রবিবার ১০ আশ্বিন ১৪২৮, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

৮ কোম্পানির দরবৃদ্ধির তদন্ত প্রতিবেদন জমা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পুঁজিবাজারে ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৮ কোম্পানির শেয়ার দর অস্বাভাবিক বৃদ্ধির তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ এ্যান্ড একচেঞ্জ কমিশনে (বিএসইসি) জমা পড়েছে।

বিএসইসির মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মোঃ সাইফুর রহমান বলেন, ৮ কোম্পানির বিরুদ্ধে গঠিত তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদন কমিশনে জমা দিয়েছে। প্রতিবেদন যাচাই-বাছাই কমিশনের এনফোর্সমেন্ট বিভাগ বিচারিক কার্যক্রম শুরু করবে। যদিও কোন আইনের লঙ্ঘন থাকে তবে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর কোন আইনের লঙ্ঘন না থাকলে তাদের দায়মুুক্তি দেয়া হবে।

এই কোম্পানিগুলো হলো- রহিমা ফুড, ফাইন ফুড লিমিটেড, বিডি অটোকার্স, মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ, মেঘনা কনডেন্স মিল্ক, ঝিল বাংলা সুগার মিলস, ইমাম বাটন এবং শ্যামপুর সুগার মিলস লিমিটেড। এর আগে গত বছরের ৬ ডিসেম্বর বিএসইসির ৫৯২তম কমিশন সভায় এ কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে এ তদন্ত গঠন করা হয়। জানা যায়, জেড ক্যাটাগরিতে থাকা এই ৮ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ঋণাত্মক হওয়া সত্ত্বেও শেয়ার দর সাম্প্রতিক সময়ে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। তাই রহিমা ফুড ছাড়া অন্যান্য কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ার কারণ খতিয়ে দেখতে মোঃ গোলাম কিবরিয়া, উপ-পরিচালক এবং মোহাম্মদ রাকিবুল রহমান, সহকারী পরিচালকের সমন্বয়ে ২ সদ্যস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তাদের অনতিবিলম্বে এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে আদেশও দেয়া হয়। বিএসইসি সূত্র জানায়, তদন্ত প্রতিবেদন কমিশনের এনফোর্সমেন্ট বিভাগে পাঠানো হবে। সেখানে আইনী যাচাই-বাছাই শেষে জড়িতদের বিরুদ্ধে শুনানি হবে। এতে দোষী প্রমাণিত হলে জড়িতদের শাস্তির আওতায় আনা হবে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, তদন্ত কমিটি গঠনের আগে এক মাসে রহিমা ফুডের শেয়ার দর ৫১ টাকা থেকে ১৬৫ শতাংশ বেড়ে ১৩৫ টাকা পর্যন্ত উঠেছিল। একইভাবে ফাইন ফুডসের শেয়ার দর ৯.২০ টাকা থেকে ১৬৩ শতাংশ বেড়ে ২৪.২০ টাকা; বিডি অটোকার ৪৩ টাকা থেকে ১০৭ শতাংশ বেড়ে ৮৯ টাকা; মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ ৫.১০ টাকা থেকে ১১৮ শতাংশ বেড়ে ১১.১০ টাকা; মেঘনা কনডেন্স মিল্ক ৬ টাকা থেকে ১১৭ শতাংশ বেড়ে ১৩ টাকা; ঝিল বাংলা সুগার ১৬ টাকা থেকে ১৮১ শতাংশ বেড়ে ৪৫ টাকা; ইমাম বাটন ১১ টাকা থেকে ৮০ শতাংশ বেড়ে ১৯.৯০ টাকা এবং শ্যামপুর সুগার মিলস ১১ টাকা থেকে ১৫২ শতাংশ বেড়ে ২৮.৬০ টাকা পর্যন্ত শেয়ার দর বেড়েছিল।

চলতি হিসাব বছরের প্রথম ভাগে শেষে রহিমা ফুড শেয়ার প্রতি লোকসান ২৬ পয়সা; মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজের লোকসান ১৯ পয়সা; মেঘনা কনডেস্ক এর লোকসান ১ টাকা ৩৮ পয়সা; ঝিলবাংলা সুগারের লোকসান ২৪ টাকা ১ পয়সা; ইমাম বাটনের লোকসান ৫৫ পয়সা এবং শ্যামপুর সুগারের লোকসান ৩৪ টাকা ৯৯ পয়সা। তবে একই সময়ে ফাইন ফুডসের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ৪১ পয়সা এবং বিডি অটোকারের ইপিএস ১৪ পয়সা। অর্থাৎ এ কোম্পানি দুটি মুনাফায় রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
প্লাস্টিকে অশনি সঙ্কেত ॥ জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য ভয়ঙ্কর         অসচ্ছল বাবা-মায়ের আস্থাহীনতায় করোনায় বেড়েছে বাল্যবিয়ে ॥ ড. শিরীন শারমিন         শতভাগ স্বচ্ছতার সঙ্গে প্রকল্পের কাজ শেষ করতে হবে ॥ কাদের         প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ॥ তথ্যমন্ত্রী         দেশের উন্নয়ন করেছেন শেখ হাসিনা ॥ পরিকল্পনামন্ত্রী         করোনা বাড়লে ফের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ॥ শিক্ষামন্ত্রী         পরীক্ষামূলক ফাইভ-জি চালু ডিসেম্বরে ॥ মোস্তাফা জব্বার         ঈগল পরিবহনে ট্রাঙ্কের ভেতর মরদেহ, রহস্য উদ্ঘাটন         নারী আন্দোলনের পুরোধা কমলা ভাসিন আর নেই         পুলিশ সদস্যরা অপরাধে জড়িত থাকলে তা বন্ধ করতে হবে : আইজিপি         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় প্রাণ গেল ২৫         যতটুকু পারেন দেশে বিনিয়োগ করুন ॥ প্রবাসীদের প্রধানমন্ত্রী         প্রকল্পের নির্মাণ কাজে নয়ছয় করার সুযোগ নেই ॥ কাদের         ডিসেম্বরেই পরীক্ষামূলকভাবে ৫-জি চালু হচ্ছে ॥ টেলিযোগাযোগমন্ত্রী         ব্যক্তিগত গাড়ির জন্য দিতে হবে বাড়তি ট্যাক্স : মেয়র আতিক         নারী শিক্ষাকে উৎসাহিত করতে এমপিদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ : স্পিকার         একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে         রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি         বার কাউন্সিলের ফল প্রকাশ         বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপ, বন্দরে ১ নম্বর সংকেত