বৃহস্পতিবার ১ আশ্বিন ১৪২৮, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নীলফামারীতে বিদ্যুতস্পৃষ্টে পাঁচ বছরে মারা গেছে ৮৯ কৃষক

  • বাঁশ ও গাছ খুঁটি হিসেবে ব্যবহার

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ সেচ নির্ভর বোরো আবাদের মৌসুম এলেই নীলফামারীতে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মৃত্যুর আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। অভিযোগ উঠেছে নিয়ম বহির্ভূতভাবে উচ্চ ক্ষমতাস¤পন্ন বিদ্যুত লাইন এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজশে নড়বড়ে বাঁশ ও গাছকে খুঁটি হিসেবে ব্যবহার করে বিদ্যুত সংযোগ দেয়া হয়েছে। চলতি সময়েও ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে কৃষক।

তবে বিগত ৫ বছরে পুলিশের রেকর্ড অনুযায়ী, জেলায় বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছে ৮৯ কৃষক। এর মধ্যে ২০১৩ সালে ১৫জন, ২০১৪ সালে ১৭জন, ২০১৫ সালে ১৯জন, ২০১৬ সালে ১৮জন ও ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২০জন। তবে এলাকাবাসীর দাবি, মৃত্যুর সংখ্যা দেড় শতাধিক ছাড়িয়ে গেছে। কারণ বাকি ৬১জনের মৃত্যুর ঘটনা মীমাংসা করে দাফন করা হয়। যা পুলিশের খাতায় নেই।

এলাকাবাসীর অভিযোগ ফসলি মাঠে বিশেষ করে সেচ নির্ভর বোরো আবাদে বিদ্যুত চালিত সেচযন্ত্র ব্যবহার বৃদ্ধি পায়। জেলা সদরের টুপামারী ইউনিয়নের সুখধন গ্রামে বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) প্রায় এক কিলোমিটার বাঁশ ও গাছকে খুঁটি হিসেবে ব্যবহার করে বিদ্যুত লাইন টেনে সংযোগ দেয়া হয়েছে। এ জন্য প্রতিটি সংযোগের জন্য ৫ হাজার টাকা করে দিতে হয়েছে অবৈধভাবে। সরেজমিনে গেলে গ্রামের বুলবুল আলী জানান আমরা ১২টি সংযোগের জন্য ৪০ হাজার টাকা দিয়েছি।

সুরেশ নামের অপর কৃষক বলেন, ৩০০ পরিবারের জন্য চার হাজার করে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা ঘুষ দিতে হয়। চাহিদামতো টাকা না দিলে তারা বিদ্যুত সংযোগ দেয় না। এখন পাকা খুঁটির জন্য এক লাখ করে টাকা চেয়েছে বিদ্যুতের লোকজন।

এ দিকে জেলা সদরের কুন্দপুকুর ইউনিয়নের সুটিপাড়া গ্রামে গিয়েও একই চিত্র দেখা গেছে। সেখানে মাটি ছুঁইছুঁই করে বিদ্যুতের তার ঝুলছে। ওই গ্রামের মিজানুর রহমান বলেন, পিডিবির বিদ্যুতের লাইনের বেহাল দশা। এসব দেখার কেউ নেই। নিয়ম থাক আর না থাক, তারা টাকা পাইলেই সংযোগ দিচ্ছেন। নাগালে থাকা ঝুলন্ত তারে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে।

নীলফামারীতে পিডিবির বিদ্যুত বিতরণ ও বিক্রয় সেবা পরিচালনা করছে নেসকো লিমিটেড।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
২২৬২১৪১৪৯
আক্রান্ত
১৫৩৪৪৪০
সুস্থ
২০২৮৮৩০৬০
সুস্থ
১৪৮৬৬৬৮
শীর্ষ সংবাদ:
চাকরিচ্যুত ব্যাংক কর্মীদের চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ         ব্যাংক কর্মীদের জন্য নতুন নির্দেশনা         ইভ্যালির মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ         গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অগ্রযাত্রার তৃতীয় বর্ষপূর্তি পালিত         খালেদার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে প্রক্রিয়া চলছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৫১         সকল শিক্ষার্থীকে ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ভ্যাক্সিনের জন্য নিবন্ধনের নির্দেশ         ‘সাংবাদিকদের চরিত্র হরণের অধিকার কারও নেই’         গৃহহীনদের ঘর তৈরিতে দুর্নীতি হয়নি : প্রধানমন্ত্রী         ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রী র‌্যাব হেফাজতে         কক্সবাজার বিমান বন্দরকে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নামকরণের প্রস্তাব         ‘কুইক রেন্টাল’ আরও ৫ বছর চালাতে সংসদে বিল পাস         ইভ্যালির সিইও রাসেল ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা         চাকরি দেওয়ার নামে কোটি টাকা হাতিয়ে নেন চক্রটি         রাজশাহীতে করোনায় একদিনে আরও সাতজনের মৃত্যু         সমুদ্র আইন সংশোধনের প্রস্তাব সংসদে         সরকারের বিরুদ্ধে বিএনপির অভিযোগ কল্পিত এবং চর্বিত চর্বণ         ৯ গোলের ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটির জয়         হিন্দি ওয়েব সিরিজে জয়া, বিপরীতে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি