২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

বার্সা আমাকে মূল্য দেয়নি: রোনাল্ডো

প্রকাশিত : ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৭:০৮ পি. এম.
বার্সা আমাকে মূল্য দেয়নি: রোনাল্ডো

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মাত্র এক মৌসুম ছিলেন বার্সেলোনাতে। সেই মৌসুমেই রেকর্ড ভেঙে করেছিলেন একাকার। ৪৯ ম্যাচে ছিল ৪৭ গোল, যার ৩৪টি লা লিগায়। তৎকালীন ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার বানিয়ে ন্যু ক্যাম্পে আনার পর রোনাল্ডো নাজারিওকে পরের মৌসুমেই ছেড়ে দিয়েছিল বার্সা। কেন? ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তির দাবি, ক্লাবটির হেঁয়ালি আচরণ আর সঠিক মূল্য দিতে না জানার কারণে স্পেন ছাড়তে হয় তাকে!

ডাচ ক্লাব পিএসভির হয়ে দুই মৌসুমে ৫৪ গোল করার পর রোনাল্ডোকে দলে নেয়ার জন্য প্রতিযোগিতা শুরু করে দিয়েছিল বার্সা ও ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টার মিলান। শেষ পর্যন্ত জয় হয় বার্সারই। ১৯৯৬ সালের গ্রীষ্মে তখনকার ফুটবল দলবদলের রেকর্ড ১৯.৫ মিলিয়ন ডলারে ব্রাজিল ফরোয়ার্ডকে ন্যু ক্যাম্পে নিয়ে আসে রিয়াল মাদ্রিদের প্রতিদ্বন্দ্বী বার্সা।

এসেই নিজের মূল্য দারুণভাবে বুঝিয়ে দেন রোনাল্ডো। কাতালান ক্লাবটিকে জেতান উয়েফা কাপ উইনার্স কাপ, কোপা ডেল রে ও স্প্যানিশ সুপার কাপ। লা লিগায় ৩৪ গোল করে নিজের শোকেসে ঢোকান পিচিচি ও ইউরোপিয়ান গোল্ডেন সু’র ট্রফি।

প্রথম মৌসুমে দলকে তিন শিরোপা জেতানোর পর রোনাল্ডোর চুক্তি নবায়ন এক প্রকার ঠিকই ছিল। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত রেখে দেয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন সেসময়কার বার্সা সভাপতি জোসেপ লুইস নুনিয়েজ। চুক্তি হচ্ছে এমনটা জেনে ব্রাজিলে ছুটি কাটাতে চলে যান রোনাল্ডো। পাঁচদিন পরেই তাকে ফোনে জানানো হয়, ‘চুক্তির শর্তগুলো অস্বচ্ছ। তাই চুক্তি আর হচ্ছে না!’

এই ঘটনার এক সপ্তাহ পরেই দ্বিতীয়বারের মতো দলবদলের রেকর্ড গড়ে ২৭ মিলিয়ন ডলারে ইন্টারে পাড়ি জমান এ কিংবদন্তি। ডিয়েগো ম্যারাডোনার পর তিনিই দ্বিতীয় ফুটবলার যার নামের পাশে আছে পরপর দুই দলবদলের রেকর্ড!

কিন্তু কেন রোনাল্ডোর সঙ্গে চুক্তি বাড়ায়নি বার্সা সে বিষয়টি এখন পর্যন্ত অস্বচ্ছই রয়ে গেছে। ডিএজেডএনের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে পুরো দায়টা সাবেক ক্লাবের কাঁধেই চাপিয়েছেন তিনি।

‘নতুন চুক্তির খুব কাছেই চলে গিয়েছিলাম। সব ঠিক আছে ভেবেই আমি ব্রাজিলে চলে গিয়েছিলাম ছুটি কাটাতে। বার্সাতেই থাকতে চেয়েছিলাম।’

‘কিন্তু পাঁচদিন পর আমাকে ফোন দিয়ে জানানো হল চুক্তি আর হচ্ছে না। এখানে আমার কিছু করার ছিল না। আমি থাকতেই চেয়েছিলাম। কিন্তু ক্লাব আমাকে মূল্য না দেয়ায় কিছুই করার ছিল না।’

বার্সা ছাড়ার পর ইন্টার মিলান ঘুরে ২০০২ বিশ্বকাপ জয়ের পর আবারও স্পেনে ফেরেন রোনাল্ডো। এবার বার্সার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়ে। বার্সার উল্টোপিঠে রিয়ালের প্রশংসাই করেছেন সাবেক এ তারকা।

‘রিয়ালে যোগ দিয়েছিলাম কারণ সেখানে আমি খেলতে চেয়েছি। আমার জাতীয় দল সতীর্থ রবার্তো কার্লোস তাদের হয়ে খেলতো। সে প্রতিবারই বলতো রিয়াল কতবড় ক্লাব। আমি এখানে এসে দেখলাম তার কথার চেয়ে এই ক্লাব সত্যিই কত বিশাল! ’

প্রকাশিত : ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৭:০৮ পি. এম.

১৩/০২/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলা



শীর্ষ সংবাদ: