বৃহস্পতিবার ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ট্রাম্প মার্কিন মূল্যবোধের বিরুদ্ধে গেলে চুপ থাকব না

  • ওবামার হুঁশিয়ারি

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি মার্কিন মূল্যবোধের বিরুদ্ধে কাজ করেন তবে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা নীরব থাকবেন না বলে জানিয়েছেন। অবসরে যাওয়ার পর সাধারণত মার্কিন প্রেসিডেন্টরা রাজনীতি নিয়ে বিতর্কিত করেন না তাদের উত্তরসূরিদের নিয়ে মন্তব্য করেন না। তবে ওবামা এ প্রথা ভঙ্গ করতে পারেন বলে রবিবার লিমায় তিনি জানিয়েছেন। খবর বিবিসি অনলাইনের।

এপেক শীর্ষ সম্মেলনে যোগদান উপলক্ষে ওবামা পেরুর রাজধানী লিমা সফর করেন। রবিবার তিনি সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে সদ্য অনুষ্ঠিত নির্বাচন নিয়েও কথা বলেন। ওবামা বলেন, ট্রাম্প যদি মার্কিন মূল্যবোধের প্রতি হুমকি ছুড়ে দেন তবে তিনি চুপ করে থাকবেন না। ওবামা বলেন, ‘ট্রাম্পকে পরিকল্পনার রূপরেখা নির্ধারণ করতে আমি সহযোগিতা করতে চাই। প্রেসিডেন্টের পদমর্যাদাটি আমি সম্মান করি। এই পদে নির্বাচিত ব্যক্তিকে কাজ গুছিয়ে নেয়ার জন্য আমি আরও সময় দিতে চাই।’ এ প্রসঙ্গে ওবামা এটিও বলেন, ‘আমাদের প্রধান মূল্যবোধ ও আদর্শ বিষয় নিয়ে তিনি যদি কিছু বলেন তবে প্রথমে আমি দেখব তিনি এই মূল্যবোধ লঙ্ঘন করেছেন কি না।’ নিজেকে একজন আমেরিকার নাগরিক আখ্যা দিয়ে ওবামা বলেন, ‘আমি সব সময় নিজের দেশকে গুরুত্ব দেই।’ মার্কিন প্রেসিডেন্টরা সাধারণত দায়িত্ব ছেড়ে দেয়ার পর তাদের উত্তরসূরিদের নিয়ে সমালোচনামূলক কিছু বলেন না। যেমন ওবামা ২০০৮ সালে যখন প্রথমবারের মতো প্রেসিডেন্ট হন তখন তার নয়া প্রশাসনের বিষয়ে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের কাছে মন্তব্য চাওয়া হলে তিনি প্রথামাফিক কয়েকটি কথা ছাড়া কিছুই বলেননি। বুশের আগের প্রেসিডেন্টরাও এই রীতি অনুসরণ করেন। সাবেক কোন মার্কিন প্রেসিডেন্টই সাবেক বা পরবর্তী প্রেসিডেন্টের ব্যক্তিগত সমালোচনা করেন না। ওবামাও এই রীতি ভঙ্গ করতে চান না। তিনি শুধু বলেছেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে নয় বরং আমেরিকার একজন নাগরিক হিসেবে দেশটির মূল আদর্শ ও মূল্যবোধের বিষয়ে প্রয়োজন বোধে ট্রাম্পের সমালোচনা করতে পারেন। ট্রাম্পের প্রশাসনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে চীফ স্ট্র্যাটেজিস্ট স্টিভ বেনন ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসেবে জেনারেল মাইকেল ফ্লিনের নিয়োগ নিয়ে ইতোমধ্যেই বিতর্ক দেখা দিয়েছে। বেনন ছিলেন ব্রিটবার্ট নামে একটি ওয়েবসাইটের প্রধান। অন্যদিকে ফ্লিন এক সময় ইসলামকে ক্যান্সারের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন। এ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে ট্রাম্প বেছে নিয়েছেন জেফ সেশনকে, তিনি বর্ণবাদী মন্তব্যের জন্য ১৯৮৬ সালে ফেডারেল বিচারক পদে নিয়োগ পাননি। ওবামা এখন এ বিষয়ে জনগণের ভীতি দূর করার চেষ্টা করছেন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্র্রাম্পের কাছে নির্বিঘেœ দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়ার অপেক্ষায় আছেন ওবামা।

শীর্ষ সংবাদ:
জীববৈচিত্র্য রক্ষায় চারটি পদক্ষেপ নিতে বিশ্বনেতাদের প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর         পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে গ্রিনলাইন         প্রথম আলো সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানির দিন ধার্য         যুক্তরাষ্ট্রে শেষকৃত্যানুষ্ঠানে বন্দুকধারীর হামলা ॥ গুলিবিদ্ধ ৭         মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি ॥ বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত হত্যা মামলা         ট্রাম্প-বাইডেন প্রথম নির্বাচনী বিতর্কে তিক্ততা, বিশৃঙ্খলা         সরকার দেশের স্বার্থে ব্যবসায়ীদের সুবিধা দিচ্ছে ॥ অর্থমন্ত্রী         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়ছে         কোমল পানীয়ের নামে আমরা কী খাচ্ছি?         আলোচনার শীর্ষে টিলাগড় ॥ দুই আসামি রিমান্ডে         বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র বিমান চলাচল চুক্তি সই         জাপানী বড় বিনিয়োগের হাতছানি         ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের আজ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন         ১৬ কোটি মানুষের একমাত্র আশা ভরসা শেখ হাসিনা         চাকরির প্রলোভনে কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক গ্রেফতার         জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ         একাদশ সংসদের ৬১ শতাংশ সদস্যই ব্যবসায়ী         বিকাশের টাকা ডাকাতির ঘটনায় গাড়িসহ ৪ জন গ্রেফতার         বাংলাদেশ কখনো জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেয়নি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         ৪ থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পালন করবে ডিএনসিসি’