মঙ্গলবার ৫ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কয়লাচালিত বিদ্যুত কেন্দ্রের চিমনির উচ্চতা কমানো হচ্ছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ কয়লাচালিত বিদ্যুত কেন্দ্রের চিমনির উচ্চতা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর আগে, সব কয়লাচালিত বিদ্যুত কেন্দ্রের চিমনির উচ্চতা ২৭৫ মিটার করার নিয়ম ছিল। এবার নতুন নিয়ম অনুযায়ী চিমনির উচ্চতা নির্ধারণ করা হচ্ছে ২২০ মিটার। তবে, পরিবেশের ইকোসিস্টেম বিনষ্ট হতে পারে, এমন সব জায়গায় ২৭৫ মিটার উচ্চতাই থাকছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সুন্দরবন ও এর আশপাশের এলাকায় চিমনির উচ্চতা ২৭৫ মিটার রাখলেও অন্যান্য এলাকায় ২২০ মিটার করা হচ্ছে। শীঘ্রই এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করবে সরকার। তবে, চিমনির উচ্চতা কমালেও কয়লাচালিত বিদ্যুত কেন্দ্রের ক্ষতি কমাতে ফ্লু গ্যাস ডিসালফারাইজার ইউনিট (এফজিডি) নির্মাণ করতেই হবে।

জানতে চাইলে বিদ্যুত সচিব ড. সুলতান আহমেদ বলেন, ‘সব জায়গায় নয়, যেসব এলাকায় কয়লাচালিত বিদ্যুত কেন্দ্র থেকে পরিবেশ ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে, সেসব এলাকায় চিমনির উচ্চতা একই থাকবে। অন্যান্য এলাকায় কিছুটা কমিয়ে আনার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।’ শীঘ্রই এই বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হতে পারে বলে তিনি জানান।

বর্তমানে বাগেরহাট, পটুয়াখালী, বরগুনা ও কক্সবাজারে বড় কয়লাচালিত বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে পায়রার কাজ শেষ। রামপাল আর মাতারবাড়ির কাজ চলছে।

চলতি মাসেই পায়রার ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্রটি পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়েছে। আগামী মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে এই কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হতে পারে। কেন্দ্রটির চিমনির উচ্চতা ২৭৫ মিটার হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কেন্দ্রটি এফজিডি নির্মাণ করে দূষণ নিয়ন্ত্রণ করেছে। এজন্য চিমনির চেয়ে অনেক বেশি ব্যয় হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রায় ৯৬ ভাগ ফ্লু গ্যাস ধরা সম্ভব হবে। অর্থাৎ এই প্রক্রিয়ায় দূষণ একেবারে কমিয়ে আনা সম্ভব। তাই এই কেন্দ্রের চিমনির উচ্চতা ২২০ মিটারই করা হয়েছে। ফ্লু-গ্যাস হচ্ছে নাইট্রোজেন ডাই-অক্সাইড, সালফার ডাই-অক্সাইড, কার্বন ডাই-অক্সাইড ইত্যাদির নিঃসরণ। এই গ্যাস নিঃসরণ পর্যবেক্ষণের জন্য রিয়েল টাইম কন্টিনিউয়াস এমিশন মনিটরিং সিস্টেম করা বাধ্যতামূলক সব বড় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুত কেন্দ্রের জন্য।

বিদ্যুত বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘দেশের উপকূলীয় এলাকা সাইক্লোনপ্রবণ। এসব এলাকায় ২৭৫ মিটার উচ্চতার চিমনি তৈরি করলে ভেঙ্গে পড়ার আশঙ্কা থাকে। ঘূর্ণিঝড়ের সময় ২৭৫ মিটার উচ্চতায় বাতাসের যে গতিবেগ তৈরি হয়, তাতে এই আশঙ্কা প্রবল বলে দেখা গেছে। ভারত ও চীনকে অনুসরণ করে বাংলাদেশ চিমনির উচ্চতা নির্ধারণ করলেও দেশটি অনেক আগেই তাদের কয়লাচালিত বিদ্যুত কেন্দ্রের চিমনির উচ্চতা কমিয়েছে।

বিদ্যুত বিভাগের পরিকল্পনা অনুযায়ী, ২০৩০ সালের মধ্যে দেশে অন্তত ১০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্রের জ্বালানি হবে কয়লা। এই পরিমাণ কয়লা কেন্দ্র চালাতে বছরে অন্তত ৩ কোটি ৩০ লাখ মেট্রিক টন কয়লার প্রয়োজন।

প্রতিদিন এক হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্র চালাতে দরকার হবে ৯ হাজার মেট্রিক টন কয়লা। সেই হিসাবে প্রতিদিন ১০ হাজার মেগাওয়াটের জন্য প্রয়োজন পড়বে ৯০ হাজার মেট্রিক টন কয়লা। বছর শেষে ৩৬৫ দিনের জন্য প্রয়োজন হবে ৩ কোটি ২৮ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন কয়লা। দাবি করা হচ্ছে, বিদ্যুত উৎপাদনের পর ৯৯ দশমিক ৯ ভাগ ছাই ‘এ্যাশ হপারে’ ধরা হবে। এরপরও বিপুল পরিমাণ কয়লা পুড়লে পরিবেশের ক্ষতি হতে পারে। এই ক্ষতি কমিয়ে আনতে এসব উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে বলেও সংশ্লিষ্টরা দাবি করেন।

শীর্ষ সংবাদ:
মেসি-সালাহকে হারিয়ে ফিফা বর্ষসেরা জিতলেন লেভানদোভস্কি         বাড়তে পারে শৈত্যপ্রবাহ         নাইকো দুর্নীতি মামলা ॥ খালেদার বিরুদ্ধে চার্জ শুনানি ৮ মার্চ         শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাস         অভিনেত্রী শিমু হত্যা ॥ স্বামী ও গাড়িচালককে নিয়ে অভিযানে র্যাব-পুলিশ         অভিনেত্রী শিমু হত্যা ॥ স্বামীসহ আটক ২         উখিয়ার ক্যাম্পে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসী রোহিঙ্গারা         তৃণমূলের প্রকল্প বাস্তবায়নে আরও মনোযোগী হোন ॥ ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী         বিচারকাজ ফের ভার্চ্যুয়ালি পরিচালনা করতে হবে ॥ প্রধান বিচারপতি         আফগানিস্তান শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাতে নিহত ২৬         ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী         হাতিয়ার সংরক্ষিত বনের গাছ কেটে পাচার, চক্রের এক সদস্য আটক         হত্যা মামলায় বিজিবির বরখাস্ত সদস্যের মৃত্যুদন্ড         মরক্কো উপকূলে নৌকাডুবিতে ৪৩ অভিবাসীর মৃত্যু         ইসি গঠনে আইন হচ্ছে ॥ সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         সংলাপে আওয়ামী লীগের ৪ প্রস্তাব         নেতিবাচক রাজনীতির ভরাডুবি হয়েছে ॥ কাদের         আগামী সংসদ নির্বাচনও চমৎকার হবে ॥ তথ্যমন্ত্রী         ইভিএমে ভোট দ্রুত হলে জয়ের ব্যবধান বাড়ত ॥ আইভী         পন্ডিত বিরজু মহারাজ নৃত্যালোক ছেড়ে অনন্তলোকে