রবিবার ৯ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বগুড়ায় পুলিশের নির্যাতনের প্রতিবাদ করায় অসহায় পরিবারকে মামলা দিয়ে হেনস্তা

বগুড়ায় পুলিশের নির্যাতনের প্রতিবাদ করায় অসহায় পরিবারকে মামলা দিয়ে হেনস্তা

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস॥ বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলায় এক ব্যক্তি পুলিশী নির্যাতনের প্রতিবাদ করায় ওই ব্যক্তিসহ তার পরিবারকে মামলা দিয়ে নানাভাবে হয়রানী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমনকি ওই পরিবারের ৪ ভাইয়ের বিরুদ্ধে ভাংচুর ,নারী নির্যাতন ও ধর্ষন মামলা দেয়া হয়েছে। দুপচাঁচিয়া থানার ওসি এবং এক এসআই আই’র বিরুদ্ধে থানায় ডেকে এনে নির্যাতানের পর অর্থ আদায়ের প্রতিবাদ করায় পরিবারটি হেনস্তার শিকার হচ্ছে বলে অভিযোগ। সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে এই অভিযোগ জানিয়েছেন, দুপচাঁচিয়া উপজেলার চকসুখানগাড়ি এলাকার মটরসাইকেল মেকার দরিদ্র নুরে আলমের পরিবার। নুরে আলম পুলিশের নির্যাতনের প্রতিবাদ করেছিলেন। তিনি এখন কারাগারে রয়েছেন বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানান হয়। তার স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা সোমবার সাংবাদিকদের নিকট নির্যাতনের ঘটনা তুলে পুরো পরিবারের অসহায়ত্ব বর্ণনা করেন। তবে দুপচাঁচিয়া থানার ওসি জানিয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। মহল বিশেষের স্বার্থের ব্যাঘাত ঘটায় এ ধরনের অভিযোগ করা হচ্ছে।

নির্যাতনের শিকার নুরে আলমের পরিবারের পক্ষ থেকে তার স্ত্রী জানান, তারা অসহায় দরিদ্র। তার স্বামী মটরসাইকেলে মেরামতের কাজ করেন। তার দেবর একজন অটোরিক্সা চালক। গত ২৯ আগস্ট নুরে আলমকে থানার এক এস আই থানায় ডেকে নিয়ে যান। সেখানে তাকে ‘মিথ্যা মামলার হুমকি’ দিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাওয়া হয়। এসময় তাকে নির্যাতন করা হয়। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে থানা থেকে ছাড়িয়ে আনা হয়।

এর কয়েক দিন পরে নুরে আলম পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নিকট এর বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। এর পরেই তারা হেনস্তার শিকার হন। নুরে আলমের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, এঘটনার পর অভিযোগ তুলে নেয়ার জন্য ওসির পক্ষ থেকে নানা চাপ ও হুমকি দেয়া হয়। পরবর্তীতে ১৬ অক্টোবর দুপচাঁিচয়ার মিনি ট্রাক অফিস ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় নুরে আলমসহ তার ৪ ভাইকে অভিযুক্ত করা হয়।

এর পর ১৯ অক্টোবর আদালতে এই ৪ জনসহ নুরে আলমের চাচা বেলাল হোসেনের বিরুদ্ধে দায়ের হয় ধর্ষন ও নারী নির্যাতন মামলা। নির্যাতিত পরিবারের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার কারণেই তাদের বিরুদ্ধে থানার ওসির প্রভাবে মামলা ও হয়রানী করা হচ্ছে। এতে এক বালু ব্যবসায়ীকে ব্যবহার করা হয়েছে বলে তারা অভিযোগ করেন। নুরে আলমের স্ত্রী তাদের হেনস্তাকারী ও তার স্বামীকে নির্যাতনকারীদের বিচার দাবি করে ন্যায় বিচার কামনা করেন। পরিবারের অন্য সদস্যরাও একই দাবি জানিয়েছেন।

অভিযোগের বিষয়ে দুপাচাঁচিয়া থানার ওসি জানান. তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। অভিযুক্ত নুরে আলম একটি গ্যাং এর সদস্য। তবে তার বিরুদ্ধে ইতোপুর্বে আর কোন মামলার বিষয় তার জানা নেই বলে জানান।

শীর্ষ সংবাদ:
পুরান কাপড়ের যুগ শেষ ॥ দেশের মর্যাদা সুরক্ষায় বন্ধ হচ্ছে আমদানি         প্রধানমন্ত্রী আজ পুলিশ সপ্তাহ উদ্বোধন করবেন         ভিসির পদত্যাগ দাবিতে এবার কাফন মিছিল শাবি শিক্ষার্থীদের         ইসি নিয়োগ বিল আজ সংসদে উঠছে         দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব-নাসিকই প্রমাণ         ভ্যাট ও ট্যাক্স আদায়ে হয়রানি বন্ধের দাবি ব্যবসায়ীদের         মাদক চালান আসা কেন বন্ধ হচ্ছে না-কোথায় ঘাটতি?         অবৈধ মজুদদারের কব্জায় পাট ॥ কৃত্রিম সঙ্কটে দাম বাড়ছে         দেশে করোনায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু         বয়সের অসঙ্গতি দূর করে নীতিমালা সংশোধন         প্রশ্নফাঁস চক্রে সরকারী কর্মকর্তা ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান         সর্বোচ্চ ৫ বছর জেল, ১০ লাখ টাকা জরিমানার প্রস্তাব         অবশেষে আলোর মুখ দেখল চট্টগ্রাম ওয়াসার পয়ঃনিষ্কাশন প্রকল্প         মোহাম্মদপুরে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে হত্যা         গ্যাসের দাম দ্বিগুণ বাড়ানোর প্রস্তাব         জনগণের সেবা নিশ্চিত করতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান         অপরাধ দমনে নিরলস কাজ করছে পুলিশ ॥ প্রধানমন্ত্রী         অনশন ভেঙে শিক্ষার্থীদের আলোচনায় বসার আহবান শিক্ষামন্ত্রীর         এবার গণঅনশনের ঘোষণা দিলেন শাবি শিক্ষার্থীরা         করোনা ভাইরাসে আরও ১৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৯৬১৪