শনিবার ৩১ চৈত্র ১৪২৮, ১৫ মে ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সৌদি থেকে ৩৫ শতাংশ কম রেমিট্যান্স গেল বাইরে

সৌদি থেকে ৩৫ শতাংশ কম রেমিট্যান্স গেল বাইরে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার॥ সৌদি আরব থেকে প্রবাসী শ্রমিকদের পাঠানো টাকায় ভাটা পড়েছে। দেশটির মুদ্রা এজেন্সি বলছে, জুলাই মাসে তাদের দেশ থেকে বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা ৩৫ শতাংশ টাকা কম পাঠিয়েছে। এ মাসে বিদেশি রেমিটেন্সের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৩০ কোটি সৌদি রিয়েছে। গত জুনে যা ছিল ১ হাজার ৫৮০ কোটি রিয়েল। অর্থাৎ আলোচিত মাসে প্রবাসীদের দেশে পাঠানো টাকা কমেছে সাড়ে ৫০০ কোটি রিয়েল। শতাংশ হিসেবে যা ৩৫।

আরব নিউজের এক খবরে বলা হচ্ছে, ২০১৩ সালের পর জুলাইয়ের এ চিত্র সর্বনিম্ন। তবে ২০১৫ সালের জুলাইয়ের তুলনায় তা ১৯ শতাংশ কম। এ সময় রেমিটেন্স কমে ২৪০ কোটি রিয়েল।

গত দেড় বছরে সস্তা তেলে ধরা খেয়ে অর্থনীতিতে এক রকম কাবু হয়ে গেছে মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী এ দেশটি। এরপর সোজা হয়ে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নেই সৌদি আরব। মোবাইল খাতে প্রবাসীদের বিদায় করা, স্থানীয়দের কর্মসংস্থান তৈরি করা, নাগরিকদের ওপর থেকে ভর্তুকি তুলে নেওয়া, পুঁজিবাজারে আসাসহ নানা পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

এর মধ্যে কিছু সুফল হয়তো ঘরে তুলতে পেরেছে দেশটি। এর মধ্যে প্রবাসীদের রেমিটেন্স কমে যাওয়া অন্যতম। তবে মাথায় হাত দিতে হচ্ছে প্রবাসীদের। সম্প্রতি দেশটি প্রবাসীদের আয় থেকে ৬ শতাংশ হারে রেমিটেন্স কেটে নেওয়ারও প্রস্তাব দিয়েছে।

বাংলাদেশ, ফিলিপাইন, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, ভারত, নেপালসহ বিভিন্ন দেশ থেকে সৌদিতে যাওয়া প্রবাসীরা রেমিটেন্স পাঠায়। যা এসব দেশের অর্থনীতিতে বড় অবদান রাখে।

আরব নিউজের খবর অনুযায়ী, দেশটিতে প্রায় ১ কোটি প্রবাসী শ্রমিক রয়েছে। যারা জুলাই মাসে গড়ে ১০৯৬ রিয়েল করে দেশে পাঠিয়েছে। জুনে এর পরিমাণ ছিল গড়ে ১ হাজার ৬৮৫ সৌদি রিয়েল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য মতে, উপসাগরীয় অঞ্চল থেকে প্রবাসী শ্রমিকরা যে রেমিট্যান্স পাঠায়; তা বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ১৫ শতাংশেরও বেশি অবদান রাখে। কিন্তু গত ১২ মাসে (মে মাস পর্যন্ত) যে প্রবাসী আয় এসেছে তা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪.১ শতাংশ কম।

ফিলিপাইন বলছে, সাম্প্রতিক মাসগুলোতে সৌদি আরব ও আরব আমিরাত থেকে তাদের প্রবাসী আয় আসা কমেছে ৬ শতাংশ। ২০১৫ সাল ও সাম্প্রতিক সময়ে একই ধরনের তথ্য দিয়েছে শ্রীলঙ্কা, ভারত, নেপাল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের রেমিট্যান্স সংক্রান্ত হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, গত জুলাই মাসে মোট রেমিট্যান্স এসেছে ১০০ কোটি ৫৪ লাখ ৩০ হাজার ডলার। যা ২০১৫১৫-২০১৬ অর্থবছরের জুলাই মাসে এর পরিমাণ ছিল ১৩৮ কোটি ৯৫ লাখ ৬০ ডলার। সেই হিসাবে রেমিট্যান্স কমেছে ২৭ দশমিক ৬৪ শতাংশ বা ৩৮ কোটি ৪১ লাখ ৩০ হাজার ডলার।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনায় ঈদ : জনগণের নিরাপত্তায় সজাগ র‍্যাব-পুলিশ         করোনা : ২৪ ঘণ্টায় ২৬ মৃত্যু, শনাক্ত ৮৪৮         ডিএনসিসি হাসপাতালে ২ রোগীর শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট         করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করেই এগিয়ে যেতে হবে ॥ রাষ্ট্রপতি         বিধিনিষেধ প্রত্যাহার হওয়ার পরে ঢাকায় ফেরার অনুরোধ মেয়র তাপসের         ঈদ-পরবর্তী শহরমুখী জনস্রোত উদ্বেগের কারণ হতে পারে ॥ কাদের         করোনা মহামারি শেষ হওয়ার প্রার্থনা করছি ॥ তথ্যমন্ত্রী         স্বাস্থ্যবিধি মেনে কারাগারে ঈদ         যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার         আসামের নতুন মুখ্যমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন         নগরবাসীর সেবায় যে কোন বিষয়ে কঠিন হতে চাই : মেয়র আতিকুল         ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের ব্যাতিক্রমী ঈদ আয়োজন         দূরপাল্লার যানবাহন চালুর দাবি শাজাহান খানের         বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতে হাজারো মানুষ, মহামারী মুক্তির ফরিয়াদ         ২৭ মিলিমিটার বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধ চট্টগ্রাম         ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতে’         ঈদের অস্ত্রবিরতিতেও আফগানিস্তানে বোমায় ১১ জনের মৃত্যু         সংঘাতের পঞ্চম দিনে গাজায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১৩, আহত ৫৮০         করোনা ভাইরাস ॥ ভারতে নতুন শনাক্ত প্রায় সাড়ে তিন লাখ, মৃত্যু ৪০০০         আল আকসায় হামলার প্রতিবাদে বায়তুল মোকাররমে বিক্ষোভ