ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

ত্বকের যত্ন

প্রকাশিত: ২১:২৮, ৯ জুন ২০২৪

ত্বকের যত্ন

.

ত্যাগ উৎসবের আনন্দ আসতে আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। আপনার ত্বক ঈদুল আজহার জন্য প্রস্তুত তো! যে কোনো উৎসবে নিজেকে মানানসই করতে কিছু চিন্তা-ভাবনা আমাদের থাকে, যার মধ্যে অন্যতম ত্বকের রূপচর্চা। কর্মব্যস্ততার মধ্যে জীবন কাটে প্রতিটি কর্মজীবী মানুষের। কখনো কখনো নিজের মুখটি আয়নায় দেখারও সুযোগ হয় না। তবে ঈদের দিনগুলো অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় আলাদা। পশু কোরবানি নিয়ে নানা ব্যস্ততা থাকলেও যেহেতু সবাই ছুটিতে থাকে তাই নেমন্তন্ন যেমন দিতে হয়, তেমনি অন্যত্র আতিথেয়তা রক্ষার্থেও যেতে হয়। এজন্য শত ব্যস্ততার মধ্যেও নিজেকে সময়ে রাখতে হয় পরিপাটি। পোশাক-আশাক যতই সুন্দর হোক ত্বক যেন থাকে মানানসই সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। ত্বককে সুন্দর রাখতে কি করণীয়?

আজকাল ওলিতে-গলিতে দেখা যায় ছেলেমেয়েদের বিউটি সেলুন। যত দ্রুত সম্ভব একটি দিনের ন্যূনতম দুই ঘণ্টা সময় বের করে চলে যান কাছাকাছি কোনো সেলুনে। সেখানে কর্মরত রূপ বিশেষজ্ঞরা ত্বক দেখেই বলে দিবে কোন্ ফেসিয়াল আপনার জন্য ভালো হবে। মুখ -লের সঙ্গে করিয়ে নিন মেনিকিউর (হাতের রূপ চর্চা) পেডিকিউর (পায়ের রূপচর্চা) তবে যারা সেলুনে যেতে অভ্যস্ত নন বা পছন্দ করেন না। তারা বাড়িতেই ত্বকের রূপচর্চা করুন।

গরমে ত্বক আর্দ্রতা হারিয়ে ফেলে। এতে আমাদের স্কিনে পড়ে নেতিবাচক প্রভাব। ত্বক হয়ে যায় নিস্তেজ প্রাণহীন। এই ত্বক সারিয়ে তোলার জন্য মাত্র পাঁচটি ধাপে বাসায় বসেই ফেসিয়াল করার উপায় সম্পর্কে বললেন রূপ বিশেষজ্ঞ আজিমুন্নেছা তুলি।

ক্লিনজিং : প্রথমে আপনার মুখ ধুয়ে ভালো মানের ক্লিনজার ব্যবহার করে সমস্ত ময়লা তুলে ফেলুন। এক্ষেত্রে একটু বেশি সময় ধরে মুখ পরিষ্কার করুন। দরকার হলে পর পর দুইবার ক্লিনজিং করতে পারেন।

স্ক্রাবিং : দ্বিতীয়ত স্ক্রাবিং ত্বকের জন্য খুবই জরুরি। এটি স্কিনে আটকে থাকা ছিদ্রগুলোর ময়লা দূর করে। ত্বকের মৃত কোষগুলো অপসারণ করতে সহায়তা করে। নারিকেল তেলের সঙ্গে ব্রাউন সুগার মিশিয়ে ফেসিয়াল স্ক্রাব বানিয়ে কিছুক্ষণ ত্বকে ম্যাসাজ করে তুলা দিয়ে অপসারণ করুন। নাকের দুপাশে, ঠেঁাঁটের উপর-নিচে, গালে কপালে আলতোভাবে স্ক্রাবিং করুন, যাতে মৃত কোষ এবং  ব্লাকহেডস দূর হয়। কসমেটিকসের দোকানেও স্ক্রাব ক্রিম কিনতে পাওয়া যায়। তা দিয়েও ঘরে বসে স্ক্রাবিং করতে পারেন।

টোনার : ত্বকের ময়লা দূর করার পরে টোনার ব্যবহার করতে ভুলবেন না। এটি ত্বকের পিএইচ স্তর বজায় রাখে। এমনকি আপনার ত্বককে আরও মসৃন করতে সহায়তা করবে।

ফেসপ্যাক : এরপর ত্বকের উজ্জ্বলতা পুনরুজ্জীবিত করতে ব্যবহার করুন ফেসপ্যাক। এই ধাপে দই, বেসন মধু মিশিয়ে একটি ফেসপ্যাক তৈরি করতে পারেন। এটি ত্বককে করবে উজ্জ্বল মসৃন।

ময়েশ্চারাইজ : সবশেষে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। ত্বকের ধরন অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার নির্বাচন করুন।

আলতো করে মুখে ঘষুন। বৃত্তাকার ভঙ্গিতে ওপরের দিকে ম্যাসাজ করুন। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া না দেখলেও দু-একদিনের মধ্যে ত্বকে দেখা দেবে উজ্জ্বলতা। যা আপনার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে বহুগুণ।

×