২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ৯ ফাল্গুন ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

রাস্তার বেহাল দশা

প্রকাশিত : ২৩ জানুয়ারী ২০২০
  • মাহবুবা

বাসার সামনের পুরোটা রাস্তাজুড়ে পয়ঃনিষ্কাশনের নালা বসানোর কাজ চলছে। ফলে ওই সড়কের কমপক্ষে শত ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা বিপাকে পড়েছেন। এই দুর্ভোগ কবে শেষ হবে সেটিও স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। গাড়ি/রিক্সা ঢুকতে পারছে না রাস্তায়। গর্ত খোঁড়ার জন্য এবড়োথেবড়োভাবে রাখা হয়েছে মাটির স্তূপ। ফলে স্বাভাবিকভাবে হাঁটাচলা করাও অনিরাপদ হয়ে উঠেছে।

উত্তরার বেশকিছু রাস্তা বেহাল দশায় পড়েছিল। বছরের পর বছর আনিসুল হক সাহেব মেয়র হওয়ার পরে উত্তরা, বনানী, গুলশান আবাসিক এলাকার রাস্তাগুলোতে প্রাণ ফিরে এসেছে। যদিও উত্তরায় দু-চারটি রাস্তা এখনও ভাল না, আবার এখন কিছু কাজ ধরেছে সিটি কর্পোরেশন। আসলে যা বলতে লিখতে শুরু করেছি তা হচ্ছে, সকালে বাজারে বের হয়ে ৪ নম্বর রোডে গিয়ে দেখি রাস্তা বন্ধ। কেন বন্ধ? ওয়াসার উন্নয়ন কাজ চলছে। মেয়র সাহেব জীবিত অবস্থায় যে রাস্তাগুলো ঝকঝকে করে রেখে গেছেন সেই নতুন বানানো রাস্তাগুলো আবার খোঁড়াখুঁড়ি শুরু হয়ে গেছে তাও এই শীতের সময়। এরপর ১২ নম্বর রোডে এসে দেখি এখানে আবার সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নের ট্রাক, মাটিকাটা মেশিন এসে গেছে। এই রাস্তাগুলোর কাজ মাত্র ২/৩ বছরের ভেতরে শেষ হয়েছে আর এই কাজে কত পরিমাণ টাকা খরচ হয়েছে ভাবুন। সেই রাস্তাগুলো এখন আবার নতুন করে খুঁড়ছে। এই কাজগুলো করতে তো মানুষের মানে জনগণের টাকা যাচ্ছে, নাকি! বার বার, ক’দিন পরপর কেন রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি? এই উন্নয়ন কি ওয়াসা আর সিটি কর্পোরেশন এক জোটে বসে করা সম্ভব ছিল না? নাকি বার বার কাজ দেখানোর একটা প্রয়াস বা টাকা ইনকামের এটাও অভিনব একটা পথ!

উত্তরা, ঢাকা থেকে

প্রকাশিত : ২৩ জানুয়ারী ২০২০

২৩/০১/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: