ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯

চিকিৎসার নামে ধর্ষণ ॥ কবিরাজকে পুলিশে সোপর্দ

প্রকাশিত: ০৭:৩৯, ২৭ মে ২০১৭

চিকিৎসার নামে  ধর্ষণ ॥ কবিরাজকে  পুলিশে সোপর্দ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ, ২৬ মে ॥ এক ভ- কবিরাজের বিরুদ্ধে চিকিৎসার নামে গৃহবধূকে ধর্ষণ করার অভিযোগে গ্রামবাসী তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে পাঁচুপুর ইউনিয়নের পবনডাঙ্গা গ্রামে। জানা গেছে, ওই গ্রামের আহম্মদ আলী দীর্ঘদিন থেকে অসুস্থতায় ভুগছেন। সম্প্রতি তিনি জানতে পারেন পার্শ্ববর্তী জয়সাড়া গ্রামের শাহাদ আলী ওরফে শাধু কবিরাজি মতে চিকিৎসা করেন। আহম্মদ আলী তার শরণাপন্ন হলে তিনি বলেন, তিনদিন গভীর রাতে সাত ঘাটের পানি সংগ্রহ করতে হবে। আর এই পানি আনতে আমার সঙ্গে যাবে কেবল তোমার স্ত্রী। ভ- কবিরাজের কথা মতো স্বামীর চিকিৎসার স্বার্থে আহম্মদের স্ত্রী নাজমা খাতুন প্রথম দিন রাতে তার সঙ্গে গিয়ে পানি নিয়ে আসেন। দ্বিতীয় দিনে গত মঙ্গলবার গভীর রাতে কবিরাজ আবারও গৃহবধূ নাজমাকে সঙ্গে নিয়ে সাত ঘাটের পানি আনতে যায়। পথে ওই কবিরাজ গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। গৃহবধূ লোকলজ্জায় কথাটি কাউকে বলতে না পারলেও বৃহস্পতিবার রাতে ওই কবিরাজ আহম্মদের বাড়িতে গিয়ে আসন বসিয়ে আবারও গভীর রাতে গৃহবধূকে নিয়ে জঙ্গলে তবারক দিতে যাওয়ার প্রস্তাব দেয়। এ সময় ওই গৃহবধূ ভ- কবিরাজের সঙ্গে যেতে অসম্মতি জানায় এবং আগের রাতের ঘটনাটি প্রকাশ করে। বিষয়টি জানতে পেরে লোকজন ভ- কবিরাজকে আটক করে রাখে। শুক্রবার গ্রামবাসী তাকে আত্রাই থানা পুলিশে সোপর্দ করে।