মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

গোলের জন্য সংগ্রাম মেসি-রোনাল্ডোর

প্রকাশিত : ৩১ আগস্ট ২০১৫
  • স্প্যানিশ লা লিগা, রিয়াল মাদ্রিদের বড় জয়ে বেল ও রড্রিগুয়েজের জোড়া গোল, ভারমালিনের গোলে রক্ষা বার্সিলোনার, অসুস্থতা কাটিয়ে নেইমারের প্রত্যাবর্তন, বার্সিলোনা ১- মালাগা, রিয়াল মাদ্রিদ ৫- রিয়াল বেটিস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নতুন মৌসুমে গোলের জন্য রীতিমতো সংগ্রাম করতে হচ্ছে সময়ের দুই সেরা সুপারস্টার লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে। স্প্যানিশ লা লিগায় ইতোমধ্যে দুটি করে ম্যাচ খেলেছেন সাবেক ও বর্তমান ফিফা সেরা ফুটবলার। কিন্তু এখন পর্যন্ত দু’জনের কেউই গোলের দেখা পাননি!

শনিবার রাতে রিয়াল বেটিসকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে নতুন মৌসুমে প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু একটি গোলও পাননি দলের সেরা তারকা রোনাল্ডো। সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে গ্যালাক্টিকোদের হয়ে দুটি করে গোল করেন গ্যারেথ বেল ও জেমস রড্রিগুয়েজ। অপর গোল করেন করিম বেনজেমা। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও জয় পেতে ঘাম ঝরাতে হয়েছে বার্সিলোনাকে। ন্যুক্যাম্পে কাতালানরা ১-০ গোলে হারায় মালাগাকে। দলের জয়ে জয়সূচক গোলটি করেন টমাস ভারমালিন। অবাক করা বিষয় হচ্ছে, দুটি করে ম্যাচ শেষে এখন লা লিগার পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে সেল্টা ডি ভিগো। ৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে তারা। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোলপার্থক্যে দ্বিতীয় স্থানে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সা। ৪ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে রিয়াল। চমক দেখানো সেল্টা ভিগো নিজেদের মাঠে ৩-০ গোলে পরাজিত করে রায়ো ভায়োকানোকে।

মালগার বিপক্ষে ঘরের মাঠে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেললেও জয়ের জন্য ঘাম ঝরাতে হয়ে বার্সাকে। লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ, নেইমারদের সামনে চীনের প্রাচীর হয়ে উঠেন মালাগার গোলরক্ষক। শেষ পর্যন্ত অবশ্য স্বাগতিকদের জয় রুখতে পারেননি তিনি। ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অতিথিদের দুর্গে আক্রমণের ঢেউ বইয়ে দেন বার্সার ফুটবলাররা। দশম মিনিটেই গোল পেতে পারতেন সুয়ারেজ। আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার বাড়ানো বলে হাত লাগিয়ে উরুগুয়ের স্ট্রাইকারকে হতাশ করেন মালাগার গোলরক্ষক কার্লোস কামেনি। চার মিনিট পর মেসির একটি প্রচেষ্টা কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন কামেনি। অসুস্থতা কাটিয়ে নেইমার ফেরায় আরও ধারালো হয় বার্সার আক্রমণ। মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের সামলাতে রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলে মালাগা।

প্রথমার্ধে কাতালানদের রুখে দিয়ে দ্বিতীয়ার্ধেও সেই পথে হেঁটে পয়েন্টের স্বপ্ন দেখছিল মালাগা। কিন্তু ম্যাচের ৭৩ মিনিটে হতাশ হতে হয় অতিথিদের। এ সময় অবশ্য প্রথমে সুয়ারেজের ক্রস ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন কামেনি। ফিরতি বলে ভারমালিনের জোরালো শট ফেরানোর কোন সুযোগই ছিল না তার। শেষ পর্যন্ত এই গোলেই স্বস্তির জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সা। ম্যাচে অনেক সহজ সুযোগ থেকে গোল করতে না পারলেও তা নিয়ে আপসোস নেই আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। ম্যাচ শেষে বার্সা কোচ লুইস এনরিকে বলেন, বিরতিতে আমরা বলেছিলাম, আমাদের কোন সন্দেহ নেই যে গোল আসবে। গত মৌসুমের মতো একই সমস্যার মধ্য দিয়ে গেছি আমরা। এবার আমরা সম্পূর্ণ একটি ম্যাচ খেলেছি। আমরা স্বাভাবিক ছিলাম। উল্লেখ্য, গত মৌসুমে লীগে মালাগার মাঠ থেকে গোলশূন্য ড্র করে ফিরেছিল বার্সিলোনা। আর নিজেদের মাঠে ১-০ গোলে হার মেনেছিল।

আরেক ম্যাচে দাপুটে জয়ে গোলখরা কাটিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এর আগে স্পোর্টিং গিজনের সঙ্গে নিজেদের প্রথম ম্যাচ গোলশূন্য ড্র করে রাফায়েল বেনিতেজের শিষ্যরা। নিজেদের মাঠে শুরু থেকেই গোলের জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ে রিয়াল। দ্বিতীয় মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন বেল। ৩৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রড্রিগুয়েজ। বিরতির পর ৫০ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় ও দলের চার নম্বর গোল করেন ব্রাজিল বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুট জয়ী রড্রিগুয়েজ। এর আগে ৪৭ মিনিটে দলের তৃতীয় গোল করেন বেনজেমা। ম্যাচ শেষের এক মিনিট আগে রিয়ালের হয়ে পঞ্চম ও নিজের দুই নম্বর গোল করেন বেল। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো-গ্যারেথ বেল-করিম বেনজেমা বিবিসি নামে পরিচিত। এই আক্রমণ ত্রয়ী অনেক দিন ধরেই গোলখরায় ভুগছিল। মৌসুম শুরুর আগে খেলা প্রস্তুতিমূলক আট প্রীতি ম্যাচের চারটিতেই গোল পায়নি তারা। লা লিগার প্রথম ম্যাচেও একই অবস্থা। অবশেষে তারা স্বরূপে ফেরায় খুশি রিয়াল কোচ রাফায়েল বেনিতেজ।

ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, আমার ভাল লাগছে যে, আমরা পাঁচ গোল করেছি। দলের পারফর্মেন্সে আমি খুশি। গোলে সবচেয়ে বেশি প্রচেষ্টা ছিল রোনাল্ডোর। দল সুযোগ সৃষ্টি করে যেতে থাকলে তার গোল আসবেই।

প্রকাশিত : ৩১ আগস্ট ২০১৫

৩১/০৮/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: