ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ইনজুরিতে পড়া সৌম্যকে কেন নিচে খেলানো হচ্ছে ব্যাখ্যা দিলেন প্রধান কোচ

মুশফিক, সাকিব, সাইফউদ্দিনকে মিস করছেন ডোমিঙ্গো

প্রকাশিত: ০৮:১৩, ২৭ জানুয়ারি ২০২০

  মুশফিক, সাকিব, সাইফউদ্দিনকে মিস করছেন ডোমিঙ্গো

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পাকিস্তান সফরে তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলতে গিয়ে টানা দুই ম্যাচে হারে বাংলাদেশ। সিরিজ হার হয়ে গেছে। প্রথম টি২০তে ৫ উইকেটে ও দ্বিতীয় টি২০তে ৯ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। আজ তৃতীয় ও শেষ টি২০ খেলতে নামার আগে বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো দেশের তিন ক্রিকেটারকে খুব মিস করছেন। তিন ক্রিকেটারের অভাব বোধ করছেন। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সিরিজে মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে মিস করছেন ডোমিঙ্গো। সিরিজে যাচ্ছে তাই অবস্থা হচ্ছে বাংলাদেশের। প্রথম টি২০তে বোলিংটা ভাল হয়েছিল। কিন্তু দ্বিতীয় টি২০তে পাত্তাই পেল না। কোন বিভাগেই নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। ব্যাটিংয়ে স্কোরবোর্ডে ১৪০ রানও জমা করতে পারেন না ব্যাটসম্যানরা। ফিল্ডিংয়ে তো খুবই খারাপ। ক্যাচ মিস। রান আউট মিস। ফিল্ডিং মিস। আত্মবিশ্বাসের এত কমতি দেখা যাচ্ছে তা নিয়ে হচ্ছে সমালোচনাও। বোলিংয়ে ভাল হলেও আরও ভাল হওয়ার সুযোগ আছে। তবে ব্যাটিংটাই বিশেষ নজরে পড়ছে। এখানেই যে মার খেয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আর তাই তো মুশফিক, সাকিব, সাইফউদ্দিন থাকলে অন্যরকম হতে পারত বলেও মনে করেন ডোমিঙ্গো। মুশফিক এ সফরে নিজে থেকেই যাননি। নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে, পরিবারের সঙ্গে কথা বলে সফর থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন। সাকিব তো এক বছর নিষিদ্ধই হয়ে আছেন। সাইফউদ্দিন ইনজুরি থেকে এখনও পুরোপুরি সেরে ওঠেননি। বিপিএলেও খেলতে পারেননি এ পেস অলরাউন্ডার। স্বাভাবিকভাবেই এ তিন ক্রিকেটার দলে না থাকায় দল দুর্বল হয়ে পড়েছে। ডোমিঙ্গো তাই বলতে চেয়েছেন, ‘আমরা তিনজন ফার্স্ট চয়েজ প্লেয়ারকে দলে মিস করেছি। সাইফউদ্দিন, মুশফিকুর ও সাকিব।’ ডোমিঙ্গো এ তিন ক্রিকেটারকে মিস করার সঙ্গে তরুণদের সুযোগও দেখেছেন। কিন্তু তরুণ ক্রিকেটাররা নিজেদের মেলে ধরতে পারছেন না। ডোমিঙ্গো বলেছেন, ‘আমার মনে হয় আমরা তিনজন ক্রিকেটারকে মিস করছি। সাকিব, মুশফিক পাশাপাশি সাইফউদ্দিনও। যে কিনা বল হাতেও বেশ ভাল এবং নিচের দিকে ব্যাটিং করতে পারে। তবুও আমি মনে করি এটি তরুণ ক্রিকেটারদের দারুণ সুযোগ নিজেদের মেলে ধরার। তারা তো (মুশফিক, সাকিব) সারাজীবন খেলবে না।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘টি২০ কে কোন পজিশনে খেলল তেমন নয়, ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝে খেলাটাই আসল। হ্যাঁ, কয়েকজন ক্রিকেটার নেই দলে কিন্তু স্কোয়াডে যারা আছে তারাও ভাল ক্রিকেটার শুধু পারফর্ম করতে পারছে না সঠিক সময়ে।’ উদাহরণ দিতে গিয়ে ওপেনার নাঈম শেখের কথা তুলে ধরেন ডোমিঙ্গো, ‘নাঈমের কথাই চিন্তা করেন না। প্রথম ম্যাচে মোটামুটি ভাল খেলেছে। কয়েক সপ্তাহ আগেও ভারতের বিরুদ্ধে দারুণ এক ইনিংস খেলেছে। তার মধ্যে ভাল ক্রিকেটার হওয়ার সম্ভাবনা দেখছি আমি। আপনার কাছে এই ধরনের ক্রিকেটার থাকলে তাদের হয়তো প্রয়োজনও পড়বে না। হয়তো ফলাফল যেমন আশা করেছিলাম তেমন হয়নি। তরুণদের জন্য এটি বড় শিক্ষা। তাদের শেখা উচিত বাবর, মালিক এবং হাফিজ কিভাবে খেলেছে। আমি আশাবাদী তারা এখান থেকে শিক্ষা নিবে।’ বাংলাদেশ দলে হার্ডহিটারের বড়ই অভাব তা বোঝাই যাচ্ছে। কথা উঠছে সৌম্য সরকারকে কেন এত নিচে, সাত নম্বরে খেলানো হচ্ছে? ডোমিঙ্গো যুক্তি দিয়ে বোঝানোর চেষ্টা করেন, ‘সৌম্য খুবই দারুণ একজন ক্রিকেটার। টপঅর্ডারে অনেক সুযোগ আছে। তবে আমরা শেষের দিকে ব্যাট করার জন্য এমন কাউকে খুঁজেছি যে বাউন্ডারি আদায় করে নিতে পারবে। এই ভাবনা থেকেই সৌম্যকে নিচের দিকে খেলাচ্ছি। লিটনও তার নিয়মিত জায়গা থেকে বাইরে ব্যাটিং করছে। আমরা ভিন্ন কিছু চেষ্টা করে দেখতে চাচ্ছি। দেখতে চাচ্ছি নতুন দায়িত্বে ওরা কেমন করে।’ এই ভিন্ন কিছু চক্রে দল হেরেই চলেছে। আবার সৌম্যও নাকি ইনজুরিতে পড়েছেন। যতদূর জানা গেছে, আজ তিনি তৃতীয় ও শেষ টি২০তে নাও খেলতে পারেন। তামিম হাফ সেঞ্চুরি করলেও দ্বিতীয় টি২০তে বেশি রান করলেও ব্যাটিংয়ের ধরন নিয়ে হচ্ছে সমালোচনা। কোচ ডোমিঙ্গো মনে করছেন, ‘আমি কোচ হওয়ার পর এই প্রথম তাকে নিয়ে কাজ করছি। আমাকে দেখতে হবে টি২০ ক্রিকেটে সে কিভাবে খেলবে। আশা করছি, সে নিজের খেলাটাকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারবে। কিন্তু এ জন্য অনেক কাজ এখনও বাকি।’ প্রথম ম্যাচে উইকেট থেকে রান তুলে নেয়া কঠিন হলেও দ্বিতীয় টি২০তে সেই অযুহাত দেয়ার কোন সুযোগ নেই। পাকিস্তান ব্যাটসম্যানরা বুঝিয়ে দিয়েছেন, রান করা সহজ। তাহলে কেন এমন হচ্ছে? ডোমিঙ্গো ব্যাটসম্যানদের দোষই দেখছেন। বলেছেন, ‘আমরা ২০-২৫ রান কম করেছি। প্রথমদিনের উইকেটের চেয়ে দ্বিতীয়দিনের (ম্যাচের) উইকেট ভাল ছিল। খুবই হতাশাজনক। আগের ম্যাচে লড়াই হয়েছিল, দ্বিতীয় ম্যাচে কিছুই হয়নি। অন্তত ১৫৫ রান করতে পারলে লড়াই করা যেত।’ টস জিতে কেন আগে ব্যাটিং নেয়া হয়েছে? সেই ব্যাখ্যাও দেন ডোমিঙ্গো, ‘পাকিস্তানের বোলিং কত শক্তিশালী আমরা জানি। অনভিজ্ঞ ব্যাটিং লাইনআপ নিয়ে এমন শক্তিশালী বোলিং আক্রমণের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং করাটা খুব বুদ্ধিমানের কাজ হতো না। তারা (পাকিস্তান) দেখিয়ে দিয়েছে, কেন তারা টি২০ র‌্যাঙ্কিংয়ের ১ নম্বর দল। আর আমরা শেষের দিকের। এ মুহূর্তে দক্ষতা ও সামর্থ্যে দুই দলের অনেক পার্থক্য। আমাদের এখনও অনেকদূর এগোনোর বাকি।’ খুব দ্রুতই ভুল থেকে শিক্ষা নেবেন দলের ক্রিকেটাররা সেই আশা করছেন ডোমিঙ্গো, ‘তারা দারুণ একটা বোলিং লাইনআপের বিরুদ্ধে কঠিন উইকেটে খেলেছে। আশাকরি তারা অনেক কিছুই শিখেছে।’ সেই শিক্ষা হলেই ভাল।
monarchmart
monarchmart