ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

‘ছায়াবাজ’ থেকে বাদ সায়ন্তিকা 

প্রকাশিত: ১৮:৫৪, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

‘ছায়াবাজ’ থেকে বাদ সায়ন্তিকা 

সায়ন্তিকা ও জায়েদ খান

শোনা যাচ্ছে ‘ছায়াবাজ’ ছবি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে এর নায়িকা সায়ন্তিকা ব্যানার্জিকে। প্রযোজক মনিরুল ইসলামের দাবি, যেহেতু গল্পটা বেশ শক্তিশালী, তাই এটি থেকে চলচ্চিত্র তৈরি হবে। প্রয়োজনে নতুন করে শুরু করবেন তিনি। অন্যদিকে, জায়েদ খানকে রাখা বা না রাখার বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।  

 প্রযোজক মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘এত সব মিথ্যাচার আর নিতে পারছি না। এই ছবির কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। তবে গল্পটা খুবই ভালো বিধায়, সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছি। ছবিতে সায়ন্তিকা যে থাকছেন না, এটা নিশ্চিত।’

তবে কী জায়েদ খানও বাদ—এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘জায়েদ খান আমার বিরুদ্ধে কিছু কথা বলেছেন, এটা ঠিক। তবে সমস্যাটা জায়েদ নয়, করেছেন সায়ন্তিকা। ছবিটি বন্ধ হয়েছে তার কারণে। তাই জায়েদ যদি অভিনয় করতে চান, আমার আপত্তি নেই।’

বাংলাদেশের সিনেমায় প্রথম কাজ করতে এসে ‘তিক্ত অভিজ্ঞতা’র মুখোমুখি হয়েছেন—এমনটাই দাবি করেছেন কলকাতার অভিনেত্রী সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। সিনেমার নায়ক জায়েদ খান, সায়ন্তিকা ও প্রযোজক মনিরুল ইসলামের ত্রিমুখী পাল্টাপাল্টি বক্তব্যের কারণে ‘ছায়াবাজ’র শুটিং নিয়েও দেখা দেয় অনিশ্চয়তা। 

জায়েদ খান বলেছিলেন, ‘এই শুটিং এতটাই অব্যবস্থাপনায় ভরা ছিল যে নায়িকার কস্টিউম, হোটেল ভাড়া, খাবারের বিলও আমি দিয়েছি। এক লাখ ৩০ হাজার হোটেল বিল এসেছিল। প্রযোজক ৯৭ হাজার বিল দিয়ে চলে গেছে। বাকি টাকা আমি দিয়েছি। প্রযোজক প্রতিনিয়তই মিথ্যাচার করছেন। তার কথা-কাজে মিল নেই।’

উল্লেখ্য, গত ৩০ আগস্ট ‘ছায়াবাজ’ সিনেমার শুটিংয়ে অংশ নিতে ঢাকায় এসেছিলেন টলিউড নায়িকা সায়ন্তিকা। কথা ছিল ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কক্সবাজারে শুটিং করার। কিন্তু এর আগেই বাঁধে হট্টগোল। নৃত্য পরিচালক মাইকেল বাবু অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে তাঁকে স্পর্শ করেছেন বলে অভিযোগ করে কলকাতায় চলে যান নায়িকা।

এস

×