ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ভারত থেকে পাইপে তেল আসলে সময় বাঁচবে

প্রকাশিত: ০৫:৫২, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ভারত থেকে পাইপে তেল আসলে সময় বাঁচবে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ভারত থেকে পাইপ লাইনের মাধ্যমে সরাসরি দেশে জ্বালানি তেল সরবরাহ হলে নানাভাবে সুফল পাবে উত্তরাঞ্চলের মানুষ। ব্যবসা-বাণিজ্যের পাশাপাশি সমৃদ্ধ হবে এ অঞ্চলের কৃষিভিত্তিক অর্থনীতি। ইতিবাচক প্রভাব পড়বে দেশের সার্বিক উন্নয়নে। সরকারের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে দ্রুত পাইপ লাইনের কাজ শুরু করার দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। উত্তরাঞ্চলের জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপ লাইন নির্মাণ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর মাধ্যমে ভারতের শিলিগুড়ি থেকে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাবে জ্বালানি তেল। এতে খুশি উত্তরাঞ্চলের মানুষ। একজন ট্যাঙ্কলড়ির চালক বলেন, ‘ভারত থেকে পাইপলাইনে যে তেল আসতেছে, এখানকার তেল সংগ্রহ আমাদের জন্য খুবই সুবিধে হবে।’ পেট্রোল পাম্প মালিক সমিতি সভাপতি এ জেড মেনহাজুল হক বলেন, ‘যেখানে চিটাগাং থেকে ৭ দিন লাগে, সেখানে এখানে পাইপলাইন হলে অতি দ্রুত এখানে তেল পৌঁছাবে।’ বর্তমানে, নৌপথে এবং রেল ওয়াগনের মাধ্যমে ভারত থেকে পাবর্তীপুরে জ্বালানি তেল আমদানি করা হয়। ব্যবসায়ী নেতা ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বলছেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে উত্তরাঞ্চলের যানবাহন, ব্যবসা-বাণিজ্য ও কৃষিতে নতুন মাত্রা পাবে। বাঁচবে সময়, সাশ্রয় হবে অর্থ। দিনাজপুর চেম্বার অব কমার্স সভাপতি সুজাউর রব চৌধুরী বলেন, ‘ইতোমধ্যে যে তেল আসত তা চিটাগাং হয়ে দিনাজপুরে পেতাম, এটা এখন খুব তাড়াতাড়ি পাব।’ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় অতিরিক্ত সচিব রতন চন্দ্র প-িত বলেন, ‘পাইপ লাইনের মাধ্যমে যদি আমরা এখানে তেল আনি, আমরা জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করতে পারব।’ ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপ লাইন নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫২০ কোটি টাকা। নির্মাণে সময় লাগবে অন্তত আড়াই বছর।
monarchmart
monarchmart