ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯

সুচি বিশেষ দূত পাঠাচ্ছেন

প্রকাশিত: ০৫:৩৮, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৬

সুচি বিশেষ দূত পাঠাচ্ছেন

কূটনৈতিক রিপোর্টার ॥ রোহিঙ্গা শরণার্থী ইস্যুতে আলোচনার লক্ষ্যে মিয়ানমারের নেত্রী আউং সান সুচি বাংলাদেশে এক বিশেষ দূত পাঠাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার ঢাকায় নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত মিউ মিন্ট থানকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলবের পর তিনি এ তথ্য জানান। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত মিউ মিন্ট থানকে তলবের পর একটি প্রতিবাদ পত্র তুলে দেয়া হয়। গত ৯ অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশে প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রবেশ করেছে বলে তাকে জানানো হয়। এসব নাগরিক বাংলাদেশে প্রবেশের বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। বাংলাদেশে প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা অবস্থান করছে বলেও জানানো হয়। এ সময় মিউ মিন্ট থান জানান মিয়ানমারের নেত্রী সুচি এ বিষয়ে আলোচনার জন্য বাংলাদেশে একজন বিশেষ দূত পাঠাচ্ছেন। সূত্র জানায়, মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সমস্যা নোবেলজয়ী সুচির রাজনৈতিক জীবনের অন্যতম বড় সঙ্কট হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। শান্তির প্রতিশ্রুতি দিয়েই তার দল এ বছরের শুরুতে ক্ষমতায় আসে। রোহিঙ্গাদের বিষয়ে নীরব থাকায় মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের নেত্রী সুচির সমালোচনা হচ্ছে নানা মহল থেকে। তার নোবেল শান্তি পুরস্কার ফিরিয়ে নেয়ার দাবিও উঠেছে। এর আগে ২০১২ সালেও রাখাইনে বৌদ্ধ ও রোহিঙ্গা মুসলমানদের মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষ হয়। সেবার শতাধিক মানুষ নিহত হওয়ার পর থেকে দুই সম্প্রদায় রাখাইন অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় আলাদাভাবে বসবাস করে আসছিল। মিয়ানমার সীমান্তে সামরিক বাহিনীর অভিযানের পরে হাজার হাজার রোহিঙ্গা নাগরিক বসত-বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। অনেকেরই ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা বসতভিটা ছেড়ে সীমান্ত পার হয়ে আশ্রয়ের জন্য বাংলাদেশে এসেছেন। এখনও অনেকেই বাংলাদেশে আসার জন্য সীমান্তে অপেক্ষা করছেন।