বুধবার ৬ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে ঝুঁকি নিয়ে যাত্রী তোলা হচ্ছে

কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে ঝুঁকি নিয়ে যাত্রী তোলা হচ্ছে

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর ॥ শিবচর কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে কোন নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাঝ পদ্মায় লঞ্চ থেকে স্পিডবোটে যাত্রী তোলা হচ্ছে। স্বল্প ভাড়া ও অল্প সময়ে পদ্মানদী পাড়ি দেবার সুযোগ হাতছাড়া করতেও রাজি নন অনেক যাত্রী। প্রতিদিন কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে দেখা যায় স্পিডবোটে তোলার এ দৃশ্য।

জানা গেছে, কাঁঠালবাড়ি ও শিমুলিয়া ঘাট থেকে লঞ্চ ছেড়ে একটু দূরে গেলেই ফিরতি স্পিডবোট লঞ্চের পেছনে এসে স্বল্প ভাড়ায় যাত্রী তোলার জন্য হাঁকডাক শুরু করে। এতে অনেক যাত্রী পদ্মানদীর মধ্য থেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্পিডবোটে উঠে নদী পারাপার হচ্ছে। কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে ৮৭ লঞ্চ, ১৭ ফেরি ও ২ শতাধিক স্পিডবোট নিয়মিত চলাচল করে। এর মধ্যে স্বল্প সময়ে পদ্মানদী পাড় হওয়ার অন্যতম নৌযান স্পিডবোট যাত্রীদের কাছে বেশ জনপ্রিয়।

এক ঘাটের যাত্রী অন্য ঘাটের স্পিডবোটে তোলার নিয়ম না থাকায় ট্রিপের যাত্রী নামিয়ে খালি যাওয়ার সময় স্পিডবোট চালক মাঝ পদ্মায় বা ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া লঞ্চ থেকে যাত্রী তুলে পারাপার করে আসছে। এ ক্ষেত্রে ভাড়া কম হওয়ায় অনেক যাত্রী লঞ্চের পেছন থেকে ঝুঁকি নিয়ে স্পিডবোটে উঠছেন।

স্পিডবোটে উঠতে যাওয়া যাত্রী রুবেল বলেন, ‘প্রায় সময়ই নদীর মধ্য থেকে স্পিডবোটে উঠে পারাপার হয়ে থাকি। এতে ভাড়াও কম লাগে আর তারাতারি পার হওয়া যায়। তবে নদীর মধ্য থেকে স্পিডবোটে উঠা কিছুটা ঝুঁকিপূর্ণ।’

নদীর মধ্য থেকে এভাবে স্পিডবোটে উঠার বিরোধিতা করে অপর এক লঞ্চ যাত্রী মো. আসলাম বলেন, ‘আসলে যাত্রীদের খামখেয়ালীপনা রয়েছে। ঝুঁকি জেনেও নদীর মাঝ থেকে এভাবে স্পিডবোটে উঠে অনেককেই পারাপার হতে দেখছি। কোন ভাবে পা পিছলে যদি পরে যায় সেক্ষেত্রে বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। আমাদের সচেতন হওয়া উচিত।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক স্পিডবোট চালক বলেন, ‘শিমুলিয়া থেকে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে যাত্রী নিয়ে আসার পর কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে খালি বোট নিয়ে ফেরৎ যেতে হয়। তেলের খরচ উঠানোর জন্য মাঝে-মধ্যে লঞ্চ থেকে কম টাকায় যাত্রী তুলি।’

এ ব্যাপারে কাঁঠালবাড়ি ঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন বলেন, ‘নদীর মধ্য থেকে যাত্রী তুললে আসলে আমাদের কিছু করার থাকে না। বিষয়টি পুলিশকেও আমরা জানিয়েছি।’

শিবচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ইমরান আহমেদ বলেন, ‘ঘাটের কাছাকাছি থেকে যাত্রী তোলায় আমরা পাবলিক বোট নিয়ে তাদের ধরেছি। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের শাস্তিও দিয়েছি। নদীর মধ্য থেকে যাত্রী তুললে আমরা অসহায়।’

শীর্ষ সংবাদ:
আগামীকাল থেকে উপজেলাতেও ওএমএসে চাল-আটা বিক্রি         বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে দুদকে তলব         করোনার সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা         আপাতত বাড়ছে না ভোজ্যতেলের দাম         শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে রিট         ঢাকায় সেফুদার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু         ‘বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা কেউ থামাতে পারবে না’         দখলদারদের উচ্ছেদ ও অবৈধ ইটভাটা বন্ধে ডিসিদের নির্দেশ         পরিবহন শ্রমিকদের টিকা দেওয়া শুরু         শিমুকে হত্যার পর নিখোঁজের জিডি করেন স্বামী         বিশ্বজুড়ে করোনায় আরও ৯৬৬৯ মৃত্যু         ফুটপাতে নির্মাণসামগ্রী ॥ মেয়র আতিকের ক্ষোভ প্রকাশ         আমিরাতে হুতিদের ড্রোন হামলায় বাংলাদেশের নিন্দা         সুপ্রিম কোর্টে ভার্চ্যুয়াল বিচার কাজ শুরু         কেউ যেন হয়রানি না হয় ॥ সেবামুখী জনপ্রশাসন গড়তে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         দাম্পত্য কলহেই চিত্রনায়িকা শিমু খুন         ইসি সার্চ কমিটিতেই         করোনা শনাক্তের হার আশঙ্কাজনক বাড়ছে         ব্যাপক তুষারপাত ॥ শীতে নাকাল আমেরিকা ইউরোপ         ভিসি প্রত্যাহার দাবিতে শাবিতে আন্দোলন অব্যাহত