বুধবার ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কুমিল্লায় খাদ্যগুদামে বাড়তি চালের মালিক কে?

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা, ৫ জুলাই ॥ কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম সরকারী খাদ্য গুদামে ১৬৩ টন চালের হিসাব নেই। গত অর্থ বছরের শেষদিন ৩০ জুন পর্যন্ত ওই গুদামে ৮৮৯ টন চাল মজুদ রয়েছে বলে কাগজে-কলমে দেখানো হলেও প্রকৃতপক্ষে চালের মজুদ ছিল ১০৫২ টন। হিসাব বহির্ভূত ওই ১৬৩ টন চাল গুদামে মজুদ থাকলেও রহস্যজনক কারণে তা হিসাবে আনা হয়নি। রবিবার পর্যন্ত হিসাব বহির্ভূত ওই চাল গুদামে মজুদ ছিল। গম-চালের অবৈধ সিন্ডিকেটের এক প্রভাবশালী সদস্য সংরক্ষিত এলাকার ভেতরে মালামাল রেখে দেদারসে ব্যবসা পরিচালনা করে খাদ্যগুদামকে রীতিমতো ব্যক্তিগত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছেন।

জানা গেছে, ২০১৪-১৫ অর্থবছরের শেষদিন ৩০ জুন চৌদ্দগ্রাম সরকারী খাদ্য গুদামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবময় দেওয়ান ও উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা আমির হোসেন পরিদর্শন শেষে ৮৮৯ টন চাল ও ২৬২ টন গম মজুদ রয়েছে বলে কাগজপত্রে স্বাক্ষর করেন। কিন্তু বাস্তবে গুদামে চালের মজুদ ছিল ১০৫২ টন। হিসাবের অতিরিক্ত ১৬৩ টন চাল গুদামে মজুদ রেখেও রহস্যজনক কারণে কাগজপত্রে কম দেখানোর ফলে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। চৌদ্দগ্রাম সরকারী খাদ্যগুদাম লাগোয়া ঘর তৈরি করে ও গুদামের অভ্যন্তরে লোহার মাচা দিয়ে মালামাল রেখে দেদারসে ব্যবসা চালাচ্ছেন গুদামের চাল-গমের অবৈধ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের প্রভাবশালী সদস্য। সংরক্ষিত এলাকায় দোকানের মালামাল রেখে অবৈধ ব্যবসা পরিচালনার কারণে সরকারের কোটি কোটি টাকার খাদ্য সংরক্ষণকারী এ গুদামটি বর্তমানে অরক্ষিত হয়ে রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান। এ বিষয়ে গুদামের নিরাপত্তা প্রহরী কামাল উদ্দিন জানান, ওই ব্যবসায়ী প্রভাবশালী হওয়ায় গুদামের ভেতর-বাইরে মালামাল রেখে ব্যবসা চালাচ্ছেন। গুদাম পরিদর্শক এবিএস মুসা জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে বাড়তি ১৬৩ টন চাল গুদামে মজুদ রাখা হয়েছে। ৩০ জুনের মধ্যে ওই চাল দুস্থদের মাঝে বিতরণের বিধান থাকলেও তালিকা না পাওয়ায় তা বিতরণ না করে মজুদ রাখা হয়েছে। সংরক্ষিত এলাকায় সিন্ডিকেট সদস্যের মালামাল রেখে ব্যবসা পরিচালনার বিষয়ে উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা আমির হোসেন জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খাদ্য পরিদর্শক ও পাহারাদাররা জানেন।

শীর্ষ সংবাদ:
ওয়েবিনার জুম ॥ করোনাকালের গণমাধ্যম         এলো রুশ ভ্যাকসিন         নামছে বন্যার পানি, বাড়িঘরে ফিরছেন মানুষজন         পুলিশী মামলার তিন সাক্ষী গ্রেফতার ॥ রিমান্ডের আবেদন         ভাড়া ডাকাতির মহোৎসব         করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু         ছোট ঋণ সোনার হরিণ ॥ চার মাসে বিতরণ মাত্র ৫শ’ কোটি টাকা         সাম্প্রদায়িকতা-জঙ্গীবাদ ধর্মের মূল শিক্ষাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে         খালেদার চিকিৎসা দেশে না বিদেশে? দ্বিধাবিভক্ত বিএনপি         পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণীর সমাপনী পরীক্ষা বাতিল হতে পারে         ডিজিএফআই ও সিআইডি কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা, তিন প্রতারক গ্রেফতার         সাড়ে তিন বছরে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সমৃদ্ধির দিকে এগোতে থাকে         লেবাননে ৪০ হাজার কর্মী বাংলাদেশে ফিরতে সহযোগিতা চান         উত্তরা থেকে তেজগাঁও, দশ ইউটার্ন নির্মাণ ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে         সাগরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত         সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত         বঙ্গবন্ধুর হত্যা ছিল স্বাধীন বাংলাদেশকে হত্যার ষড়যন্ত্র ॥ তথ্যমন্ত্রী         মেজর সিনহা হত্যা ॥ আরও তিনজন গ্রেফতার         চলতি বছরের মধ্যে ইউটার্নগুলোর কাজ শেষ হবে ॥ আতিক         বিশ্বের প্রথম করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগ হল পুতিনের মেয়ের শরীরে        
//--BID Records