ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

রেলের স্টোরস কোডে ৫৫ কোটি টাকা বরাদ্দ দিচ্ছে না অর্থ মন্ত্রণালয়

প্রকাশিত: ২০:৪১, ২৫ নভেম্বর ২০২০

রেলের স্টোরস কোডে ৫৫ কোটি টাকা বরাদ্দ দিচ্ছে না অর্থ মন্ত্রণালয়

মাকসুদ আহমদ, চট্টগ্রাম অফিস ॥ রেলের স্টোরস কোডে বরাদ্দ দিচ্ছে না অর্থ মন্ত্রণালয় এমন অভিযোগ রেলের অতিরিক্ত মহাপরিচালকের (অর্থ)। অর্থ মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দ না পাওয়ায় চট্টগ্রামে সরবরাহকারীদের প্রায় ৫৫ কোটি টাকা আটকে রেখেছে প্রধান অর্থ উপদেষ্টা ও হিসাব অধিকর্তা (এফএএন্ডসিএও)। এফএএন্ডসিএও নির্দেশানা না দেয়ায় চট্টগ্রামের পলোগ্রাউন্ডস্থ বিভাগীয় উপ অর্থ উপদেষ্টা ও হিসাব অধিকর্তার কার্যালয় (টিএ ব্রাঞ্চ) সরবরাহকারীদের প্রায় ৫৫ কোটি টাকা বকেয়া বিলের ব্যাপারে কিছুই বলছে না। রেল ইন্টিগ্রেটেড বাজেট এন্ড এ্যাকাউন্টিং সিস্টেম (আইবাস) ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের দোহাই দিয়ে পাঁচ মাসেরও বেশি সময় পার করে দিয়েছে বলে অভিযোগ সরবরাহকারীদের। ফলে অতিকষ্টে দিনাতিপাত করা ছাড়াও ঋণের ভারে ন্যুজ সরবরাহকারীরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এ বিষয়ে জানতে রবিবার বিকেলে প্রতিবেদক রেল ভবনে থাকা এডিশনাল ডিরেক্টর জেনারেল (এডিজি) ফিন্যান্সের সরকারী মোবাইলে কল দিয়েও কথা বলার সুযোগ পাওয়া যায়নি। তবে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে নারাজ রেলের পূর্বাঞ্চলের ক্রয় অথবা সংগ্রহের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্মকর্তারা। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ রেলওয়ে স্পেয়ার্স এন্ড এক্সেসোরিস সাপ্লাইয়ার্স এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ফেরদৌস হুদা চৌধুরী জনকণ্ঠকে বলেন, অর্থ বছরে বাজেট প্রাপ্তির ওপর নির্ভর করে সরবরাহকারীদের বিল পরিশোধের ক্ষমতা। সরবরাহকারীদের টাকা আটকে আছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অভাবে। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দ না পাওয়া পর্যন্ত সরবরাহকারীরা ৫৫ কোটি টাকার বিল পাবে না। এ বিষয়ে একটি চিঠি গত ১৯ নবেম্বর পাঠানো হয়েছে রেলমন্ত্রী বরাবর। অভিযোগ উঠেছে, করোনাকালীন সময়েও রেলের সরবরাহকারীরা সরকারের প্রধান পরিবহন খাতকে সচল রাখতে সরবরাহ কাজ অব্যাহত রেখে এসেছে। আর এখন সেই বিল আটকে পড়ায় অর্থ মন্ত্রণালয় রেলের স্টোরস কোডে বরাদ্দ না দেয়ায় অতিকষ্টে দিনাতিপাত করছেন সরবরাহকারীরা। গত জুলাই মাসের শেষের দিকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আইবাস সিস্টেমে রেলের রাজস্ব বিভাগকে অর্থনৈতিক কোডের আওতায় নিতে গিয়ে রেলের রাজস্ব খাতকে (৯৫০০) বিলীন করে দিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। কিন্তু আইবাস সিস্টেমে অর্থনৈতিক কোড বরাদ্দ দিলেও অর্থ বরাদ্দ আটকে রেখেছে মন্ত্রণালয়। তবে রেলেরও কোন মাথাব্যথা নেই সরবরাহকারীদের প্রায় ৫৫ কোটি টাকা বকেয়া বিলের ব্যাপারে। ক্রয় কর্তৃপক্ষ চিঠি চালাচালি করলেও তা চলছে ঢিমেতালে।
monarchmart
monarchmart