শুক্রবার ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

করোনার মধ্যেও বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে স্বস্তি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রভাবে থমকে আছে পুরো বিশ্বের অর্থনীতি। ফলে দেশে রেমিটেন্স আহরণ প্রায় বন্ধ। রফতানি বাণিজ্যের অবস্থাও নাজুক। এমন সঙ্কটময় পরিস্থিতিতেও স্বস্তিতে আছে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। চলতি সপ্তাহে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ তিন হাজার ৩০০ কোটি (৩৩ বিলিয়ন) ডলার ছাড়িয়েছে।

আমদানি ব্যয়ের চাপ কম, দাতা সংস্থা বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ ও জাইকার বৈদেশিক ঋণ সহায়তা ও বিশ্ব সংস্থার অনুদানের কারণে রিজার্ভ বেড়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ মার্চ পর্যন্ত দেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৩১ দশমকি ৬৭ বিলিয়ন ডলার। কিন্তু করোনার সঙ্কটময় সময়ের মধ্যেও চলতি মাসের ২৭ এপ্রিল এ রিজার্ভ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩ দশমিক শূন্য ৪ বিলিয়ন ডলারে। এর আগে ২০১৭ সালের জুনে সর্বোচ্চ তিন হাজার ৩০০ কোটি ডলার রিজার্ভ অতিক্রম করেছিল। এরপর দীর্ঘদিন ৩১ থেকে ৩২ বিলিয়ন ডলারে ওঠানামা করেছে রিজার্ভ।

তবে বেসরকারী পর্যায়ে বৈদেশিক মুদ্রার ঋণের দায় ও এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) দায় শোধ করলে এ রিজার্ভ আবারও কমে যাবে বলছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, ইরান, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ- এই নয়টি দেশ বর্তমানে আকুর সদস্য। এই দেশগুলো থেকে বাংলাদেশ যেসব পণ্য আমদানি করে তার বিল দুই মাস পরপর আকুর মাধ্যমে পরিশোধ করে থাকে। বাংলাদেশ সর্বশেষ গত মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহে জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মেয়াদের আকুর বিল (প্রায় ১ বিলিয়ন ডলার) পরিশোধ করেছে। আগামী মে মাসের প্রথম সপ্তাহে মার্চ ও এপ্রিল মেয়াদের আকুর বিল পরিশোধ করতে হবে। এটি পরিশোধ করলে রিজার্ভ আবারও কমে যাবে।

এদিকে রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের ৯ মাস (জুলাই-মার্চ) শেষে রফতানি আয় দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৮৯৭ কোটি ডলার। এই আয় আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৬ দশমিক ২৪ শতাংশ কম।

একক মাস হিসাবে মার্চে রফতানি আয় হয়েছে ২৭৩ কোটি ডলার, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৮ দশমিক ২৯ শতাংশ কম।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের মার্চে দেশে যে পরিমাণ রেমিটেন্স এসেছে তা গত ১৫ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে গত বছরের ডিসেম্বর মাসে ১২০ কোটি ৬৯ লাখ ডলারের রেমিটেন্স এসেছিল। মার্চে রেমিটেন্স এসেছে ১২৮ কোটি ৬৮ লাখ ডলার। যা গত বছরের মার্চ মাসের চেয়ে ১৩ দশমিক ৩৪ শতাংশ কম। গত বছর একই সময় দেশে রেমিটেন্স এসেছিল ১৪৫ কোটি ৮৫ লাখ ডলার।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩৪১৮৭১৫৪
আক্রান্ত
৩৬৪৯৮৭
সুস্থ
২৫৪৪৮৩৩৬
সুস্থ
২৭৭০৭৮
শীর্ষ সংবাদ:
প্রাচ্যের সঙ্গে সংযোগের আদর্শ স্থান হতে পারে দেশ         থামছেই না ধর্ষণ ॥ সামাজিক ব্যাধিতে রূপ নিয়েছে         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ল         দলিত তরুণীর বাড়িতে যাওয়ার পথে রাহুল-প্রিয়াঙ্কা আটক         টিআইবির প্রতিবেদন তথ্যভিত্তিক ও সঠিক নয় ॥ কাদের         ঢাকায় গৃহকর্মীকে ধর্ষণ, ছাত্রলীগ নেতা রিমান্ডে         সরবরাহ বাড়লেও পেঁয়াজের দাম কমছে না         দেশে করোনায় মৃত্যু কমেছে         এক বছরের মধ্যে সব ঝুলন্ত তার অপসারণ         মহামারীর মধ্যেই হবে একুশে গ্রন্থমেলা         বিচার বিভাগীয় তদন্ত দলের ঘটনাস্থল পরিদর্শন         ৪ অক্টোবর থেকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেন         মাদকাসক্ত পুলিশ ও কারবারিদের তালিকা হচ্ছে ৬৪ জেলায়         ফ্লাইটে সর্বোচ্চ ২৬০ ও মাঝারি এয়ারক্রাফটে ১৪০ যাত্রী নেয়া যাবে         এমসি কলেজে ধর্ষণ : জড়িতদের ছাড় দেয়া হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         চিনিশিল্পকে নতুন করে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে এই সরকার : শিল্পমন্ত্রী         করোনায় প্রাণ গেল বিএসএমএমইউ অধ্যাপকের         করোনায় কেউ না খেয়ে মারা না গেলেও থালায় ভাতের পরিমাণ কমে যাচ্ছে ॥ মেনন         নতুন জলাধার সৃষ্টি ও বিদ্যমানগুলোর ধারণক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর         করোনা ভাইরাসে আরও ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫০৮