ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

ফ্লাইট নিয়ে হিমশিম বিমান ও সৌদিয়া

সোমবারের মধ্যে অবশিষ্ট ১৩ হাজার হজযাত্রী জেদ্দা যাবেন

প্রকাশিত: ০৫:৩১, ২৬ আগস্ট ২০১৭

সোমবারের মধ্যে অবশিষ্ট ১৩ হাজার হজযাত্রী জেদ্দা যাবেন

আজাদ সুলায়মান ॥ শেষের দিকে এসে হজ ফ্লাইট নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে বিমান ও সৌদিয়া এয়ারলাইন্স। শুক্রবার রাত পর্যন্ত মোট এক লাখ ১৪ হাজার ২শ’ হজযাত্রী জেদ্দায় চলে গেছেন। বাকি ১৩ হাজার হজযাত্রীকে আগামী সোমবার হজের শেষ ফ্লাইটের দিনে বহন করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। এদের মধ্যে ছিলেন প্রতারণার শিকার হয়ে হজ ক্যাম্পে আটকা পড়া একটি এজেন্সির ৪৪ হজযাত্রী। তাদের দূতাবাস বন্ধের দিনও বিশেষ ব্যবস্থায় ভিসার ব্যবস্থা করে সৌদি আরবে যাওয়ার সুযোগ করে দেন হাব মহাসচিব শাহাদত হোসেন তসলিম। এদিকে আশকোনা হজ ক্যাম্পে হাজার হাজার হজযাত্রীর ভিড়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে অতিরিক্ত নিরাপত্তাকর্মী মোতায়েন করতে হয়েছে। শুক্রবার জুমার দিন হওয়ায় হজযাত্রীদের সঙ্গে জুমার নামাজে অংশগ্রহণ করতে সেখানে ভিড় জমায় দূর-দূরান্ত থেকে আগত মুসল্লিরা। কিন্তু নিরাপত্তার অজুহাতে তাদের সেখানে প্রবেশ করতে দেয়নি পুলিশ ও স্কাউট বাহিনী। বিমান জানিয়েছে, অতিরিক্ত শ্লট পাওয়ায় আগামী সোমবার শেষ ফ্লাইট অপারেট করা হবে। বিমান ইতোমধ্যে শুক্রবার রাত পর্যন্ত ৬১ হাজার হজযাত্রী পরিবহন করেছে। বাকি যাত্রী সোমবারের মধ্যেই জেদ্দা পাঠানোর প্রস্তুতি ও ক্যাপাসিটি রয়েছে। বিমানের ২৪টি ফ্লাইট বাতিল করা হলেও ওই ধকল কাটিয়ে উঠেছে বলে দাবি কর্তাদের। আগামীকাল রবিবার রাতের মধ্যেই নিজস্ব কোটার প্রায় সব যাত্রী জেদ্দায় পাঠানোর সুযোগ রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে বিমান। শুক্রবার হজ ক্যাম্পে বেশ কজন যাত্রী অভিযোগ করেছেন, টাকা-পয়সা সব নেয়ার পরও তাদের টিকেট দেয়া হচ্ছে না। মাঠপর্যায়ের দালালদের প্রতারণার শিকার হয়ে তারা এখন হজ ক্যাম্পে অনাহারে-অর্ধাহারে মানবেতর দিনযাপন করছেন। হান্নান নামের ষাটোর্ধ এক হজযাত্রী জানান, তিনি গত দুদিন ধরেই ক্যাম্পে অবস্থান করছেন। রাতে ক্যাম্পের মেঝেতে একটা পেপার বিছিয়ে মাথার নিচে লাগেজ রেখে ঘুমিয়েছেন। সকাল দশটা বাজলেও তিনি নাস্তা খাওয়ার সুযোগ পাননি। কেন এ দুরবস্থা জানতে চাইলে হান্নান বলেন, আমি অপেক্ষায় রয়েছি দালালের। দুদিন ধরেই দালাল বলছে হজ থেকে এসে দেখা করে সবকিছু ঠিক করে দেবে। কিন্তু তার দেখা নেই। দালালের অপেক্ষায় আর কতদিন থাকব জানি না। জানতে চাইলে হজ পরিচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, কত লোক প্রতারণার শিকার হয়েছেন বা হবেন তা শেষ ফ্লাইট না যাওয়া পর্যন্ত নিশ্চিত করা যাবে না। কারণ আগের দিন যারা যেতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন, তারা আজ জানিয়েছেন সবকিছু ঠিক হয়েছে। পাসপোর্ট-টিকেট হাতে এসে গেছে। এভাবে প্রতিদিন উন্নতি ঘটছে। কত শঙ্কা-আশঙ্কা ছিল কিন্তু সবই তো শেষ পর্যন্ত টিকছে না। কাজেই কত লোক প্রকৃত অর্থে প্রতারণার শিকার হয়েছেন তা জানা যাবে সোমবার শেষ ফ্লাইটের দিন। প্রতারিত ৪৪ জনের ভিসা লাভ এদিকে গ্রুপ লিডারের প্রতারণার শিকার হওয়া ৪৪ হজযাত্রীকে বিশেষ ব্যবস্থায় হজে যাওযার সুযোগ করে দিয়েছেন হাব মহাসচিব শাহাদত হোসেন তসলিম। তিনি ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় ঢাকার সৌদি দূতবাসের সঙ্গে দেন-দরবার করে বন্ধের দিনেও এদের ভিসা করিয়ে নিতে সক্ষম হন। ভিসাপ্রাপ্ত ৪৪ হজযাত্রীর একজন শেরপুরের আজিজুল হাকিম মতিন। তিনি বলেন, গত বুধবার থেকে ‘নিবিড় হজ-ওমরা এ্যান্ড ট্যুরিজম’-এর মালিক গোলাম কিবরিয়া আমাদের ফোন ধরা বন্ধ করে দিয়েছেন। আমাদের সঙ্গে কোন যোগাযোগ করেননি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ‘নিবিড় হজ-ওমরা এ্যান্ড ট্যুরিজম’-এর মালিক গোলাম কিবরিয়া বলেন, আমি পাঁচ শ’ হজযাত্রীর দায়িত্ব পেয়েছি। ৪৪ জনের ভিসার জন্য বুধবার এ্যাম্বেসিতে গিয়েছিলাম কিন্তু তারা সময় শেষ বলে আমাকে ফিরিয়ে দেয়। এবার হজ এজেন্সিগুলোর গাফিলতি ও অতিমুনাফার লোভের কারণেই একের পর এক হজ ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। হজ ফ্লাইট শুরুর পর থেকে ভিসা জটিলতা ও হজযাত্রীদের বাড়িভাড়া সংক্রান্ত কারণে প্রায় ২৫টি হজ ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। নিয়মানুসারে হজযাত্রীদের ফ্লাইটের আগেই সৌদি আরবে বাড়িভাড়া করে ভাড়ার রসিদ ও বিমানের টিকেট নিশ্চিত করে হজ অফিস থেকে ডিও লেটার নিতে হয়। এবার সৌদি আরবে বাড়িভাড়া না করার কারণে অনেক হজযাত্রী যেতে পারছেন না। এদিকে শুক্রবার সকালে মৌসুমি হজ অফিসার এবিএম আমিন উল্লাহ নুরীর নেতৃত্বে হজ আইটি দল বাংলাদেশ থেকে আগত সরকারী হজ গাইডদের নিয়ে মিনা ও আরাফাতের তাঁবুগুলো পরিদর্শন করার পাশাপাশি মিনা ও আরাফাতের মানচিত্রের ওপর হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। চলতি বছর সরকারী ও বেসরকারী ব্যবস্থাপনায় মোট হজযাত্রীর সংখ্যা এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। হজযাত্রীদের সৌদি আরবে যাত্রার প্রথম ফ্লাইট পৌঁছে ২৪ জুলাই। শেষ ফ্লাইট যাবে ২৮ আগস্ট। ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে ৬ সেপ্টেম্বর ও শেষ ফিরতি ফ্লাইট ৫ অক্টোবর। এ বছর হজ অনুষ্ঠিত হবে ১ সেপ্টেম্বর।