বুধবার ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

মাথা ঘুরে পড়ে যাওয়া ও হৃদরোগ

  • ডাঃ তৌফিকুর রহমান ফারুক

জনাব আহমেদ ৬৭ বছর বয়স। দুই দিন আগে হঠাৎ মাথা ঘুরে পড়ে গেলেন ও জ্ঞান হারালেন এবং মুহূর্তের মধ্যে জ্ঞান ফিরে পেলেন কিন্তু হাঁটতে গেলে অনুভব করলেন যে ওনার মাথা ঘোরে। ওনার ডায়াবেটিস নেই, উচ্চ রক্তচাপ নেই, রক্তের চর্বির মাত্রা স্বাভাবিক, কখনত্ত ধূমপান করেননি। ওনার রুটিন রক্ত পরীক্ষা ও অন্যান্য পরীক্ষার পাশাপাশি ইসিজি পরীক্ষায় দেখা গেল হৃদস্পন্দন মিনিটে মাত্র ৩০ বার যা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক কম এবং হৃদযন্ত্রের ইলেকট্রিক্যাল লাইনে সম্পূর্ণ ব্লক হয়েছে যাকে আমরা ৩য় মাত্রার হার্ট ব্লক বলি। রোগী ও রোগীর অভিভাবক ও আত্মীয়স্বজনকে বর্তমান রোগ ও রোগের জটিলতা সম্পর্কে কাউন্সেলিং বা পরামর্শ দেয়ার পর জরুরী ভিত্তিতে অস্থায়ী পেসমেকার লাগানোর অনুমতি চাওয়া হলো, রোগী রাজি হলে একটি অস্থায়ী পেসমেকার লাগানো হলো। বিভিন্ন পরীক্ষার পর যখন নিশ্চিত হওয়া গেল যে রোগীর এই শ্লথগতির হৃদস্পন্দন এমনিতে আর স্বাভাবিক হওয়ার সম্ভাবনা নেই তখন রোগীকে একটি দুই চেম্বার বিশিষ্ট স্থায়ী পেসমেকার লাগানোর পরামর্শ দেয়া হলো। স্থায়ী পেসমেকার লাগানোর পর রোগী স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারছে ও মাথা ঘোরা ভাব আর নেই ।

কি কি কারণে একজন মানুষ মাথা ঘুরে পড়ে যেতে পারে?

যদি হৃদযন্ত্রের কোন রোগের কারণে মস্তিষ্কে হঠাৎ কিছু সময়ের জন্য রক্ত সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায় তবে একজন মানুষ হঠাৎ করে মাথা ঘুরে পড়ে যেতে পারে। আবার মস্তিষ্কের কিছু সমস্যার কারণেও একজন মানুষ অজ্ঞান হয়ে যেতে পারে ।

হৃদযন্ত্রের কোন কোন রোগের কারণে একজন মানুষ মাথা ঘুরে পড়ে যেতে পারে?

হৃদযন্ত্রের বিভিন্ন ভাল¡ যে কোন কারণে যদি এত বেশি সরু হয়ে যায় যে এই সরু ভাল¡ দিয়ে রক্ত কিছু সময়ের জন্য হৃদযন্ত্র থেকে মস্তিষ্কসহ শরীরের অন্যান্য অঙ্গে সরবরাহ বন্ধ থাকে তবে একজন মানুষ মাথা ঘুরে পড়ে যেতে পারে, আবার হৃদযন্ত্রের ভেতরে বিশেষ করে বাম অলিন্দে কোন রক্তের চাকা বা টিউমারের এত বড় হয় যে বা এমন জায়গায় হয় যে তা বাম অলিন্দ ও বাম নিলয়ের মাঝখানের মাইট্রাল ভালে¡র মুখ মাঝে মাঝে বন্ধ করে দেয় তবে একজন মানুষ মাথা ঘুরে পড়ে যেতে পারে। তাছাড়া বাঁ নিলয় থেকে রক্ত বের হওয়ার রাস্তার দেয়াল এত বেশি পুরু“ হয় যে রক্ত বের হতে মাঝে মাঝে সাময়িকভাবে বাধাপ্রাপ্ত হয় তবে একজন মানুষ মাথা ঘুরে পড়ে যেতে পারে।

হৃদযন্ত্রের কোন রোগের কারণে বা অন্য কোন কারণে যদি অনিয়মিত হৃদস্পন্দন বা খুব খারাপ ধরনের হৃদস্পন্দন যেমন এ্যাট্রিয়াল ফিব্রিলেশন, ভেনট্রিকুলার ট্যাকিকারডিয়া বা ভেনট্রিকুলার ফিব্রিলেশন হয় ফলে হৃদযন্ত্রের রক্ত পাপং শূন্যে নেমে আসে ও মস্তিষ্কে রক্ত যায় না তখন মানুষ অজ্ঞান হতে পারে। আবার হৃদযন্ত্রের ইলেকট্রিক্যাল লাইনে ব্লক হলে ও হৃদযন্ত্রের গতি খুব শ্লথ হলে মস্তিষ্কে রক্ত সরবরাহ কমে গেলে একজন মানুষ মাথা ঘুরে পড়ে যেতে পারে।

অধ্যাপক- কার্ডিওলজি, জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, ঢাকা

শীর্ষ সংবাদ:
কঠিন পরিণতির মুখে মুরাদ         কাজের মানের বিষয়ে ফের সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী         জাওয়াদের প্রভাবে টানা বৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি         অভিযোগ পেলেই ডিবি জিজ্ঞাসাবাদ করবে মুরাদকে         গোপনে চট্টগ্রামের হোটেলে         ভারত থেকে এলো মিগ-২১ ও ট্যাঙ্ক টি-৫৫         চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেল যোগাযোগ এখন আর স্বপ্ন নয়         তলাবিহীন ঝুড়িতে বিলিয়ন ডলার         মালয়েশিয়া প্রবাসীদের পাসপোর্ট পেতে ভোগান্তি         পরিকল্পনাকারী অর্থ ও অস্ত্রের যোগানদাতারা এখনও ধরা পড়েনি         দ্রুত পুঁজিবাজারে আনা হচ্ছে সরকারী কোম্পানির শেয়ার         সব এয়ারলাইন্স দ্বিগুণেরও বেশি ভাড়া নিচ্ছে         খালেদাকে শনিবারের মধ্যে বিদেশ না পাঠালে আন্দোলনে যাবেন আইনজীবীরা         পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রীর ৫ প্রস্তাব         মুরাদ হাসানের পদত্যাগপত্র প্রধানমন্ত্রীর কাছে         ডা. মুরাদ হাসানকে জেলা কমিটির পদ থেকে বহিষ্কার         একনেক সভায় ১০ প্রকল্পের অনুমোদন         গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড পাবে ৩০ শিল্প প্রতিষ্ঠান         ‘ডা. মুরাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে ডিবি’         করোনা : ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ২৯১