মঙ্গলবার ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

৮ কোম্পানির দরবৃদ্ধির তদন্ত প্রতিবেদন জমা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পুঁজিবাজারে ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৮ কোম্পানির শেয়ার দর অস্বাভাবিক বৃদ্ধির তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ এ্যান্ড একচেঞ্জ কমিশনে (বিএসইসি) জমা পড়েছে।

বিএসইসির মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মোঃ সাইফুর রহমান বলেন, ৮ কোম্পানির বিরুদ্ধে গঠিত তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদন কমিশনে জমা দিয়েছে। প্রতিবেদন যাচাই-বাছাই কমিশনের এনফোর্সমেন্ট বিভাগ বিচারিক কার্যক্রম শুরু করবে। যদিও কোন আইনের লঙ্ঘন থাকে তবে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর কোন আইনের লঙ্ঘন না থাকলে তাদের দায়মুুক্তি দেয়া হবে।

এই কোম্পানিগুলো হলো- রহিমা ফুড, ফাইন ফুড লিমিটেড, বিডি অটোকার্স, মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ, মেঘনা কনডেন্স মিল্ক, ঝিল বাংলা সুগার মিলস, ইমাম বাটন এবং শ্যামপুর সুগার মিলস লিমিটেড। এর আগে গত বছরের ৬ ডিসেম্বর বিএসইসির ৫৯২তম কমিশন সভায় এ কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে এ তদন্ত গঠন করা হয়। জানা যায়, জেড ক্যাটাগরিতে থাকা এই ৮ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ঋণাত্মক হওয়া সত্ত্বেও শেয়ার দর সাম্প্রতিক সময়ে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। তাই রহিমা ফুড ছাড়া অন্যান্য কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ার কারণ খতিয়ে দেখতে মোঃ গোলাম কিবরিয়া, উপ-পরিচালক এবং মোহাম্মদ রাকিবুল রহমান, সহকারী পরিচালকের সমন্বয়ে ২ সদ্যস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তাদের অনতিবিলম্বে এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে আদেশও দেয়া হয়। বিএসইসি সূত্র জানায়, তদন্ত প্রতিবেদন কমিশনের এনফোর্সমেন্ট বিভাগে পাঠানো হবে। সেখানে আইনী যাচাই-বাছাই শেষে জড়িতদের বিরুদ্ধে শুনানি হবে। এতে দোষী প্রমাণিত হলে জড়িতদের শাস্তির আওতায় আনা হবে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, তদন্ত কমিটি গঠনের আগে এক মাসে রহিমা ফুডের শেয়ার দর ৫১ টাকা থেকে ১৬৫ শতাংশ বেড়ে ১৩৫ টাকা পর্যন্ত উঠেছিল। একইভাবে ফাইন ফুডসের শেয়ার দর ৯.২০ টাকা থেকে ১৬৩ শতাংশ বেড়ে ২৪.২০ টাকা; বিডি অটোকার ৪৩ টাকা থেকে ১০৭ শতাংশ বেড়ে ৮৯ টাকা; মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ ৫.১০ টাকা থেকে ১১৮ শতাংশ বেড়ে ১১.১০ টাকা; মেঘনা কনডেন্স মিল্ক ৬ টাকা থেকে ১১৭ শতাংশ বেড়ে ১৩ টাকা; ঝিল বাংলা সুগার ১৬ টাকা থেকে ১৮১ শতাংশ বেড়ে ৪৫ টাকা; ইমাম বাটন ১১ টাকা থেকে ৮০ শতাংশ বেড়ে ১৯.৯০ টাকা এবং শ্যামপুর সুগার মিলস ১১ টাকা থেকে ১৫২ শতাংশ বেড়ে ২৮.৬০ টাকা পর্যন্ত শেয়ার দর বেড়েছিল।

চলতি হিসাব বছরের প্রথম ভাগে শেষে রহিমা ফুড শেয়ার প্রতি লোকসান ২৬ পয়সা; মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজের লোকসান ১৯ পয়সা; মেঘনা কনডেস্ক এর লোকসান ১ টাকা ৩৮ পয়সা; ঝিলবাংলা সুগারের লোকসান ২৪ টাকা ১ পয়সা; ইমাম বাটনের লোকসান ৫৫ পয়সা এবং শ্যামপুর সুগারের লোকসান ৩৪ টাকা ৯৯ পয়সা। তবে একই সময়ে ফাইন ফুডসের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ৪১ পয়সা এবং বিডি অটোকারের ইপিএস ১৪ পয়সা। অর্থাৎ এ কোম্পানি দুটি মুনাফায় রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
কক্সবাজার জেলা পুলিশের ৭ শীর্ষ কর্মকর্তাকে একযোগে বদলি         এবার দেশের ভেতরই চ্যালেঞ্জের মুখে সু চি         বিশ্বাসযোগ্য ও বাস্তবসম্মত রোডম্যাপ তৈরি করুন ॥ জাতিসংঘে শেখ হাসিনা         নুরের বিরুদ্ধে অপহরণ-ধর্ষণ ও ডিজিটাল আইনে আরেক তরুণীর মামলা         রিজেন্টের সাহেদের বিরুদ্ধে মুন্সীগঞ্জে চেক জালিয়াতির মামলা         নারায়ণগঞ্জে বিস্ফোরণ ॥ আরও একজনের মৃত্যু         করোনা টিকার সমবণ্টনে ১৫৬ দেশের চুক্তি         সৌদির বিমান টিকেটের দাবিতে ঢাকায় প্রবাসী কর্মীদের বিক্ষোভ         শীতের সময় করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা কী ?         মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর মায়ের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক         করোনায় আক্রান্ত ৩ কোটি ১২ লাখ, মৃত্যু ৯ লাখ ৬৩ হাজার         ভারতে তিনতলা ভবনে ধস, নিহত বেড়ে ২০         অস্ট্রেলিয়ার উপকূলে ৯০ তিমির মৃত্যু         ইরানের বিরুদ্ধে আবারও নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের         যুক্তরাষ্ট্রকে মধ্যপ্রাচ্যে তাদের ভবিষ্যৎ নিয়েও ভাবতে হবে ॥ লাভরভ         করোনা ভাইরাস নিয়ে শি জিনপিংয়ের সমালোচনাকারীর ১৮ বছরের কারাদণ্ড         চীনের হয়ে গুপ্তরচরবৃত্তির অভিযোগে নিউইয়র্ক পুলিশ কর্মকর্তা গ্রেফতার         আমিরাতের মানবসম্পদ মন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ         আর্থিক ক্ষতি না হলে বাড়ি থেকে কাজের পরামর্শ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর         বাড়ছে প্রাইভেট গাড়ি ॥ যানজট নিরসনে গণপরিবহন বাড়ানোর তাগিদ