সোমবার ২৮ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

খাদ্যে বিষ মনে বিষ

  • আজিজ আহমেদ

জীবন ধারণের জন্য খাদ্য প্রয়োজন, ওষুধ প্রয়োজন রোগ হলে। অথচ কি’না সেই খাদ্যে এবং ওষুধেও ভেজাল! আমাদের দেশের শহুরে কিংবা গ্রামের বাজারে ভেজাল এমনভাবে ঢুকে গেছে যে, আমরা যেন এখন ওতেই অভ্যস্ত হয়ে গেছি। বাজারের ফলমূল, শাক-সবজি, মাছ, মাংসসহ দৈনন্দিন জীবনের প্রত্যেকটি খাদ্যেই ভেজাল মিশিয়ে থাকে অসাধু ব্যবসায়ীরা। এছাড়াও শিশুখাদ্যের মধ্যেও ভেজাল মেশানো হচ্ছে। ফলে শিশুরা বেড়েই উঠছে মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে দিয়ে। আর এই ভেজাল খাদ্য গ্রহণের ফলে আমাদের স্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি সাধন হচ্ছে। একদল অসাধু ব্যবসায়ী নিজেদের অধিক মুনাফার জন্য আমাদের বিষ খাওয়াচ্ছে। আর এতে আমাদের শরীরে এমনভাবে ক্ষতি হচ্ছে যে বিভিন্ন ধরনের রোগব্যাধির আক্রমণ হচ্ছে। ফলে অকালে প্রাণ হারাচ্ছে অনেক মানুষ। আমাদের দৈনন্দিন বাজারের প্রত্যেকটি খাদ্যজাতীয় দ্রব্যের মধ্যেই ভেজালে ছেয়ে গেছে। ফরমালিন, কার্বাইড, ইউরিয়া সার, হাইড্রোজসহ নানারকম ক্ষতিকর ও রাসায়নিক পদার্থ খাদ্যে ব্যবহার বন্ধ করা যাচ্ছে না কোনভাবেই। বছরের পর বছর ধরে খাদ্যে ভেজাল দেয়াসহ বিষ মেশানো হচ্ছে। আর এ নিয়ে গণমাধ্যমে খবর আসে। কালেভদ্রে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানও চলে। কিন্তু অপরাধীরা শেষ অবধি ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যায়। এর একটি কারণ তা হচ্ছে আইন প্রয়োগে উদাসীনতা। খাদ্যে ভেজালের জন্য শাস্তির বিধান থাকলেও তা প্রয়োগে আইন প্রয়োগকারী ব্যক্তিদের যথেষ্ট কার্পণ্য হতে দেখা যায়। যার ফলে অসাধু ব্যবসায়ীরা অধিক মুনাফার লোভে খাদ্যে ভেজাল মিশিয়ে থাকে। আর সেসব খাদ্যদ্রব্য গ্রহণ করা মানেই কিডনি, লিভার সিরোসিস, জন্ডিস আর ক্যান্সারকে স্বাগত জানানো। ফলে এসব সমস্যার কারণে জীবনের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়ে থাকে এবং জীবনের ঝুঁকি থাকে।

এ থেকে মুক্তি পেতে হলে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। আমাদের দেশের প্রচলিত আইনে খাদ্যে ভেজাল মেশানো সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রয়েছে। অথচ অজ্ঞাত কারণেই ওই আইনটি প্রয়োগ করা হচ্ছে না। খাদ্যে ভেজালকারীদের আইনে নির্ধারিত সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়ার কোন নজির এই দেশে নেই। অথচ উন্নত দেশগুলোতে খাদ্যে ভেজাল মেশানোর অপরাধে যথোপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হয়ে থাকে সে দেশের আইন অনুসরণের মাধ্যমে। ফলে ওই সব এই সমস্যা অনেকটা লাঘব হয়েছে। যতদূর জানা যায় খাদ্যে ভেজাল মেশানোর অপরাধে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে যাবজ্জীবন, চীনে মৃত্যুদণ্ড, যুক্তরাষ্ট্রে দশ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড বিধান রয়েছে। এসব দেশে বর্তমানে এই কঠোর আইনেই বিচার হচ্ছে। ফলে অসাধুরা খাদ্যে কিংবা ওষুধে ভেজাল দিতে সাহস পায় না।

টাঙ্গাইল থেকে

শীর্ষ সংবাদ:
জেকেজি প্রতারণার হোতা সাবরিনা গ্রেফতার         প্রধানমন্ত্রী ১ কোটি গাছের চারা রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন বৃহস্পতিবার         অনিয়ম, দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার ॥ কাদের         আপীল বিভাগের বিচারিক কার্যক্রম হবে ভার্চুয়াল         সভরেন ওয়েলথ ফান্ড ॥ বৈদেশিক রিজার্ভ থেকে ঋণ নেয়ার একমাত্র পথ         পালাতে পারবে না সাহেদ ধরা পড়তেই হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         করোনার প্রকোপ বাড়লে ভার্চুয়াল কোর্টের সাহায্য নিতেই হবে ॥ আইনমন্ত্রী         করোনায় ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে ॥ শামীম ওসমান         ঈদ-উল-আজহার প্রধান জামাত হবে বায়তুল মোকাররমে         তিস্তার রুদ্রমূর্তি, দুই পাড়েই রেড এ্যালার্ট         করোনা কি বায়ুবাহিত?         নারী পাচার চক্রের হোতা আজম খান দুই সহযোগীসহ গ্রেফতার         বগুড়া-১ আসনে উপনির্বাচন কাল         নিম্নমানের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ক্রয়ে দুর্নীতি তদন্তে ৬ কর্মকর্তাকে তলব দুদকের         রাজধানীতে ৮ অস্থায়ী পশুর হাটের চূড়ান্ত ইজারা সম্পন্ন         রাজধানীতে কোরবানির পশুর হাট বসতে দেয়া হবে না: স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়         সিএমএসডির ৬ কর্মকর্তাকে তলব করেছে দুদক         বিদেশ যেতে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট লাগবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         করোনা : মসজিদেই হবে ঈদুল আজহার জামাত         ডা. সাবরিনা বরখাস্ত        
//--BID Records