মঙ্গলবার ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৬ মে ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আমফানে রাজশাহীর আম চাষীদের মাথায় হাত

আমফানে রাজশাহীর আম চাষীদের মাথায় হাত

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রভাবে রাজশাহীতেও রাতভর তা-ব চালিয়েছে ঝড়। বুধবার রাতের এই ঝড়ে রাজশাহীর অন্তত ১৫ শতাংশ আম গাছ থেকে ঝরে পড়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর এ তথ্য দিয়েছে।

অবশ্য জেলা প্রশাসক হামিদুল হক বলেছেন, আম ঝরেছে ২০ শতাংশ। এদিকে গাছের আম ঝরে পড়ায় চাষীদের মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়েছে। তারা বলছেন, এবার এমনিতেই আমের ফলন কম। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দাম পাওয়া নিয়েই ছিলেন অনিশ্চয়তায়। তার ওপর ঝড়ে আম ঝরে পড়ায় ফলনও কমে গেল। এতে তারা লোকসানের মুখে পড়বেন।

রাজশাহী জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক শামসুল হক বলেন, রাতেই বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিয়ে আমরাই জেলা প্রশাসককে জানিয়েছিলাম যে ২০ শতাংশ আম ঝরে পড়েছে। তবে সকালে আমরা বিভিন্ন বাগান পরিদর্শন করে দেখছি ক্ষতির পরিমাণ আরেকটু কম। শহরে ১০ শতাংশ এবং চারঘাট উপজেলায় এসে ১৫ শতাংশ আম ঝরে পড়ার দৃশ্য দেখছি।

যোগাযোগ করা হলে বাঘা উপজেলার বাউসা গ্রামের আম চাষী ফরিদুল ইসলাম বলেন, বাগানে ঢিলের মতো আম পড়ে আছে। তারা কুড়াচ্ছেন। আচারের জন্য দুই থেকে পাঁচ টাকা কেজি দরে এসব আম বিক্রি করতে হবে। আর কয়টা দিন গেলেই এসব আম পরিপক্ব হয়ে যেত। এখন বাগানের ফলন কমে যাবে। এবার আমে লাভ হবে না বলেই মনে করছেন তিনি।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তা শামসুল হক বলেন, আম ঝরে গেলে তো ফলন কমবেই। এখন চাষীরা যদি আমের ভাল দাম না পান তাহলে হয়তো এবার তারা ক্ষতির মুখে পড়বেন। তাই আমের যেন সঠিক মূল্য পাওয়া যায় তার জন্য যা যা করা দরকার আমাদের করতে হবে।

নওগাঁ

নিজস্ব সংবাদদাতা নওগাঁ থেকে জানান, ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রভাব নওগাঁ জেলাসহ সীমান্তবর্তী সাপাহার ও পোরশা উপজেলার ওপরও পড়েছে। বুধবার রাতভর ও বৃহস্পতিবার দিনভর আমফানের তা-বে সাপাহার ও পোরশার আম বাগানগুলোতে আমচাষীদের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এই ঝড়ো হাওয়া কখনও দমকা হাওয়ায় রূপ নিয়ে বাতাসের গতিবেগকে বাড়িয়ে দিচ্ছে। এর মধ্যে থেমে থেমে প্রচ- ঝড়ের সঙ্গে বৃষ্টিপাতও হয়েছে প্রচুর, জেলার বদলগাছী উপজেলায় অবস্থিত আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে রাতে যে ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টিপাত হয়েছে তা ঘূর্ণিঝড় আমফানেরই প্রভাব। এই ঘূর্ণিঝড়ের তোড়ে সাপাহার ও পোরশায় বাগানে বাগানে প্রচুর আম ঝরে পড়ায় ভোর হতে প্রতিটি বাগানে সাধারণ মানুষের আম কুড়ানোর ধুম পড়ে যায়। সাপাহার উপজেলার আমচাষী তছলিম উদ্দীন, মুমিনুল হক, দেলোয়ার হোসেন, শাহজাহান আলীসহ অনেক আমচাষী জানান যে, প্রায় ১৫ দিন পূর্বে কালবৈশাখীর তা-বে আমাদের এলাকায় আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছিল। সে ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ঘূর্ণিঝড় আমফান আবারো এই এলাকায় আঘাত হানল। আমফানের এই আঘাতে প্রতিটি বাগানে প্রায় ৩০ শতাংশ আম মাটিতে ঝরে পড়েছে। এবারের ঝড়ে বড় সাইজের আমই ঝরে গেছে।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা ভাইরাসে আরও ২১ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১১৬৬         সরকারের বিরুদ্ধে মরচে ধরা সমালোচনার তীর ছুড়ছেন বিএনপি         গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিটের ট্রায়াল স্থগিত         করোনা ভাইরাস ॥ সানবিমস স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যু         সাবেক সাংসদ এম এ মতিন আর নেই         করোনা ভাইরাসের রোগীদের হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন দেওয়া বন্ধ রাখতে বলল ডব্লিউএইচও         করোনা ভাইরাস ॥ আক্রান্ত প্রায় ৫৫ লাখ, যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু লাখ ছুঁই ছুঁই         জুলাই থেকে পর্যটকরা স্পেনে যেতে পারবে         দৈনিক মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে গেল ব্রাজিল         করোনা ভাইরাস ॥ থাইল্যান্ডে বানরের ওপর ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু         তেলেঙ্গানার কুয়ায় ৯ লাশ পাওয়ার রহস্য উদ্ঘাটন, গ্রেফতার ১         লকডাউন তুলে নিচ্ছে সৌদি আরব         লকডাউন দ্রুত তোলায় সংক্রমণ আবারও বেড়ে যেতে পারে         যুক্তরাষ্ট্রে রপ্তানি হল পিপিই’র প্রথম চালান         লাদাখে মুখোমুখি ভারত ও চীনের সেনাবাহিনী, বাড়াচ্ছে শক্তি         প্লেন চালুর প্রথম দিনেই একের পর এক ফ্লাইট বাতিল         ভূমিকম্পেও সাক্ষাৎকারে অবিচল নিউ জিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী         পরীক্ষার শর্ত দিয়ে পর্যটকদের ভ্রমণের সুযোগ দিচ্ছে আইসল্যান্ড         ঈদে আরও সুন্দর পৃথিবীর প্রার্থনা সানিয়া মির্জার         শেখ হাসিনাকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন মোদী        
//--BID Records