রবিবার ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৯ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিনিয়োগের দ্বার উন্মোচিত হচ্ছে, পিপিপির পালে হাওড়ের হাওয়া লাগবে

  • চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী মুহিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বেসরকারী ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে পিপিপি (পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ) কর্তৃপক্ষের চুক্তির ফলে দেশের হাওড় অঞ্চলে বিনিয়োগের সুবাতাস বইবে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, চেষ্টা করেও বেসরকারী বিনিয়োগ বাড়ানো যায়নি। সরকারী বিনিয়োগ বাড়লেও বেসরকারী বিনিয়োগ বাড়েনি। তবে বেসরকারী ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে পিপিপি (পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ) কর্তৃপক্ষের চুক্তির ফলে বিনিয়োগের পালে হাওড়ের বাতাস লাগবে। বিনিয়োগ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে যে চিন্তা ছিল তা দূর হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে পিপিপি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ১৪টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় পিপিপি কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আফসার এইচ উদ্দিন এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা নিজ নিজ চুক্তিতে সই করেন।

এ চুক্তি সইয়ের মাধ্যমে ১৪টি ব্যাংকিং ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন প্রকল্পে পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ কর্তৃপক্ষকে সহায়তা করবে। চুক্তি অনুযায়ী, এখন থেকে হাওড় এলকার বিভিন্ন প্রকল্পে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো অর্থায়ন করবে।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, সাত বছর ধরে আমি পিপিপির (পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ) কথা বলছি। কিন্তু এর দেখা পাওয়া যায়নি। চুক্তি স্বাক্ষরের পর আজ থেকে পিপিপির পালে হাওড়ের হাওয়া লাগবে। তিনি বলেন, আমার দুঃখের দিন শেষ হচ্ছে। বিনিয়োগের দ্বার উন্মোচিত হতে চলছে। ইতোমধ্যেই আমরা বেশকিছু বিনিয়োগের প্রস্তাব পেতে শুরু করেছি।

তিনি আরও বলেন, এফডিআই (ফরেন ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট বা সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ) আসছে। ঢাকা থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত সড়ক ও রেলপথ হবে। বিদেশী বিনিয়োগকারীরা আমাদের কাছে এমন প্রস্তাবই দিয়েছেন। বাংলাদেশ এখন বেশ আশাব্যঞ্জক অবস্থানে আছে মন্তব্য করে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের কাজকর্ম মোটামুটি বিশ্বনন্দিত।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ও পিপিপি কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমরা এখন খুব ভাল অবস্থানে আছি। আমাদের জিডিপি প্রবৃদ্ধি এখন ৭ দশমিক ১ শতাংশ। ২০২১ সালের মধ্যেই আমাদের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৮ শতাংশ। অতিদ্রুত আমাদের অর্থনৈতিক অঞ্চলের কাজ এগিয়ে যাচ্ছে।

পিপিপি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে চুক্তি হওয়া আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো হলোÑ এবি ব্যাংক লিমিটেড, বিআইএফএফএল, ব্র্যাক ইপিএল ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড, সিটি ব্যাংক ক্যাপিটাল লিমিটেড, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, গ্রীন ডেল্টা ক্যাপিটাল লিমিটেড, আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড, আইডিসিওএল, আইআইডিএফসি, মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড, দ্য সিটি ব্যাংক লিমিটেড, ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড। ওই অনুষ্ঠানে ব্যাংক এ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল ডিভিশনের সেক্রেটারি ইউনুসুর রহমান, ব্যাংকার্স এ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান আনিস এ খানসহ সরকারী-বেসরকারী উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শীর্ষ সংবাদ:
‘পল্লী উন্নয়ন’পদক পেলেন শেখ হাসিনা         কলকাতা থেকে খুলনার পথে বন্ধন এক্সপ্রেস         ঢাকা থেকে ১৬৫ যাত্রী নিয়ে কলকাতার উদ্দেশ্য মৈত্রী এক্সপ্রেস         বরিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় ১০ জন নিহত         দাম কমানোর টার্গেট ॥ সংসদে বাজেট পেশ ৯ জুন         ৫৭ বছর পর ঢাকা থেকে ‘মিতালি এক্সপ্রেস’ যাবে ভারতে         রাজনীতির মাঠ গরম করতে চায় বিএনপি         মাঙ্কিপক্সে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে তরুণরা         দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হবে ॥ রিফাত         পাহাড়ে বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতা দিন দিন বাড়ছে         ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি ঢাকায় আসছে ৮ জুন         আজ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস ॥ নানা আয়োজন         উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় কমিউনিটি রেডিও শক্তিশালী মাধ্যম         অবৈধ ক্লিনিক বন্ধে দেশজুড়ে অভিযান         ইয়াবা ও মানব পাচারে কমিশন পায় রোহিঙ্গা নারীরা         চলচ্চিত্র ব্যবসায় আশার আলো মিনি সিনেপ্লেক্স         সিলেটে ডায়রিয়াসহ পানিবাহিত রোগ বাড়ছে         বিএনপি খোমেনি স্টাইলে বিপ্লব করার দুঃস্বপ্ন দেখছে ॥ কাদের         শান্তিরক্ষীগণ পেশাদারিত্ব, দক্ষতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন : প্রধানমন্ত্রী         প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে সময়োপযোগী কারিকুলাম প্রণয়নের নির্দেশ রাষ্ট্রপতির