শুক্রবার ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সোনারগাঁয়ে ২ এস আই নিহত : গাড়ি চালাচ্ছিলেন মামলার আসামি

সোনারগাঁয়ে ২ এস আই নিহত : গাড়ি চালাচ্ছিলেন মামলার আসামি

অনলাইন রিপোর্টার ॥ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ পৌরসভার দত্তপাড়া এলাকায় দুই উপপরিদর্শক (এসআই) নিহত হওয়ার ঘটনায় পালিয়ে যাওয়া সেই আসামিকে ১৯ ঘণ্টা পরও ধরতে পারেনি পুলিশ। তবে পুলিশের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, ওই আসামিকে দিয়ে গাড়ি চালানো হচ্ছিল। এ সুযোগে ওই আসামি গাড়ি খাদে ফেলে পালিয়ে যান।

পুলিশের একাধিক সূত্র জানায়, সোনারগাঁয়ের মেঘনা টোল প্লাজায় তল্লাশিচৌকিতে একটি গাড়িকে থামার জন্য সংকেত দেওয়ার পর সেটি এক কনস্টেবলকে আহত করে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে ধাওয়া করে আলমগীর হোসেন নামের একজনকে গাড়িসহ ধরতে সক্ষম হয় পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে ৪২ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

এরপর আলমগীরকে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আনা হয়। এ সময় তিনি গাড়ি চালিয়েছিলেন। এসপি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন শেষে তাকে নিয়ে আবার থানায় যাওয়ার জন্য রওনা দেন এসআই শরীফুল ইসলাম ও কাজী সালেহ এবং এএসআই রফিকুল ইসলাম। তবে তাদের তিনজনের কেউই গাড়ি চালাতে পারতেন না।

ফলে তারা ইয়াবা মামলার আসামি আলমগীরকে আবারও গাড়ি চালানোর দায়িত্ব দেন। সোনারগাঁ পৌরসভার দত্তপাড়া এলাকায় একটি পুকুরের পাশে এলে গাড়িটি ফেলে দিয়ে আসামি লাফ দিয়ে নেমে পালিয়ে যান। এতে দুই এসআই নিহত হন। গুরুতর আহত হন এএসআই।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সোমবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটার পর আসামি পালিয়ে যায়। তাকে এখনো ধরা যায়নি। তিনি আরও জানান, আসামির কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া ইয়াবা পানিতে পড়ে যাওয়ায় কিছু গলে গেছে, বাকিগুলো উদ্ধার করা হয়েছে।

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এস এম শফিকুল ইসলাম জানান, নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে একটি প্রেস ব্রিফিং শেষে সোনারগাঁ থানায় আসামিকে আনার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কাজী সালেহ আহম্মেদ ও শরিফুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে সোনারগাঁ পৌরসভার দত্তপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় এসআই শরীফুল ইসলাম ও কাজী সালেহ নিহত হন। তারা দুজন সোনারগাঁ থানায় কর্মরত ছিলেন। শরীফুল ইসলাম গোপালগঞ্জের সদর উপজেলার চরভাইপাড়া এলাকার ইউসুফ আলীর ছেলে। আর কাজী সালেহ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার মুনসুরাবাদ গ্রামের কাজী নুরুল ইসলামের ছেলে।

এ ঘটনায় এক সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) রফিকুল ইসলাম আহত হয়েছেন। তাকে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস হাসপাতালে পাঠানো হয়।

শীর্ষ সংবাদ:
জড়িত ৮৪ রাঘববোয়াল ॥ পি কে হালদারের অর্থপাচার         স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নাম পরিবর্তন হবে না         এবার উল্টো পথে ডলার ॥ ৯৬ টাকায় নেমেছে         কোরানে হাফেজ হয়েও পেশা চুরি !         সিলেটে ২০ লাখ মানুষ পানিবন্দী দুর্ভোগ চরমে         চট্টগ্রামে ড্র করেই সন্তুষ্ট মুমিনুলরা         গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা আসতে পারে এ মাসেই         ছয় মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ ॥ ১০ কাউন্সিলরের বাতিল         দক্ষ স্বচ্ছ ও জনবান্ধব ভূমি সেবাই আমাদের অঙ্গীকার         প্রতি কেজি কাঁচা চা পাতার মূল্য ১৮ টাকা নির্ধারণ         কারসাজি বন্ধে বাজারে বাজারে মনিটরিং সেল গঠনের তাগিদ         লিচুতে রঙিন রাজশাহীর বাজার ॥ ৪৪ কোটি টাকা বাণিজ্যের আশা         নিয়োগ পরীক্ষায় পাস করিয়ে দিতে ১০-১৫ লাখ টাকায় চুক্তি!         শেখ হাসিনার সততার সোনালি ফসল পদ্মা সেতু ॥ কাদের         দেশে সব ধর্মের মানুষ সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা নিয়ে ধর্মীয় অধিকার ভোগ করছে : আইনমন্ত্রী         কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে ছয় মেয়রসহ ১৫৪ প্রার্থীকে বৈধ ঘোষণা         বিএনপি থেকে সাক্কুর পদত্যাগ         সহসাই গ্যাস পাচ্ছেন না কামরাঙ্গীরচরের বাসিন্দারা         করোনা : ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৩৫         আন্দোলনের কোন বিকল্প নেই ॥ মির্জা ফখরুল