ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

দনিয়ায় বিজয়ের নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব

প্রকাশিত: ০৬:৩৬, ৬ ডিসেম্বর ২০১৬

দনিয়ায় বিজয়ের নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব

সংস্কৃতি ডেস্ক ॥ ‘আদি শৃঙ্খল সনাতন শাস্ত্র আচার মূল সর্বনাশের এরে ভাঙিব এবার’ সেøাগানে আগামীকাল ৭ ডিসেম্বর থেকে ঢাকার দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ প্রাঙ্গণে ‘বিজয়ের নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব এবং বইমেলা ২০১৬’ এর আয়োজন করা হচ্ছে। জানা গেছে দনিয়া সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত উৎসবে সাংস্কৃতিক আয়োজনে থাকছে মঞ্চনাটক, পথনাটক, সঙ্গীত, চিত্রকলা, আবৃত্তি ও নৃত্য। এ ছাড়া বইমেলার পাশাপাশি থাকছে পিঠামেলা। উৎসবে প্রধান অতিথি থাকবেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন আইটিআই বিশ্ব সভাপতি নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার। বিশেষ অতিথি থাকবেন মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ হাবিবুর রহমান মোল্লা এমপি, নাট্যজন মামুনুর রশিদ, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের চেয়ারম্যান ও শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি নাট্যজন গোলাম কুদ্দুছ এবং দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ। বক্তব্য রাখবেন দনিয়া সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাফিজ। সভাপতিত্ব করবেন জোটের সভাপতি মোঃ শাহনেওয়াজ। উৎসবে আরণ্যকের ‘দি জুবলী হোটেল’, থিয়েটার (বেইলি রোড)-এর ‘পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়’, ঢাকা পদাতিকের ‘হেফাজত’, লোকনাট্য দল (সিদ্ধেশ্বরী)-এর ‘কঞ্জুস’, প্রাচ্যনাটের ‘কিনু কাহারের থেটার’, মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়ের ‘শিবানী সুন্দরী’, সুবচন নাট্য সংসদের ‘মহাজনের নাও’, বাংলা নাট্যদলের ‘প্রেম পরাণের কথা’, চন্দ্রকলা থিয়েটারের ‘তন্ত্র-মন্ত্র’, শব্দ নাট্যচর্চা কেন্দ্রের ‘তৃতীয় একজন’ এবং খেয়ালী নাট্যগোষ্ঠী ‘মাধুরীর বিয়ে’ নাটক মঞ্চায়ন করবে। এ ছাড়াও গণছায়া সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, দৃষ্টিপাত নাট্যদল, মৈত্রী থিয়েটার, ঢাকা মৌলিক নাট্যদল, নাট্যযোদ্ধা, সুষম নাট্য সম্প্রদায়, নাট্যদল ও নাট্যভূমি পথনাটক পরিবেশন করবে। সঙ্গীত পরিবেশন করবে বহ্নিশিখা, দনিয়া সবুজ কুঁড়ি কঁচি-কাঁচার মেলা, সুরতাল সঙ্গীত একাডেমি, সুরসাগর ললিতকলা একাডেমি, বিরহী শিল্পীগোষ্ঠী, আরোহী শিল্পীগোষ্ঠী, মিথিলা মিউজিক সেন্টার, লালন পড়শী একাডেমি, ঢাকা একতা সামাজিক সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী। আবৃত্তি পরিবেশন করবে চিত্রণ (আবৃত্তি চর্চা প্রচার ও প্রসার প্রতিষ্ঠান), সঞ্জনন আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্র। প্রতিদিন মুক্তমঞ্চে বিকেল ৪টা থেকে চলবে পথনাটক, সঙ্গীত, আবৃত্তি এবং নৃত্য এবং পিঠামেলা। এ ছাড়া সারাদিন থাকছে বইমেলা। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬.৩০টা থেকে শুরু হবে মঞ্চ নাটকের আয়োজন। এই বর্ণাঢ্য আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি এবং প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২