ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম যা বলছেন

নতুন নিয়মে প্রোটিয়া-চ্যালেঞ্জ

প্রকাশিত: ০৪:২২, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

নতুন নিয়মে প্রোটিয়া-চ্যালেঞ্জ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আধুনিক ক্রিকেটে নিয়ম-কানুনের শেষ নেই। গত এক দশকে এসেছে অনেক পরিবর্তন। ডিআরএস (ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম), পাওয়ারপ্লেসহ আরও কত কি। সাধারণ দর্শকের পক্ষে এর সবকিছু মনে রাখাও কঠিন। বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির (ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল) সিদ্ধান্তে আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকা-বাংলাদেশ সিরিজ দিয়ে উইলো-গোলকের দ্বৈরথে আরও কিছু নতুনত্ব যোগ হচ্ছে। ব্যাটের মাপে পরিবর্তন, প্রায়শ রানআউট নিয়ে সৃষ্ট বিতর্কের অবসান- তবে সবচেয়ে আলোচিত ফুটবলের আদলে শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে ক্রিকেটারকে লালকার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেয়ার বিষয়টি। এসব নিয়ে কথা বলেছেন বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। কিছু কিছু পরিবর্তন নিয়ে সংশয়ে থাকলেও দ্রুত মানিয়ে নিতে চান টাইগার ক্রিকেটের অন্যতম বড় এই তারকা। ২৮ সেপ্টেম্বর পচেস্টফ্রমে প্রথম টেস্ট দিয়ে শুরু প্রোটিয়া-বাংলাদেশ দ্বৈরথ। দুই টেস্টের পর আছে তিন ওয়ানডে ও দুটি টি২০। গত জুনে কার্যনির্বাহী সভায় নতুন এই নিয়ম অনুমোদন করে আইসিসি। ১ অক্টোবর থেকে যেটি বাস্তবায়িত হবে। তাই ২৮ সেপ্টেম্বর পচেষ্টফ্রফমে দক্ষিণ আফ্রিকা-বাংলাদেশ টেস্ট দিয়ে প্রথমবারের মতো নতুন এই নিয়ে চালু হতে যাচ্ছে। ১. ব্যাটের মাপ : এখন থেকে ক্রিকেট ব্যাটের প্রস্থ ১০৮ মিলিমিটার, পুরুত্ব ৬৭ মিলিমিটার এবং প্রান্তভাগের মাপ হবে ৪০ মিলিমিটার। ২. রানআউট : এতদিন রান নেয়ার সময় ব্যাটসম্যান ক্রিজে পৌঁছালেও স্টাম্প ভেঙ্গে দিলে পা অথবা ব্যাট লাইনের বাইরে থাকলে বা শূন্যে উঠে গেলে আউটের সিদ্ধান্ত দিতেন আম্পায়ার। নতুন নিয়মে ব্যাট একবার দাগ পেরিয়ে গেলে ব্যাটসম্যান নটআউট থাকবেন। ৩. ডিআরএস : এখন মাঠের আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের পক্ষে রায় গেলে রিভিউ খোয়ায় আবেদনকারী দল। তবে কখনও কখনও ব্যাটের কানায় ক্ষীণ স্পর্শের ঘটনা বল ট্র্যাকিং প্রযুক্তিতেও ধরা পড়ে না। এমন ঘটনার ক্ষেত্রে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের পক্ষে রায় যাবে রিভিউয়ের। তবে এক্ষেত্রে আবেদনকারী দলের রিভিউ নষ্ট হবে না। ৪. লালকার্ড : লাল কার্ড দেখিয়ে খেলোয়াড়কে মাঠ থেকে বের হওয়ার ঘটনা ফুটবলেই দেখে অভ্যস্ত সবাই। ক্রিকেটেও এখন এমন দৃশ্যের দেখা মিলতে পারে। মাঠে কোন ক্রিকেটার গুরুতর অসদাচরণ করলে আম্পায়ারের ক্ষমতা থাকছে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে বহিষ্কার করার। তবে এক্ষেত্রে দুটি লেভেল ঠিক করে দেয়া হয়েছে। অপরাধের মাত্রা বিবেচনা করে লেভেল ঠিক করবেন ফিল্ড আম্পায়াররা। অপরাধ ‘লেভেল থ্রি’ হলে নির্দিষ্ট ওভারের জন্য কোন ক্রিকেটারকে মাঠের বাইরে পাঠাতে পারবেন আম্পায়ার। আর কেউ ‘লেভেল ফোর’ মাত্রার অন্যায় করলে ম্যাচের বাকিটা সময় বহিষ্কৃত হবেন। কোন ক্রিকেটারকে ব্যাটিংয়ের সময় একেবারে বের করে দেয়া হলে তার নামের পাশে ‘রিটায়ার্ড আউট’ লেখা থাকবে। টেস্ট অধিনায়ক মুশফিক যা বলছেন ॥ বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকের বড় দুশ্চিন্তা ব্যাটের মাপ নিয়ে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, এখন থেকে ব্যাটের পুরুত্ব হবে ৬৭ মিলিমিটার, সেই সঙ্গে ব্যাটের প্রান্তগুলোর নির্ধারিত মাপ থাকবে ৪০ মিলিমিটারে। মাঠে দায়িত্বে থাকা আম্পায়াররা বিশেষ এক ছাঁচের মাধ্যমে মাপবেন ব্যাটের পুরুত্ব। মুশফিকের শঙ্কার কারণ হলো, ব্যাটগুলোর মাপ ঠিকমতো না হলে সমস্যায় পড়তে হবে। এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘নতুন নিয়মগুলো জানি। যে কয়টা ব্যাট দিয়ে খেলেছি ওগুলো ঠিক হবে কিনা। এটাও একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়।’ নতুন নিয়মের আওয়াতায় দক্ষিণ আফ্রিকা-বাংলাদেশ সিরিজ থেকে আম্পায়ারদের দেয়া হবে বিশেষ ক্ষমতা। কোন ক্রিকেটার ‘ডিসিপ্লিনারি কোড’ ভাঙলে তাকে মাঠ থেকে বের করে দিতে পারবেন আম্পায়াররা। যার ফলে কমতে পারে সেøজিংয়ের মতো ঘটনা। যদিও এতে সেøজিং কমবে না বলে মনে করেন মুশফিক। তার মতে, অন্য কোন উপায় ঠিকই আবিষ্কার হয়ে যাবে। এ প্রসঙ্গে তার বক্তব্য, ‘সেøজিং কমতে পারে। তবে খুব যে কমবে, তা নয়। অনেক সময় ক্যামেরাতে পড়ে গেলে মাঠের বাইরে বের হয়ে যাওয়ার চান্স আছে। কেউ তো আর চাইবে না মাঠের বাইরে যেতে। আমার মনে হয় নিয়মের ভেতর থেকেই সেøজিংটা হবে।’ এছাড়া টেস্ট-ওয়ানডের মতো এখন থেকে টি২০তেও থাকবে ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস)। রিভিউ সিস্টেমের পাশাপাশি রানআউটের নিয়মেও এসেছে কিছু সংশোধনী। সব মিলিয়ে নতুন নিয়মগুলোর সঙ্গে দ্রুত মানিয়ে নিতে চান টেস্ট অধিনায়ক মুশফিক, ‘যেহেতু নতুন, তাই একটু এদিক-ওদিক হতে পারে। চেষ্টা থাকবে যত তাড়াতাড়ি মানিয়ে নেয়া য়ায়। দ্রুত মানিয়ে নিতে পারলেই আমরা ভাল অবস্থানে থাকতে পারব।’
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২