বুধবার ১২ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সীমান্তবর্তী পতিত জমিতে বিদেশী ফল চাষে সাফল্য

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দিনাজপুরের সীমান্তবর্তী পতিত জমিতে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ড্রাগন, বারি মাল্টা, সৌদি খেজুর ও কেরেলা নারিকেল চাষ করা হচ্ছে। কম খরচে লাভ বেশি পাওয়ায় দিন দিন বাড়ছে এর সম্প্রসারণ। এসব বাগানের ফল স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন বাজারেও।

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার সীমান্ত ঘেঁষা কুন্দলহাট গ্রাম। এখানকার অধিকাংশ জমি ফসল উৎপাদনে অনুপযোগী। ২০১৫ সালে ১০ একর পতিত জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে ড্রাগন, ভিয়েতনাম নারিকেল ও মাল্টার চারা রোপণ করেন প্রকৌশলী কামরুজ্জামান। বছর যেতে না যেতেই গাছে ফুল ও ফল আসে। পরে এসব ফল বিক্রি করে লাভবান হন তিনি। পরবর্তীতে এলাকার বেকার যুবকদের নিয়ে গড়ে তোলেন ইজি এগ্রোফার্ম।

বাগান মালিক কামরুজ্জামান বলেন, ‘এই এলাকার জমিগুলো অনেক দিন ধরেই পড়ে ছিল। পড়ে ভাবলাম এখানে কোন লাভজনক কিছু করা যায় কি না।’ কামরুজ্জামানের সাফল্য দেখে এলাকার অনেকেই এখন পতিত জমিতে ফলের চাষ করছেন। পরিচর্যা ছাড়া তেমন কোন খরচ না হওয়ায় লাভের মুখ দেখছেন তারা।

ফলচাষীরা বলেন, ‘আমরা সবাই সবাইকে সহযোগিতা করি। সবাই লাভের মুখ দেখেছি।’ ফার্মটি পরিদর্শন করে বিভিন্ন সাহায্য ও পরামর্শ দেয়ার কথা জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কৃষি কর্মকর্তা। তাদের মতে, কৃষি বিভাগের তত্ত্বাবধানে বাগানটি সম্প্রসারণ করা হলে বিদেশেও ফল রফতানি সম্ভব।

দিনাজপুর বিরামপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান বলেন, ‘কৃষি বিভাগের তত্ত্বাবধানে এটি যদি আরও বিকাশ করা যায় তাহলে বাংলাদেশের ফলের তালিকায় নতুন ফল যুক্ত হবে এবং ফলের চাহিদা মেটাবে।’

দিনাজপুর বিরামপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কৃষি কর্মকর্তা নিকসন চন্দ্র পাল বলেন, ‘ড্রাগন ফলটা মিষ্টি সুস্বাদু। এখানকার বাগানে এটি প্রচুর পরিমাণে ধরেছে। এই ফল স্থানীয় চাহিদা মিটিয়েও বিদেশে রফতানি সম্ভব। আমরা সেই অনুযায়ী পরিকল্পনা করছি।’

বিরামপুর উপজেলার কুন্দলহাট গ্রামের ৫০ একর পতিত জমিতে গড়ে তোলা ইজি এগ্রোফার্মে ড্রাগন, ভিয়েতনাম নারিকেল, বারি মাল্টাসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৮ হাজার ফলের গাছ রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
জান্তার দোসর আরসা ॥ প্রত্যাবাসন ঠেকাতে মিয়ানমারের নয়া কৌশল         আমরা ইচ্ছে করলেই পারি, সবই করতে পারি         ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আজ ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই টাইগারদের         চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে নৌকার প্রার্থী যারা         ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার নির্দেশ ॥ সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস         ইন্ধনদাতাদের নাম শীঘ্র প্রকাশ করা হবে         পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ, টিয়ার শেল         বন্ধুকে বিয়ে করলেন জাপানের রাজকুমারী মাকো         পরিকল্পনা বাস্তবায়নে প্রদীপ-লিয়াকত ফোনালাপ, এসএমএস         চট্টগ্রামে ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের দুটি পিলারে ফাটল         সংখ্যালঘু নির্যাতনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রয়োজন         কর্ণফুলী মাল্টিপারপাস শত শত কোটি টাকা হাতিয়েছে         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৬         রফতানি পণ্যের উৎপাদন বাড়ানোর উপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর         অপপ্রচার করাই বিএনপির শেষ আশ্রয়স্থল ॥ কাদের         ইউপি নির্বাচন : ৮৮ ইউনিয়নে নৌকার প্রতীক থাকছে না         সাক্ষ্য অইনের ১৫৫(৪) ধারা বাতিলে নারীর মর্যাদাহানি রোধ করবে : আইনমন্ত্রী         নিম্ন আয়ের পরিবারের সদস্যরা সরকারের সকল সেবা সম্পর্কে অবগত নয় : মেয়র খালেক         আন্দোলন থেকে সরে এলেন বিমানের পাইলটরা         ডেঙ্গু : হাসপাতালে ভর্তি ১৮২, মৃত্যু ১