ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

অবসরে যাচ্ছে শচীনের ১০ নম্বর জার্সি!

প্রকাশিত: ০৫:১২, ৩০ নভেম্বর ২০১৭

অবসরে যাচ্ছে শচীনের ১০ নম্বর জার্সি!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এসি মিলানে আপনি কখনও কাউকে ৬ নম্বর জার্সি পরে খেলতে দেখবেন না। এমনকি নাপোলিতেও দেখা যাবে না ১০ নম্বর জার্সি পরে কাউকে খেলতে। ফ্রাঙ্কো বারেসি-দিয়েগো ম্যারাডোনারা এই জার্সিগুলো পরেই খেলতেন। এই কিংবদন্তিদের অবসরের সঙ্গে সঙ্গে অবসরে পাঠানো হয়েছে তাদের জার্সিকেও। শুধু বারেসি কিংবা ম্যারাডোনায় নন আরও অনেক কিংবদন্তির জার্সিকে তাদের খেলা ছাড়ার পর অবসরে পাঠানো হয়েছে। সেই তালিকায় এবার যুক্ত হতে যাচ্ছে লিটল মাস্টার শচীন টেন্ডুলকরের নামও। ক্রিকেট দুনিয়ায় ১০ নম্বর জার্সি এবং শচীন যেন একে অপরের পরিপূরক। ক্যারিয়ারজুড়ে রঙিন পোশাকের ম্যাচে শচীনকে সবসময় এই জার্সিতেই দেখা গেছে। তার অনেক কীর্তির সঙ্গে জড়িয়ে আছে এই জার্সিটিও। সেই জার্সিটিকে ঘিরে এবার তৈরি হয়েছে বিপত্তি। ২০১৩ সালে শচীনের অবসরের পর এতদিন পর্যন্ত আর কাউকে এই জার্সিতে দেখা যায়নি। কিন্তু গত আগস্টে অভিষেক ম্যাচে শারদুল ঠাকুর ১০ নম্বর জার্সি গায়ে জড়িয়ে মাঠে নামলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও তোপের মুখে পড়তে হয় তাকে। অনেকে দাবি করে এই জার্সি পরে শারদুল নিজেকে শচীনের সঙ্গে তুলনা করছেন। পরে শারদুল জানান, নিজের জন্মদিনের সঙ্গে মিলিয়ে তিনি এই জার্সি পরে নেমেছিলেন। কিন্তু তাতেও থামেনি সমালোচনা। সে সময় এই জার্সিকে পাকাপাকিভাবে অবসরে পাঠানোর কথাও বলা হয়। তবে আইসিসির রেগুলেশনে জার্সিকে অবসরে পাঠানোর নিয়ম নেই। তাই হয়তো বিপত্তি এড়াতে অনানুষ্ঠানিকভাবে জার্সিটিকে অবসরে পাঠানো হতে পারে। বিসিসিআইয়ের একটি সূত্রের বরাতে জানা গেছে, ‘বিসিসিআই আনুষ্ঠানিকভাবে আইসিসিকে এই জার্সি অবসরে পাঠানোর আবেদন জানাবে। সে সময় পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনানুষ্ঠানিকভাবে এই জার্সি ব্যবহার করা হবে না। ’ এর আগে শচীনের আইপিএল দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সও তাদের ১০ নম্বর জার্সি পাকাপাকিভাবে তুলে রাখে।
monarchmart
monarchmart