মঙ্গলবার ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ০৭ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কোরবানীর পশু নিয়ে শঙ্কায় রাজশাহীর খামারীরা

কোরবানীর পশু নিয়ে শঙ্কায় রাজশাহীর খামারীরা

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ সামনে কোরবানীর ঈদ। ঈদের প্রধান অনুসঙ্গ কোরবানীর পশু। এই মৌসুমে দেশী গরুর পাশাপাশি ভারতীয় গরুর চাহিদা সবচেয়ে বেশী রাজশাহী অঞ্চলের হাটগুলোতে। তবে করোনাকালে এবার কোরবানীর হাটে ভারতীয় গরু আসছে না। এমন সংবাদের পরেও রাজশাহীর গরুর খামারীদের মনে স্বস্তি নেই। কারণ করোনা ভাইরাস।

করোনা ভাইরাসের কারণে হাট জমবে কি না তা নিয়ে অনেকটা অস্বস্তিতে পড়েছেন খামারীরা। খামারে পালন করা পশুগুলোর ভালো দাম পাওয়া যাবে কি না তা নিয়েও শঙ্কা দেখা দিয়েছে তাদের মনে।

রাজশাহী প্রাণীসম্পদ অফিসের তথ্য অনুযায়ি, রাজশাহীতে কোরবানীর পশুর চাহিদা আছে তিন লাখের কিছু বেশি। আর রাজশাহীতে ছোটবড় মিলে ১৭ হাজারের বেশি খামার। এসব খামারে যে গরু আছে তা দিয়ে আসন্ন কোরবানীর চাহিদা পূরণ হবে। পাশপাশি এবারে আসছে না ভারতীয় গরু। এতে খামারীরা আছেন সুবিধাজনক অবস্থায়। তবে, করোনা ভাইরাস খামারীদের কপালে চিন্তার ভাজ ফেলেছে।

খামারীরা আশঙ্কা করছেন, করোনা ভাইরাসের কারণে এবারে কোরবানীর হাট জমতে নাও পারে। শুধু তাই না, অনেকেই আর্থিক সংকটের কারণে এবার কোরবানী নাও দিতে পারে।

রাজশাহীন পবা উপজেলার বাগধানী এলাকার খামারী উজ্জল জানান, প্রতি বছর তিনি বাড়িতে ২ থেকে ৩টা গরু পালন করেন। এবারেও ৩টি গরু পালন করেছেন। ৬৫ থেকে ৭০ হাজার টাকা দাম হবে প্রতিটি গরুর।

তিনি আরো জানান, দীর্ঘ ৮ মাস ধরে গরুগুলো পালন করতে দেড় লাখ টাকা মতো খরচ হয়েছে। এখন সঠিক দাম না পেলে পরিশ্রম বৃথা যাবে। খামারী উজ্জল জানান, করোনা ভাইরাসের কারণে তিনি বেশ চিন্তায় আছেন। পশু হাটগুলো জমবে কি না তা নিয়েও শঙ্কা আছে। এছাড়াও অনেকেই এবার আর্থিক সংকটে আছে। সে কারণে বাজারে পশুর চাহিদাও কমতে পারে।

বাগমারা এলাকার আরেক খামারী দুলাল জানান, স্থানীয়ভাবে কেনাবেচা শুরু হয় পরে। তবে, দূরের পাইকাররা আগে আসেন। এবারে যে পরিস্থিতি তাতে তারা আশঙ্কায় আছেন যে, দূরের পাইকার ব্যবসায়ীরা খুব বেশি আসবে না। পশু বিক্রি নির্ভর করতে হবে স্থানীয় কোরবানীদাতাদের উপরে। সেই ক্ষেত্রে ভালো দাম পাওয়া যাবে কি না তা নিয়ে শঙ্কা আছে।

এদিকে, রাজশাহীতে কোরবানী পশুর কেনাবেচা এখনো শুরু হয়নি। তবে আগামী ১০ দিনের মধ্যেই একটু হলেও কেনাবেচা শুরু হবে বলে আশা করছেন খামারীরা।

রাজশাহীর সবচেয়ে বড় পশুর হাট সিটিহাটের ইজারাদার আতিকুর রহমান কালু বলেন, দেশী গরুর চাহিদা অনুযায়ী পর্যাপ্ত গরু রয়েছে এ অঞ্চলের খামারে। তবে হাটন বসানো নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে অনেক খামারি হাট বিমুখ হবেন। তারপরেও তিনি আশা করছেন পরিস্থিতি বিবেচনা করে প্রয়োজনে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করে হলেও হাট বসানো হয়ে। যদিও এখনও পর্যাপ্ত গরু উঠছে রাঝশাহীর সিটি হাটে।

শীর্ষ সংবাদ:
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৫৫ জনের, নতুন শনাক্ত ৩০২৭         শুল্ক কমিয়ে বিদেশ থেকে চাল আমদানির সিদ্ধান্ত         করোনা ভাইরাস ॥ চিকিৎসক নিয়োগে আসছে বিশেষ বিসিএস         বান্দরবানে জনসংহতির সংস্কারপন্থি ছয়জনকে গুলি করে হত্যা         দাউদকান্দিতে প্রাইভেটকার খাদে পড়ে একই পরিবারের ৩ জন নিহত         এবার মাশরাফির স্ত্রীও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত         জাতীয় পার্টিতে নতুন দুই উপদেষ্টা         দুই আসনের উপনির্বাচনকে অগ্রহণযোগ্য বলল বিএনপি         করোনা ভাইরাসে ভারতে মৃত্যু ছাড়াল ২০ হাজার         টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে দুই ইয়াবা কারবারি নিহত         কলম্বিয়ায় জ্বালানি ট্যাঙ্কার বিস্ফোরণ ॥ নিহত অন্তত ৭         ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকের বড় ভাইয়ের মৃত্যু         মিয়ানমারের সেনাপ্রধান ও উপ-প্রধানের ওপর যুক্তরাজ্যের নিষেধাজ্ঞা         বন্যপ্রাণী নিধন চলতে থাকলে আরও প্রাদুর্ভাব আসবে ॥ জাতিসংঘ         যুক্তরাষ্ট্রে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ৩২ রাজ্যে করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী         শুধু ভারত নয়, জাপানসহ ২০ দেশের সঙ্গে দ্বন্দ্ব চীনের         জাপানে বৃষ্টি-বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৪         জিনপিংয়ের সমালোচনা করায় চীনা অধ্যাপক গ্রেফতার         চীনের ৫০টি বিনিয়োগ প্রকল্প আটকে দিয়েছে ভারত         নিজের স্বার্থেই ইউরোপের উচিত পরমাণু সমঝোতা মেনে চলা ॥ ইরান        
//--BID Records