাকবে বাংলাদেশ। আইএমএফ তাদের ইকোনমিক আউটলুক প্রতিবেদনে বলছে, এ বছর যা হতে পারে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ। যদিও খানিকটা কমবে আসছে বছর। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয় স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকালে।

ওয়ার্ল্ড ব্যাংক আইএমএফের বার্ষিক সভায় বড় আকর্ষণ থাকে বিশ্ব অর্থনীতির গতি- প্রকৃতি নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণী প্রতিবেদন প্রকাশ। যা বার্তা দেয় আগামী এক বছরে সার্বিক অর্থনীতির। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার এটি প্রকাশ করতে গিয়ে সংস্থাটি বলছে, ২০২০ সালে কিছুটা ইতিবাচক গতি পাবে বিশ্ব। যার ফলে ২০১৯ সালের ৩ শতাংশ প্রবৃদ্ধি বছর ব্যবধানে ঠেকতে পারে ৩ দশমিক ৪-এ।

তবে ধনী দেশগুলোর দ্বন্দ্ব আর উন্নয়নের সীমাবদ্ধতার উর্ধে এশিয়ান টাইগারখ্যাত বাংলাদেশকে রেখেছে সংস্থাটি। যা স্পষ্ট হয়েছে তাদের এই আগাম বার্তায়। যেখানে বলা হয়েছে, এই দুই বছরে দেশটির প্রবৃদ্ধি হবে প্রায় আটের ঘরে। আর যা সম্ভব হচ্ছে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার মতো বিনিয়োগবান্ধব উদ্যোগ। সেই সঙ্গে বিশ্বমন্দার পরও রফতানি, রেমিটেন্সের শক্তিশালী অবস্থান।

আইএমএফের মুখ্য অর্থনীতিবিদ গীতা গোপীনাথ বলেন, ২০১৯ সালে বিশ্ব অর্থনীতি প্রবৃদ্ধি ৩ শতাংশ নেতিবাচক ধারায় ছিল। ২০২০ সালে এসে কিছুটা ইতিবাচক হয়েছে। এদিনের আয়োজনে ঘুরেফিরে আলোচনায় আসে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাণিজ্য নিয়ে বিপরীতমুখী অবস্থান। সেই সঙ্গে বিশ্ব মন্দার কবলে থাকা বড় দেশগুলোর উদার বাণিজ্যনীতির ব্যর্থতা এবং মুদ্রা পাচারের মতো অপরাধ ঠেকাতে না পারা।

বৈশ্বিক কর এবং ব্যাংক ব্যবস্থারও সমালোচনা হয় এদিন। তাই পরামর্শ উঠে আসে নিয়ন্ত্রণ কর্তাদের সিদ্ধান্ত গ্রহণে আরও বেশি সতর্ক এবং সময় উপযোগী হওয়ার। প্রবৃদ্ধির আভাসে বাংলাদেশকে ভারত, শ্রীলঙ্কা কিংবা ভিয়েতনামের চেয়েও এগিয়ে রেখেছে সংস্থাটি। যা এশিয়ার দেশগুলোর গড়ের চেয়েও খানিকটা বেশি।

২০২০ সালে বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধি ৩.৪ শতাংশ ॥ ২০২০ সালে বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধি ৩ দশমিক ৪ শতাংশ হতে পারে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল-আইএমএফ। বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বার্ষিক সভার দ্বিতীয় দিনের শুরুতে প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক আউটলুকে এ প্রক্ষেপণ করা হয়েছে।

সংস্থাটির প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০১৯ সালে বিশ্বের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ছিল ৩ শতাংশ। প্রক্ষেপণে বলা হয়, গেল বছরের আর্থিক মন্দা খানিকটা কাটিয়ে উঠতে পারে বড় দেশগুলো। ফলে গতি আসতে পারে বৈশ্বিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগে। আইএমএফের মুখ্য অর্থনীতিবিদ গীতা গোপীনাথ জানান, বৈশ্বিক বাণিজ্য দ্বন্দ্ব ও ভূরাজনৈতিক বিষয়গুলো অগ্রগতির ক্ষেত্রে এখনও বড় বাধা। যা কাটিয়ে উঠতে নীতি-নির্ধারকদের আরও বেশি সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে।

প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৯

১৭/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: