বৃহস্পতিবার ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিদায় সি আর দত্ত

মুক্তিযুদ্ধের সম্মুখসারির বীর সেনানী ৪ নং সেক্টর কমান্ডার চিত্তরঞ্জন দত্ত আর নেই। ৯৩ বছর বয়সে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। এই লড়াকু ব্যক্তি আজীবন সততা, নিষ্ঠা, দেশপ্রেম আর আদর্শের অনুবর্তী হয়ে নিজেকে উৎসর্গ করেছেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে ধারণ করাই শুধু নয়, দেশপ্রেমের অনন্য চেতনায় নিজেকে প্রতিনিয়ত শাণিত করেছেন। ১৯৬৫ সালের পাক-ভারত যুদ্ধে তিনি পাকিস্তানের পক্ষে যুদ্ধে বীরত্বের পরিচয় দেন। অসম সাহসিকতায় সমরাঙ্গনে লড়াই করার পুরস্কারও লাভ করেন তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের কাছ থেকে। উদ্দীপ্ত দেশাত্মবোধের চেতনায় সৈনিক জীবনের বর্ণাঢ্য যাত্রাপথ রণাঙ্গনের ইতিহাসের এক অকৃত্রিম যোদ্ধার আসনে অভিষিক্ত করেছে। এর পরের ঘটনা বাংলাদেশের বহু কাক্সিক্ষত স্বাধীনতার সংগ্রাম।

মুক্তিযুদ্ধের নয় মাসের দুরন্ত পথযাত্রায় সি আর দত্ত ৪ নং সেক্টর কমান্ডারের দায়িত্বে থেকে সর্ববিধ লড়াকু কর্মযোগকে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করতে সমর্থ হন। বেঁচে থাকা সহযাত্রীরা শোকসন্তপ্ত হৃদয়ে সেই ঘটনার স্মৃতিচারণ করেছেন। ধর্মনিরপেক্ষতাও ছিল তার মর্মমূলে গাঁথা। আদর্শের মাপকাঠিতে এই লড়াকু ব্যক্তি ছিলেন এক অপরাজেয়, অকুতভয় আপোসহীন সৈনিক। তিনি বাংলাদেশ রাইফেলসের প্রথম মহাপরিচালক। মুক্তিযুদ্ধে অসম সাহসিকতার জন্য ‘বীর উত্তম’ খেতাব পাওয়া এই রণনায়ক স্ত্রী বিয়োগের পর চলে যান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সন্তানদের কাছে। নিউইয়র্কে থাকতেন পারিবারিক আবহে। তার শেষ কৃত্য মাতৃভূমিতে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় হওয়ার কথা। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণে অভিভূত হওয়া সি আর দত্তের মুক্তিযুদ্ধে যুক্ত হবার মূল প্রেরণা। হানাদার বাহিনীর সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের অনন্য লড়াইয়ে নিজেদের রণাঙ্গনে সি আর দত্ত সম্মুখসারির নেতৃত্ব ও দক্ষতার সঙ্গে পালন করেছেন। তিনি মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট এবং বিআরটিসির চেয়ারম্যানের পদও অলঙ্কৃত করেন। মেজর জেনারেল হিসেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী থেকে অবসর নেন এই বীর মুক্তিযোদ্ধা। সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম গঠনের পর যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে সারা বাংলাদেশ ঘুরে বেরিয়েছেন তিনি। চির বিদ্রোহের চেতনায় শাণিত হয়ে কোন অশুভ শক্তিকে মানতে পারেননি কোন দিন তিনি। তিনি সব সময় অদম্য মনোবলে দেশের চিহ্নিত শত্রুদের বিরুদ্ধে অসম তেজে সোচ্চার হতে কখনও দ্বিধা করেননি। এমন দেশপ্রেমিক যোদ্ধার মৃত্যু হয় না। চিরঞ্জীব চেতনায় অনুপ্রাণিত করা এই লড়াকু ব্যক্তি চিরস্মরণীয় ও বরণীয় হয়ে থাকবেন দেশ এবং জাতির কাছে। তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি রইল সমবেদনা।

শীর্ষ সংবাদ:
ওমিক্রন ছড়ানো দেশগুলোর তালিকায় এবার যুক্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নাম         ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর চেক ফেরত দিল ব্যাংক, ফেসবুকে ক্ষোভ         রাজশাহী কারাগারে মেয়র আব্বাসের ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন         রাজশাহীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু         সাভারে ৬ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে হত্যা মামলার রায়ে ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড         রাঙ্গামাটির সাজেকে পুড়েছে রিসোর্ট, রেস্তোরাঁ ও বসতবাড়ি         সিটি করপোরেশনের গাড়ির ধাক্কায় বৃদ্ধা আহত, চালক আটক         ডি কাপলড সিরিজে মাধবনের সঙ্গে দেখা যাবে মীরকে         ওমিক্রন পরিস্থিতি খারাপ হলে বন্ধ হতে পারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান         শুরু হলো এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা         ওসি প্রদীপসহ আসামিদের আত্মপক্ষ সমর্থনে সাফাই সাক্ষী দেয়ার সুযোগ         বেনজেমার একমাত্র গোলে রিয়াল মাদ্রিদের জয়         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৮ হাজার ১৭৬ জন         বন্দুকযুদ্ধে কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যার প্রধান আসামি শাহ আলম নিহত         গণমুখী প্রশাসন ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছরে বড় অর্জন         ছাত্রদের কাজ লেখাপড়া, রাস্তায় নেমে যান ভাংচুর নয়         উন্নয়নে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ         ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে         ১১ খাতে বিপুল বিনিয়োগ আসার সম্ভাবনা         ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তিতে বদলে গেছে পাহাড়