ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ক্যারিয়ারের ২০তম ট্রফি জিতলেন চেক তারকা, নজর এখন উইম্বলডনে

সেই কেভিতোভার মুখে আবার শিরোপার হাসি

প্রকাশিত: ০৪:১৬, ২৯ জুন ২০১৭

সেই কেভিতোভার মুখে আবার শিরোপার হাসি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টেনিস বিশ্বের আলোচিত তারকাদের একজন পেত্রা কেভিতোভা। গত কয়েক মৌসুম ধরেই দুর্দান্ত খেলছেন তিনি। কিন্তু হঠাৎ করেই কেভিতোভার জীবনে বড়সড় এক ঝড়ই বয়ে যায়। গত বছরের ডিসেম্বরের ঘটনা। আততায়ীদের ছুরিকাঘাতে তার খেলোয়াড়ী জীবনই শেষ হতে চলেছিল। অনেকেই তো তার টেনিস কোর্টে ফেরা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু সবকিছুকে মিথ্যে প্রমাণ করে আবারও কোর্টে ফিরেছেন চেক প্রজাতন্ত্রের এই টেনিস তারকা। ফিরেই নিজের জাত চেনালেন দুইবারের উইম্বলডন জয়ী পেত্রা কেভিতোভা। ইনজুরি থেকে মুক্ত হওয়ার পর প্রথম শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলেন তিনি। এ্যাগন ক্ল্যাসিকের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার এ্যাসলেইগ বার্টিকে ৪-৬ ৬-৩ ৬-২ সেটে হারিয়ে ট্রফি নিজের শোকেসে তুললেন কেভিতোভা। শিরোপা জয়ের পর থেকেই উচ্ছ্বাসের জোয়ারে ভাসছেন ২৭ বছর বয়সী পেত্রা কেভিতোভা। শিরোপা জিতে কেভিতোভা বলেন, ‘এটা আমার জন্য বিশেষ কিছু। মনে হচ্ছে স্বপ্ন পূরণ হওয়ার মতোই। ওটা (আততায়ীদের ছুরিকাঘাত) আমার জন্য কঠিন সময় ছিল। আমি ভাবিনি যে কখনও আর খেলতে পারব। শুধু টেনিসই নয়, বাঁচব কিনাÑ তা নিয়েই শঙ্কায় ছিলাম।’ এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘সপ্তাহটা দারুণ কাটল। দুর্দান্ত এক টুর্নামেন্ট কাটালাম। চোটের পর এবারই সেরা প্রস্তুতি নিয়ে কোর্টে নামলাম। তেমন প্রত্যাশা ছিল না। নিজের সেরাটা উপহার দেয়াই ছিল মূল লক্ষ্য। এভাবেই এগিয়ে যেতে চাই।’ সামনেই উইম্বলডন ওপেন। তার আগে এ্যাগন ক্ল্যাসিক জিতে নিজেকে ভালভাবেই ঝালিয়ে নিলেন কেভিতোভা। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে দু’টি গ্র্যান্ডসøাম জিতেছেন চেক প্রজাতন্ত্রের এই প্রতিভাবান খেলোয়াড়। তার দুটিই আবার উইম্বলডনে। ২০১১ সালে উইম্বলডনের প্রথম শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে জেতেন দ্বিতীয় শিরোপা। এর পরের সময়টাতে অবশ্য নিজেকে আর টেনিস কোর্টে সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি তিনি। সর্বোচ্চ ফলাফল ২০১৫ সালে ইউএস ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনাল। তবে ক্যারিয়ারের ২০তম শিরোপা দারুণভাবে আশা জাগাচ্ছে কেভিতোভাকে। উইম্বলডনের শিরোপা পুনরুদ্ধারেও এখন আশাবাদী তিনি। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর চেক তারকা বলেন, ‘আমি মনে করি এই শিরোপা আমাকে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস জোগাবে। এটাই প্রমাণ করে যে, আমি এখনও লড়াই করতে পারি। এটাই আমার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।’ চোট কাটিয়ে ফ্রেঞ্চ ওপেনে প্রথম কোর্টে নেমেছিলেন কেভিতোভা। রোলাঁ গ্যারোয় জয় দিয়েই যাত্রা শুরু করেছিলেন তিনি। কিন্তু দ্বিতীয় রাউন্ডেই থেমে যায় তার জয়রথ। আর দ্বিতীয় টুর্নামেন্টেই তো বাজিমাত করলেন তিনি। কেভিতোভার পরবর্তী মিশন ইস্টবোর্ন টুর্নামেন্ট। উইম্বলডনের আগে এটাই তার শেষ এবং চূড়ান্ত পরীক্ষা। সেখানে ১৩তম বাছাই হিসেবে খেলতে নামবেন তিনি। প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ হিসেবে মনিকা নিকুলেস্কুকে পাচ্ছেন পেত্রা কেভিতোভা। ইস্টবোর্নে চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে নিঃসন্দেহেই উইম্বলডনে ফেবারিট হিসেবে কোর্টে নামবেন তিনি। চলতি মৌসুমে টেনিসে চলছে তারকা-সঙ্কট। কেননা অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের পর থেকেই টেনিস কোর্টের বাইরে ছিটকে গেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় এই মৌসুমে আর কোর্টে দেখা যাবে না আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তিকে। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে কোর্টে ফিরলেও ফ্রেঞ্চ ওপেনে খেলার আমন্ত্রণ পাননি টেনিসের আরেক তারকা মারিয়া শারাপোভা। ইনজুরির কারণে রাশিয়ান তারকা খেলতে পারবেন না উইম্বলডনেও। এছাড়া বর্তমান টেনিসের শীর্ষ তারকা এ্যাঞ্জেলিক কারবারও নিষ্প্রভ। এখন পর্যন্ত কোন শিরোপাই জিততে পারেননি জার্মান টেনিসের এই প্রতিভাবান খেলোয়াড়। এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানস্কা, ক্যারোলিন ওজনিয়াকি কিংবা সিমোনা হ্যালেপরাও নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারছেন না। তাই মৌসুমের তৃতীয় গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট উইম্বলডনে নিজেকে মেলে ধরার দারুণ সুযোগ পাচ্ছেন পেত্রা কেভিতোভা।
monarchmart
monarchmart